নারায়ণগঞ্জ ১০:৫৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মাদক বিরোধী অবস্থান নেয়ায় নারায়ণগঞ্জ শহরে নারী খুন

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:০৬:৫৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০১৯
  • ৮২ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার : মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় আরজু বেগম (৪০) নামে ৫ সন্তানের জননীকে মারধর ও বৈদ্যুতিক শর্ট দিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার (২৯ মার্চ) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ শহরের টানবাজার এলাকায় এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধারসহ ৭ জনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। নিহত আরজু বেগম টানবাজার র‌্যালীবাগান এলাকার আক্তার হোসেনের স্ত্রী।

নিহতের মেয়ে লাকী জানায়, আমার মা আরজু বেগর দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে আসছিলেন। এতে অ্যাডভোকেট হামিদা আক্তার লিজা ও রমজানের লোকজনদের সাথে শত্রুতা তৈরি হয়।

স্থানীয়রা জানান, র‌্যালী বাগান এলাকায় মাদক নির্মূলে মিছিল করেছিলেন আরজু বেগম ও তার লোকজন। ওই ঘটনার জের ধরে শুক্রবার দুপুর ২টায় মাদক ব্যবসায়ী রমজান ও হামিদা গংরা প্রতিবাদকারীদের উপর হামলা চালায়।

এ সময় আরজু বেগমকে প্রথমে এলোপাথারিভাবে কিল ঘুষি মেরে আহত করে। পরে গলায় বৈদ্যুতিক তার জড়িয়ে হত্যা করে । এ ঘটনায় উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ দেখা দিলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। সেসময় কয়েকজন পুলিশের সদস্যও আহত হয়।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান জানান, র‌্যালী বাগান এলাকার বাসিন্দা অ্যাডভোকেট হামিদা আক্তার লিজাকে মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবনকারীদের যাতে জামিন না করিয়ে দেয় সেজন্য এলাকাবাসী দাবি জানান। এ ঘটনায় তদন্ত চলছে এবং জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ জনকে আটক করা হয়েছে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

মাদক বিরোধী অবস্থান নেয়ায় নারায়ণগঞ্জ শহরে নারী খুন

আপডেট সময় : ০৫:০৬:৫৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার : মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় আরজু বেগম (৪০) নামে ৫ সন্তানের জননীকে মারধর ও বৈদ্যুতিক শর্ট দিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার (২৯ মার্চ) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ শহরের টানবাজার এলাকায় এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধারসহ ৭ জনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। নিহত আরজু বেগম টানবাজার র‌্যালীবাগান এলাকার আক্তার হোসেনের স্ত্রী।

নিহতের মেয়ে লাকী জানায়, আমার মা আরজু বেগর দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে আসছিলেন। এতে অ্যাডভোকেট হামিদা আক্তার লিজা ও রমজানের লোকজনদের সাথে শত্রুতা তৈরি হয়।

স্থানীয়রা জানান, র‌্যালী বাগান এলাকায় মাদক নির্মূলে মিছিল করেছিলেন আরজু বেগম ও তার লোকজন। ওই ঘটনার জের ধরে শুক্রবার দুপুর ২টায় মাদক ব্যবসায়ী রমজান ও হামিদা গংরা প্রতিবাদকারীদের উপর হামলা চালায়।

এ সময় আরজু বেগমকে প্রথমে এলোপাথারিভাবে কিল ঘুষি মেরে আহত করে। পরে গলায় বৈদ্যুতিক তার জড়িয়ে হত্যা করে । এ ঘটনায় উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ দেখা দিলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। সেসময় কয়েকজন পুলিশের সদস্যও আহত হয়।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান জানান, র‌্যালী বাগান এলাকার বাসিন্দা অ্যাডভোকেট হামিদা আক্তার লিজাকে মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবনকারীদের যাতে জামিন না করিয়ে দেয় সেজন্য এলাকাবাসী দাবি জানান। এ ঘটনায় তদন্ত চলছে এবং জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ জনকে আটক করা হয়েছে।