নারায়ণগঞ্জ ০৫:১৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত আদমজী ইপিজেডকে অশান্ত করছে জনপ্রতিনিধিরা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে মহিলা লীগ নেত্রীর শুভেচ্ছা বিনিময় না’গঞ্জ কারাগারে হাজতীর মৃত্যু ফতুল্লায় চোরাইকৃত ট্যাংকলড়ী উদ্ধার আড়াইহাজারের মিথিলা টেক্সটাইল ঘুরে গেলেন ৮ দেশের রাষ্ট্রদূতসহ ১৮ দেশের প্রতিনিধি সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে কাউন্সিলর ইকবাল হোসেনের মতবিনিময় ফতুল্লা ব্লাড ডোনার্সের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ শিক্ষা সিলেবাস বাতিলের দাবিতে খেলাফত মজলিসের বিক্ষোভ মিছিল সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শহরে নারী সমাবেশ ও মিছিল

গায়েবী’ মামলায় বিএনপি নেতাকর্মীদের জন্য বট বৃক্ষের ছাঁয়া এডভোকেট সাখাওয়াৎ

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৩২:৫৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ মার্চ ২০২১
  • ৯৬ বার পড়া হয়েছে

শহর প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জে এখন হামলা মামলায় বিএনপির নেতাকর্মীদের একমাত্র ভরসার স্থল হলেন এডভোকেট সাখাওয়াৎ হোসেন খান। বছরের পর বছর ধরে সারা নারায়ণগঞ্জ জেলায় মামলা মোকদ্দমায় জব্দ বিএনপির নেতাকর্মীদের আইনী সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। নারায়ণগঞ্জ শহর, বন্দর, ফতুল্লা, সিদ্ধিরগঞ্জ, সোনারগাঁও, রুপগঞ্জ ও আড়াই হাজার উপজেলার নেতাকর্মীদের শত শত মামলা দেখাশোনা করছেন এডভোকেট সাখাওয়াৎ হোসেন খান। ফলে জেলার সর্ব স্থরের নেতা কর্মীদের কাছেও একটি প্রিয় নাম হলো এডভোকেট সাখাওয়াৎ।

এদিকে গতকাল বন্দরের বেশ কয়েকজন নেতার হাজিরা ছিলো নারায়ণগঞ্জ কোর্টে। তারা হাজিরা দিতে এসেছিলেন। তাদের মাঝে ছিলেন বন্দর থানা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি মহিউদ্দি শিশির। তিনি বলেন, আপনারা জানেন আমরা নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রাম করার পরেও বর্তমান সরকার আমাদের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়েছে। গায়েবী মামলা দিয়ে আমাদেরকে গ্রেফতার হয়রানী করে চলেছে। কিন্তু শুরু থেকেই জননেতা এডভোকেট সাখাওয়াৎ হোসেন খান আইনী সহায়তা নিয়ে আমাদের পাশে দাড়িয়েছেন। তিনি আমাদেরকে সব সময় আগলে রেখেছেন। তিনি আমাদেরকে বট বৃক্ষের মতো ছায়া দিয়ে চলেছেন। আমরা তার কাছে চীর কৃতজ্ঞ।

এ বিষয়ে এডভোকেট সাখাওয়াৎ হোসেন খান বলেন, বর্তমান বিনা ভোটের স্বৈরাচার সরকার আমাদের দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে যেভাবে মিথ্যা গায়েবী মামলা দিয়েছে এ দেশে তা নজিরবিহীন। কোনো কোনো নেতার নামে ৩০/৪০ টি পর্যন্ত মামলা দিয়েছে।

