নারায়ণগঞ্জ ০১:০৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত জুন মাসের ১৭ তারিখ কোরবানির ঈদ পালিত হওয়ার সম্ভবনা রিয়াদে নোভ আল আম্মার ইষ্টাবলিস্ট এর আয়োজনে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত রিয়াদে বেগম খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

সিদ্ধিরগঞ্জে ২০ ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় দুই শিক্ষক ৭ দিনের রিমান্ডে

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:২৩:৩৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৯ জুন ২০১৯
  • ১৩৪ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জে ব্ল্যাকমেইলিং করে ২০ এর অধিক ছাত্রীকে ৪ বছর ধরে ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা দু,টি মামলায় অক্সফোর্ড হাইস্কুলের দুই শিক্ষকের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। দশ দিনের রিমান্ড চেয়ে তাদেরকে শনিবার(২৯ জুন) দুপুরে আদালতে প্রেরণ করেছিল পুলিশ।

শোনানি শেষে নারায়ণগঞ্জ চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আহমেদ হুমায়ূন এর আদালত ডিজিডাল নিরাপত্তা আইনে র‌্যাব-১১ এর ডিএডি আবদুল আজিজ বাদী হয়ে দায়ের করা মামলা ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষক আরিফুল ইসলাম সরকার ওরফে আশরাফুলকে ৩ দিন ও প্রধান শিক্ষক জুলফিকার ওরফে রফিকুল ইসলামকে ১ দিন আবার ধর্ষিতাদের পক্ষে দায়ের করা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দায়ের করা মামলায় আশরাফুলকে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ডিজিডাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা করেছেন র‌্যাব-১১ এর ডিএডি আবদুল আজিজ বাদী হয়ে। অনৈতিক কাজে মদদ দেয়ার অভিযোগে স্কুলটির প্রতিষ্ঠা ও প্রধান শিক্ষক জুলফিকার ওরফে রফিকুল ইসলামকে (৫৫) মামলার আসামি করেছে র‌্যাব। স্কুলের সহকারী শিক্ষক আরিফুল ইসলাম সরকার ওরফে আশরাফুল (৩০) এর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন ধর্ষিত ছাত্রীদের পক্ষ থেকে একজন অভিবাবক।

প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী থানার বাকচর এলাকার মৃত শহিদুল্লা শেখের ছেলে আর সহকারী শিক্ষক আশরাফুল মাদারীপুর জেলা সদরের শিলখাড়া এলাকার সিরাজুল ইসলাম সরকারের ছেলে।

অভিযোগে আনা হয়েছে, অংক ও ইংরেজি বিষয়ের শিক্ষক আশরাফুল নিজ বাসায় ছাত্রীদের কোচিং করানোর সুবাদে ও পরীক্ষায় পাস করিয়ে দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে পঞ্চম শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত অসংখ্য ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে। সে ছাত্রীদের আপত্তিকর ছবি তুলে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইলিং করে বিগত ৪ বছর ধরে ছাত্রীদের ধর্ষণ করে অসছিল। তার এসব কাজে সহায়তা করতো স্কুলের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম।

র‌্যাব-১১ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: আলেপ উদ্দিন জানান, আটককৃত শিক্ষক আশরাফুলের মোবাইল ফোন ও ল্যাপটপসহ বিভিন্ন ডিভাইস জব্দ করে পঞ্চম শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ২০ জনের অধিক ছাত্রীকে ধর্ষণ করার প্রমাণ পাওয়া গেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন অভিযুক্ত শিক্ষক।

উল্লখ্য, মিজমিজি কান্দাপাড়া এলাকার অক্সফোর্ড হাইস্কুলের ছাত্রীদের ধর্ষণ ও যৌন হয়রানী করার অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার দুপুরে র‌্যাব-১১ ওই দুই শিক্ষককে আটক করে। পরে তাদেরকে র‌্যাব কার্যালয়ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ার পর মামলা দায়ের করে শুক্রবার বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি

সিদ্ধিরগঞ্জে ২০ ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় দুই শিক্ষক ৭ দিনের রিমান্ডে

আপডেট সময় : ১১:২৩:৩৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৯ জুন ২০১৯

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জে ব্ল্যাকমেইলিং করে ২০ এর অধিক ছাত্রীকে ৪ বছর ধরে ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা দু,টি মামলায় অক্সফোর্ড হাইস্কুলের দুই শিক্ষকের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। দশ দিনের রিমান্ড চেয়ে তাদেরকে শনিবার(২৯ জুন) দুপুরে আদালতে প্রেরণ করেছিল পুলিশ।

শোনানি শেষে নারায়ণগঞ্জ চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আহমেদ হুমায়ূন এর আদালত ডিজিডাল নিরাপত্তা আইনে র‌্যাব-১১ এর ডিএডি আবদুল আজিজ বাদী হয়ে দায়ের করা মামলা ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষক আরিফুল ইসলাম সরকার ওরফে আশরাফুলকে ৩ দিন ও প্রধান শিক্ষক জুলফিকার ওরফে রফিকুল ইসলামকে ১ দিন আবার ধর্ষিতাদের পক্ষে দায়ের করা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দায়ের করা মামলায় আশরাফুলকে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ডিজিডাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা করেছেন র‌্যাব-১১ এর ডিএডি আবদুল আজিজ বাদী হয়ে। অনৈতিক কাজে মদদ দেয়ার অভিযোগে স্কুলটির প্রতিষ্ঠা ও প্রধান শিক্ষক জুলফিকার ওরফে রফিকুল ইসলামকে (৫৫) মামলার আসামি করেছে র‌্যাব। স্কুলের সহকারী শিক্ষক আরিফুল ইসলাম সরকার ওরফে আশরাফুল (৩০) এর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন ধর্ষিত ছাত্রীদের পক্ষ থেকে একজন অভিবাবক।

প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী থানার বাকচর এলাকার মৃত শহিদুল্লা শেখের ছেলে আর সহকারী শিক্ষক আশরাফুল মাদারীপুর জেলা সদরের শিলখাড়া এলাকার সিরাজুল ইসলাম সরকারের ছেলে।

অভিযোগে আনা হয়েছে, অংক ও ইংরেজি বিষয়ের শিক্ষক আশরাফুল নিজ বাসায় ছাত্রীদের কোচিং করানোর সুবাদে ও পরীক্ষায় পাস করিয়ে দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে পঞ্চম শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত অসংখ্য ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে। সে ছাত্রীদের আপত্তিকর ছবি তুলে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইলিং করে বিগত ৪ বছর ধরে ছাত্রীদের ধর্ষণ করে অসছিল। তার এসব কাজে সহায়তা করতো স্কুলের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম।

র‌্যাব-১১ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: আলেপ উদ্দিন জানান, আটককৃত শিক্ষক আশরাফুলের মোবাইল ফোন ও ল্যাপটপসহ বিভিন্ন ডিভাইস জব্দ করে পঞ্চম শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ২০ জনের অধিক ছাত্রীকে ধর্ষণ করার প্রমাণ পাওয়া গেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন অভিযুক্ত শিক্ষক।

উল্লখ্য, মিজমিজি কান্দাপাড়া এলাকার অক্সফোর্ড হাইস্কুলের ছাত্রীদের ধর্ষণ ও যৌন হয়রানী করার অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার দুপুরে র‌্যাব-১১ ওই দুই শিক্ষককে আটক করে। পরে তাদেরকে র‌্যাব কার্যালয়ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ার পর মামলা দায়ের করে শুক্রবার বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।