নারায়ণগঞ্জ ০৯:২৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
সিদ্ধিরগঞ্জে জয়নাল বাহিনীর ৪ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের সিদ্ধিরগঞ্জের সানারপাড় স্কুলে অনৈতিক আর্থিক সুবিধায় ক্ষমতার চেয়ারে শিক্ষিকা দিলরুবা রূপগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় ৭ বছরের মাদ্রাসা পরুয়া শিশুর মৃত্যু ফতুল্লা ওসি’র কন্যা রাইসা জিপিএ ফাইভ পেয়েছেন সোনারগাঁয়ে টেক্সটাইল মিলে ও মিষ্টি কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ড ফতুল্লায় অপহরনকারী চক্রের নারী সদস্যসহ গ্রেপ্তার ৫, অপহৃত উদ্ধার ১৩৯ জন শহীদদের স্মরণে বক্তাবলী ইউনিয়ন ছাত্রদলের শ্রদ্ধাঞ্জলি আড়াইহাজারে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে মাটি বিক্রি, নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ আড়াইহাজারে পরীক্ষার হল থেকে ছাত্রীকে নিয়ে উধাও ছাত্রলীগ নেতা দুই মাসের মধ্যে হাইড্রোলিক হর্ন বন্ধের সিদ্ধান্ত

পৃথিবীর মধ্যে আমরাই এক মাত্র জাতি যারা ভাষার জন্য রক্ত দিয়েছে : নাহিদা বারিক

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:৪০:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১
  • ১১ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক,

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক বলেছেন, পৃথিবীর মধ্যে আমরাই এক মাত্র জাতি যারা কিনা ভাষার জন্য রক্ত দিয়েছে। আমাদের নিজস্ব ঐতিহ্য রয়েছে, নিজস্ব সাংস্কৃতি রয়েছে এবং আমাদের সন্তানদের সাথে এই গুলোর সাথে পরিচয় করাতে হবে। আমি অবিভাবকদের বলবো, আপনারা আপনাদের সন্তানদের খেলতে দেন, আমাদের সংস্কৃতির সাথে তাদের পরিচয় করার চেষ্টা করুন। আমাদের এ উপজেলার ৭ জন চেয়ারম্যানই অনেক আন্তরিক এবং তারা সকলেই শিক্ষার কাজে সহায়তা করার জন্য সবসময় প্রস্তুত আছে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারী) দুপুর ১টায় সদর উপজেলা কমপ্লেক্সে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক। এসময় বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীদের গান শিখাবার জন্য সকল স্কুলে হারমোনিয়াম, তবলা, ঢোল‘সহ ইত্যাদি বাদ্যযন্ত্র দেয়া হয়। এছাড়া অনুষ্ঠানে আগত বেশ কিছু প্রতিবন্দ্বী শিশুদের মাঝে হুইল চেয়ার বিতরন করেন ইউএনও নাহিদা বারিক।

নাহিদা বারিক আরও বলেন, আমরা যদি প্রথমিক বিদ্যালয় গুলোকে শিক্ষার্থীদের উপযুগি করে তুলতে পারি তাহলে তারা স্কুল থেকে ঝরে যাবে না। ‘আমার সোনার বাংলা’ এই গানটি যাতে প্রত্যেকটি বিদ্যালয়ে শিখাতে পারে তাই আমার সদর উপজেলার ১২০ টি বিদ্যালয়ে হারমনিয়াম, তবলা ইত্যাদি বাদ্যযন্ত্র দেয়ার উদ্যেগ নিয়েছি। এনসিসি এলাকার বাকি ২১ টি প্রথমিক বিদ্যালয়ে শীগ্রই দেয়া হবে। এছাড়া আমাদের সদর উপজেলার ৮৫টি বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার নির্মান করা হয়েছে এবং বাকি গুলোর কাজ আমরা দ্রুত শেষ করবো। আমরা উপজেলার ৪ টি বিদ্যালয়ে শিশু পার্ক নির্মানের কাজ শেষ করেছি। আমরা আশা করবো আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে এগিয়ে নিয়ে যেতে আপনারা সকলেই সহযোগীতা করবেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম শওকত আলী। এছাড়া অনুষ্ঠানে বিভিন্ন প্রথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক-শিক্ষিকা উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

সিদ্ধিরগঞ্জে জয়নাল বাহিনীর ৪ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের

পৃথিবীর মধ্যে আমরাই এক মাত্র জাতি যারা ভাষার জন্য রক্ত দিয়েছে : নাহিদা বারিক

আপডেট সময় : ০৮:৪০:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক,

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক বলেছেন, পৃথিবীর মধ্যে আমরাই এক মাত্র জাতি যারা কিনা ভাষার জন্য রক্ত দিয়েছে। আমাদের নিজস্ব ঐতিহ্য রয়েছে, নিজস্ব সাংস্কৃতি রয়েছে এবং আমাদের সন্তানদের সাথে এই গুলোর সাথে পরিচয় করাতে হবে। আমি অবিভাবকদের বলবো, আপনারা আপনাদের সন্তানদের খেলতে দেন, আমাদের সংস্কৃতির সাথে তাদের পরিচয় করার চেষ্টা করুন। আমাদের এ উপজেলার ৭ জন চেয়ারম্যানই অনেক আন্তরিক এবং তারা সকলেই শিক্ষার কাজে সহায়তা করার জন্য সবসময় প্রস্তুত আছে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারী) দুপুর ১টায় সদর উপজেলা কমপ্লেক্সে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক। এসময় বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীদের গান শিখাবার জন্য সকল স্কুলে হারমোনিয়াম, তবলা, ঢোল‘সহ ইত্যাদি বাদ্যযন্ত্র দেয়া হয়। এছাড়া অনুষ্ঠানে আগত বেশ কিছু প্রতিবন্দ্বী শিশুদের মাঝে হুইল চেয়ার বিতরন করেন ইউএনও নাহিদা বারিক।

নাহিদা বারিক আরও বলেন, আমরা যদি প্রথমিক বিদ্যালয় গুলোকে শিক্ষার্থীদের উপযুগি করে তুলতে পারি তাহলে তারা স্কুল থেকে ঝরে যাবে না। ‘আমার সোনার বাংলা’ এই গানটি যাতে প্রত্যেকটি বিদ্যালয়ে শিখাতে পারে তাই আমার সদর উপজেলার ১২০ টি বিদ্যালয়ে হারমনিয়াম, তবলা ইত্যাদি বাদ্যযন্ত্র দেয়ার উদ্যেগ নিয়েছি। এনসিসি এলাকার বাকি ২১ টি প্রথমিক বিদ্যালয়ে শীগ্রই দেয়া হবে। এছাড়া আমাদের সদর উপজেলার ৮৫টি বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার নির্মান করা হয়েছে এবং বাকি গুলোর কাজ আমরা দ্রুত শেষ করবো। আমরা উপজেলার ৪ টি বিদ্যালয়ে শিশু পার্ক নির্মানের কাজ শেষ করেছি। আমরা আশা করবো আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে এগিয়ে নিয়ে যেতে আপনারা সকলেই সহযোগীতা করবেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম শওকত আলী। এছাড়া অনুষ্ঠানে বিভিন্ন প্রথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক-শিক্ষিকা উপস্থিত ছিলেন।