নারায়ণগঞ্জ ০৩:১২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত জুন মাসের ১৭ তারিখ কোরবানির ঈদ পালিত হওয়ার সম্ভবনা রিয়াদে নোভ আল আম্মার ইষ্টাবলিস্ট এর আয়োজনে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

চাঁদাবাজি মামলায় ডিস বাবু গ্রেফতার

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:১৩:৩৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৯
  • ২৮৮ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার : বন্দর থানায় দায়ের করা একটি চাঁদাবাজির মামলায় নাসিক ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু ওরফে ডিস বাবুকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের পাইকপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বাবুর বিরুদ্ধে হাসান নামে বন্দর উপজেলার এক ডিস ব্যবসায়ী বন্দর থানায় বাদী হয়ে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ এনে একটি মামলা করেন। ওই চাঁদাবাজি মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানা ডিবি পুলিশ।
ডিস বাবুর গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে বন্দর থানা পুলিশের অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) মো: রফিকুল ইসলাম জানান, বাবুর বিরুদ্ধে একটি চাঁদাবাজির মামলা রয়েছে। এ মামলায় ডিবি পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে থানায় হস্তান্তর করেছে।

জেলা পুলিশের একটি সূত্র জানায়, ডিস ব্যবসায়ী হাসানের নিয়ন্ত্রনাধীন বন্দর উপজেলার সোনাকান্দা থেকে আলীনগর অঞ্চলের কয়েক ল টাকার ডিস ক্যাবল (তার)সহ বিভিন্ন সরঞ্জামাদি কেটে নিয়ে যায় বাবুর লোক হিসেবে পরিচিত সজিবসহ একটি সন্ত্রাসী বাহিনী। এতে ২ হাজারেরও উপরে গ্রাহক ডিস লাইন থেকে বঞ্চিত রয়েছেন বেশ কয়েকদিন ধরে।

এ ঘটনায় কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু হাসানের কাছে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। অন্যথায় ডিস ব্যবসা করতে দেওয়া হবে না বলে হুমকি প্রদান করেন। ওই ঘটনার পর গত মাসের ২৩ তারিখে হাসান বাদী হয়ে বন্দর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন বাবুকে প্রধান আসামী করে।

কিন্তু এরপরও কোনো কাজ হয়নি। এতে বাবু আরো বেপরোয়া হয়ে সোনাকান্দা, আলীনগর এলাকায় বাবু তার বাহিনীর মাধ্যমে নদীর তলদেশ দিয়ে ডিস লাইন সংযোগ স্থাপনের কাজ শুরু করে।

এ অবস্থায় তিগ্রস্থ ওই ব্যবসায়ী নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। সেখানে তিনি ডিস বাবুর নানা অপকর্ম তুলে ধরেন। একই সাথে তিনি বাবুর এসব অপকর্ম উত্থাপন করে সংবাদ সম্মেলনও করেন।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুবাস চন্দ্র সাহা জানান, হাসান নামে বন্দর এলাকার এক ডিস ব্যবসায়ী বাবুর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, হুমকি ও তার ব্যবসা দখলের অভিযোগ এনে বন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। সেই মামলায় ডিস বাবুকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা

চাঁদাবাজি মামলায় ডিস বাবু গ্রেফতার

আপডেট সময় : ০১:১৩:৩৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার : বন্দর থানায় দায়ের করা একটি চাঁদাবাজির মামলায় নাসিক ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু ওরফে ডিস বাবুকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের পাইকপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বাবুর বিরুদ্ধে হাসান নামে বন্দর উপজেলার এক ডিস ব্যবসায়ী বন্দর থানায় বাদী হয়ে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ এনে একটি মামলা করেন। ওই চাঁদাবাজি মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানা ডিবি পুলিশ।
ডিস বাবুর গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে বন্দর থানা পুলিশের অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) মো: রফিকুল ইসলাম জানান, বাবুর বিরুদ্ধে একটি চাঁদাবাজির মামলা রয়েছে। এ মামলায় ডিবি পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে থানায় হস্তান্তর করেছে।

জেলা পুলিশের একটি সূত্র জানায়, ডিস ব্যবসায়ী হাসানের নিয়ন্ত্রনাধীন বন্দর উপজেলার সোনাকান্দা থেকে আলীনগর অঞ্চলের কয়েক ল টাকার ডিস ক্যাবল (তার)সহ বিভিন্ন সরঞ্জামাদি কেটে নিয়ে যায় বাবুর লোক হিসেবে পরিচিত সজিবসহ একটি সন্ত্রাসী বাহিনী। এতে ২ হাজারেরও উপরে গ্রাহক ডিস লাইন থেকে বঞ্চিত রয়েছেন বেশ কয়েকদিন ধরে।

এ ঘটনায় কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু হাসানের কাছে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। অন্যথায় ডিস ব্যবসা করতে দেওয়া হবে না বলে হুমকি প্রদান করেন। ওই ঘটনার পর গত মাসের ২৩ তারিখে হাসান বাদী হয়ে বন্দর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন বাবুকে প্রধান আসামী করে।

কিন্তু এরপরও কোনো কাজ হয়নি। এতে বাবু আরো বেপরোয়া হয়ে সোনাকান্দা, আলীনগর এলাকায় বাবু তার বাহিনীর মাধ্যমে নদীর তলদেশ দিয়ে ডিস লাইন সংযোগ স্থাপনের কাজ শুরু করে।

এ অবস্থায় তিগ্রস্থ ওই ব্যবসায়ী নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। সেখানে তিনি ডিস বাবুর নানা অপকর্ম তুলে ধরেন। একই সাথে তিনি বাবুর এসব অপকর্ম উত্থাপন করে সংবাদ সম্মেলনও করেন।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুবাস চন্দ্র সাহা জানান, হাসান নামে বন্দর এলাকার এক ডিস ব্যবসায়ী বাবুর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, হুমকি ও তার ব্যবসা দখলের অভিযোগ এনে বন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। সেই মামলায় ডিস বাবুকে গ্রেফতার করা হয়েছে।