নারায়ণগঞ্জ ০৪:১৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আমি নারায়ণগঞ্জের চেহারা ঘুরিয়ে দিতে চাই – শামীম ওসমান

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৪৫:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০১৯
  • ৫৮ বার পড়া হয়েছে
নিজস্ব প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জ মাদক, সন্ত্রাস ও চাদাবাজি প্রতিহত করার লক্ষে আমরা পুলিশ প্রশাসন ও জনগণকে সাথে নিয়ে কাজ করবো ।

মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারি জেলা আইনজীবি সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সম্মিলিত আইনজীবি সমন্বয় পরিষদের পক্ষে প্রচারনা শেষে সাংবাদিকদের একথা বলেন সাংসদ শামীম ওসমান ।

তিনি জানান, আওয়ামীলীগ সরকারকে মানুষ ক্ষমতায় এনেছে সুশাসন প্রতিষ্ঠার করার জন্যে। বর্তমান সরকার জনগনের জন্যে উন্নয়নে পাশে থাকবে। অচিরেই আমি আমার নির্বাচনী এলাকার প্রতিটি ওয়ার্ডে পুলিশ সুপারকে সাথে নিয়ে এব্যাপারে সমাবেশ করবো।

শামীম ওসমান বলেন, বর্তমান সমাজে মাদক একটি সামাজিক ব্যধি রুপান্ত‌রিত হয়েছে। মাদক যারা বিক্রি করে তারা ইবলিশ শয়তানের সমতূল্য শয়তান দোয়া পরলে বিতাড়িত হয় । নারায়ণগঞ্জের সুযোগ্য পুলিশ সুপার মাদক ও সন্ত্রাসের ব্যাপারে জিরো টলারেন্স ভুমিকা নিয়েছেন যা প্রশংসার দাবি রাখে। তাদেরকে সাথে নিয়েই আমরা নারায়ণগঞ্জ  কাজ করবো । মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের এই যুদ্ধ শুধুমাত্র পুলিশ প্রশাসনের একার পক্ষে জয়ী হওয়া সম্ভব হবে না যতক্ষন না পর্যন্ত সাধারন মানুষ জেগে উঠবেন।

সাংসদ আরো বলেন, শুধু মাদকই নয়, সন্ত্রাস, চাদাবাজি ওইভ টিজিং এর বিরুদ্ধেও আমাদের অগ্রনী ভূমিকা পালন করবো। আমাদের দরকার যে সকল পরিবারের সদস্য মাদকাসক্ত তাঁদের পরিবার সহযোগিতা পেলে আমাদের কাজ করতে সহজ হবে। পূর্বে শামীম ওসমান সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ সহ সিনিয়র আইনজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেন।

সে সময়ে তিনি বলেন, আমাদের শ্লোগান হওয়া উচিত, “চেঞ্জ দ্যা ইমেজ, চেঞ্জ দ্যা নারায়ণগঞ্জ”। আমরা নারায়ণগঞ্জে ইমেজটা চেঞ্জ করতে চাই। আমি সবাইকে নিয়ে বসবো। আমি আগামীতে নির্বাচন নাও করতে পারি এবং ওপেন ডিক্লেয়ার দিচ্ছি নির্বাচন করবো না। আমি গতানুতিক রাজনীতি করতে আসিনি। আমার কাছে এমপি হওয়া বড় কথা না। বড় কথা হচ্ছে আমি নারায়ণগঞ্জের চেহারা  ঘুরিয়ে দিতে চাই। যাতে মৃত্যুর পর সবাই স্মরণ করে এৰং দুই হাত তুলে দোয়া করে।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির পদপ্রার্থী  সভাপতি এড.হাসান ফেরদৌস জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক এড. মহসীন মিয়া, সাবেক সভাপতি এড. আব্দুর রশিদ ভূইয়া, এড. আনিসুর রহমান দিপু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা, জেলা পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট ওয়াজেদ আলী খোকন, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজের সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল,সাবেক প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিলর শারমিন হাবিব বিন্নি, মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সাজনু এড রবিউল আমিন রনী প্রমুখ ।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