এসব মামলার কোনোটিরই কোনো প্রমান নেই। সবই ভিত্তিহীন বানোয়াট মামলা। একটি মামলাও সরকার পক্ষ্য আদালতে প্রমান করতে পারবে না। আপনার জানেন মামলা দিতে গিয়ে মৃত নেতা বা বিদেশে অবস্থান করছে এমন নেতার নামেও মামলা দেয়া হয়েছে। ফলে বুঝাই যায় গনতান্দ্রিক আন্দোলন দমাতে গিয়ে সরকার কি নোংড়া খেলা খেলেছে। তাই আমরা আদালতে এসব মামলা লড়ছি এবং সব মামলায়ই নেতাকর্মীরা আদালতে নির্দোষ প্রমানীত হবেন ইনশাআল্লাহ।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত

গায়েবী’ মামলায় বিএনপি নেতাকর্মীদের জন্য বট বৃক্ষের ছাঁয়া এডভোকেট সাখাওয়াৎ

আপডেট সময় : ১২:৩২:৫৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ মার্চ ২০২১

শহর প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জে এখন হামলা মামলায় বিএনপির নেতাকর্মীদের একমাত্র ভরসার স্থল হলেন এডভোকেট সাখাওয়াৎ হোসেন খান। বছরের পর বছর ধরে সারা নারায়ণগঞ্জ জেলায় মামলা মোকদ্দমায় জব্দ বিএনপির নেতাকর্মীদের আইনী সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। নারায়ণগঞ্জ শহর, বন্দর, ফতুল্লা, সিদ্ধিরগঞ্জ, সোনারগাঁও, রুপগঞ্জ ও আড়াই হাজার উপজেলার নেতাকর্মীদের শত শত মামলা দেখাশোনা করছেন এডভোকেট সাখাওয়াৎ হোসেন খান। ফলে জেলার সর্ব স্থরের নেতা কর্মীদের কাছেও একটি প্রিয় নাম হলো এডভোকেট সাখাওয়াৎ।

এদিকে গতকাল বন্দরের বেশ কয়েকজন নেতার হাজিরা ছিলো নারায়ণগঞ্জ কোর্টে। তারা হাজিরা দিতে এসেছিলেন। তাদের মাঝে ছিলেন বন্দর থানা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি মহিউদ্দি শিশির। তিনি বলেন, আপনারা জানেন আমরা নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন সংগ্রাম করার পরেও বর্তমান সরকার আমাদের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়েছে। গায়েবী মামলা দিয়ে আমাদেরকে গ্রেফতার হয়রানী করে চলেছে। কিন্তু শুরু থেকেই জননেতা এডভোকেট সাখাওয়াৎ হোসেন খান আইনী সহায়তা নিয়ে আমাদের পাশে দাড়িয়েছেন। তিনি আমাদেরকে সব সময় আগলে রেখেছেন। তিনি আমাদেরকে বট বৃক্ষের মতো ছায়া দিয়ে চলেছেন। আমরা তার কাছে চীর কৃতজ্ঞ।

এ বিষয়ে এডভোকেট সাখাওয়াৎ হোসেন খান বলেন, বর্তমান বিনা ভোটের স্বৈরাচার সরকার আমাদের দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে যেভাবে মিথ্যা গায়েবী মামলা দিয়েছে এ দেশে তা নজিরবিহীন। কোনো কোনো নেতার নামে ৩০/৪০ টি পর্যন্ত মামলা দিয়েছে।

এসব মামলার কোনোটিরই কোনো প্রমান নেই। সবই ভিত্তিহীন বানোয়াট মামলা। একটি মামলাও সরকার পক্ষ্য আদালতে প্রমান করতে পারবে না। আপনার জানেন মামলা দিতে গিয়ে মৃত নেতা বা বিদেশে অবস্থান করছে এমন নেতার নামেও মামলা দেয়া হয়েছে। ফলে বুঝাই যায় গনতান্দ্রিক আন্দোলন দমাতে গিয়ে সরকার কি নোংড়া খেলা খেলেছে। তাই আমরা আদালতে এসব মামলা লড়ছি এবং সব মামলায়ই নেতাকর্মীরা আদালতে নির্দোষ প্রমানীত হবেন ইনশাআল্লাহ।