আমি নারায়ণগঞ্জের চেহারা ঘুরিয়ে দিতে চাই – শামীম ওসমান

আপডেট সময় : ০১:৪৫:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০১৯
নিজস্ব প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জ মাদক, সন্ত্রাস ও চাদাবাজি প্রতিহত করার লক্ষে আমরা পুলিশ প্রশাসন ও জনগণকে সাথে নিয়ে কাজ করবো ।

মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারি জেলা আইনজীবি সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সম্মিলিত আইনজীবি সমন্বয় পরিষদের পক্ষে প্রচারনা শেষে সাংবাদিকদের একথা বলেন সাংসদ শামীম ওসমান ।

তিনি জানান, আওয়ামীলীগ সরকারকে মানুষ ক্ষমতায় এনেছে সুশাসন প্রতিষ্ঠার করার জন্যে। বর্তমান সরকার জনগনের জন্যে উন্নয়নে পাশে থাকবে। অচিরেই আমি আমার নির্বাচনী এলাকার প্রতিটি ওয়ার্ডে পুলিশ সুপারকে সাথে নিয়ে এব্যাপারে সমাবেশ করবো।

শামীম ওসমান বলেন, বর্তমান সমাজে মাদক একটি সামাজিক ব্যধি রুপান্ত‌রিত হয়েছে। মাদক যারা বিক্রি করে তারা ইবলিশ শয়তানের সমতূল্য শয়তান দোয়া পরলে বিতাড়িত হয় । নারায়ণগঞ্জের সুযোগ্য পুলিশ সুপার মাদক ও সন্ত্রাসের ব্যাপারে জিরো টলারেন্স ভুমিকা নিয়েছেন যা প্রশংসার দাবি রাখে। তাদেরকে সাথে নিয়েই আমরা নারায়ণগঞ্জ  কাজ করবো । মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের এই যুদ্ধ শুধুমাত্র পুলিশ প্রশাসনের একার পক্ষে জয়ী হওয়া সম্ভব হবে না যতক্ষন না পর্যন্ত সাধারন মানুষ জেগে উঠবেন।

সাংসদ আরো বলেন, শুধু মাদকই নয়, সন্ত্রাস, চাদাবাজি ওইভ টিজিং এর বিরুদ্ধেও আমাদের অগ্রনী ভূমিকা পালন করবো। আমাদের দরকার যে সকল পরিবারের সদস্য মাদকাসক্ত তাঁদের পরিবার সহযোগিতা পেলে আমাদের কাজ করতে সহজ হবে। পূর্বে শামীম ওসমান সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ সহ সিনিয়র আইনজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেন।

সে সময়ে তিনি বলেন, আমাদের শ্লোগান হওয়া উচিত, “চেঞ্জ দ্যা ইমেজ, চেঞ্জ দ্যা নারায়ণগঞ্জ”। আমরা নারায়ণগঞ্জে ইমেজটা চেঞ্জ করতে চাই। আমি সবাইকে নিয়ে বসবো। আমি আগামীতে নির্বাচন নাও করতে পারি এবং ওপেন ডিক্লেয়ার দিচ্ছি নির্বাচন করবো না। আমি গতানুতিক রাজনীতি করতে আসিনি। আমার কাছে এমপি হওয়া বড় কথা না। বড় কথা হচ্ছে আমি নারায়ণগঞ্জের চেহারা  ঘুরিয়ে দিতে চাই। যাতে মৃত্যুর পর সবাই স্মরণ করে এৰং দুই হাত তুলে দোয়া করে।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির পদপ্রার্থী  সভাপতি এড.হাসান ফেরদৌস জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক এড. মহসীন মিয়া, সাবেক সভাপতি এড. আব্দুর রশিদ ভূইয়া, এড. আনিসুর রহমান দিপু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা, জেলা পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট ওয়াজেদ আলী খোকন, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজের সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল,সাবেক প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিলর শারমিন হাবিব বিন্নি, মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সাজনু এড রবিউল আমিন রনী প্রমুখ ।