নারায়ণগঞ্জ ০৩:২৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতীর পোশাক শ্রমিক নিহত সোনারগাঁয়ের ১টি হত্যা মামলার প্রধান আসামিসহ দুজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১ নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত

বড়ভাইকে স্মরণ করতে গিয়ে কাঁদলেন সাজনু

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:২৩:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০১৭
  • ১৪৯ বার পড়া হয়েছে

বড়ভাই গোলাম সারোয়ার’র কথা সর্ম্পকে বক্তব্যে রাখতে গিয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে গেলেন শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন সাজনু। এসময় তাঁর চোখে কয়েক ফোঁটা জলও গড়িয়ে পড়ে। নারায়ণগঞ্জ শহর আওয়ামীলীগের প্রয়াত সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন গোলাম সারোয়ার ব্যক্তিজীবনে রাজনীতির পাশাপাশি মানুষের কল্যানে কাজ করেছেন যার কারনেই মানুষের অন্তুরে স্থান পান এই বর্ষিয়ান নেতা। বেশকিছুদিন যাবত নগরীর বিভিন্ন স্থানে সেই বর্ষিয়ান নেতার স্মরনে অরাজনৈকিক সংগঠন ‘ক্যান্টিন’ এর উদ্যোগে শীর্তাত্যদের কম্বল বিতরণ করা হয়।

তারাই ধারাবাহিকতায় সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) বিকালে নগরীর খানপুর এলাকায় পোলষ্টার ক্লাবের ব্যবস্থাপনায় শীতবস্ত্র বিতরণ কালে বক্তব্যে রাখতে গিয়ে আবেগে আপ্লুত হোন সাজনু। এ সময়ে এক হৃদয় বিদারক ঘটনার সৃষ্টি হয়।

শাহাদাৎ হোসেন সাজনু তার বক্তব্যে বলেন, রাজনীতিটা মানুষের জন্য। মানুষের পাশে না দাড়াতে পারলে রাজনীতি করার কোন মূল্য নেই। চেষ্টা করি মানুষের পাশে থেকে মানুষের সেবা করতে।

তিনি তার বড়ভাই প্রয়াত গোলাম সারোয়ারের কথা স্মরণ করে বলেন, আমি কবরস্থানে যাই না তার কারন আমি যখন কবরস্থানে গিয়ে ফিরে আসতে যাই আমার মনে হয় আমার ভাই আমাকে পিছন থেকে ডাকে। কোন পোষ্টার দেখলে মুখ গুড়িয়ে নেই, কারন পোষ্টার দেখলে আর ঠিক থাকতে পারি না।

খানপুর ব্যাংককলনী এলাকা এবং পোলস্টার ক্লাবে প্রায় ৫শতাধীক কম্বল বিতরণ করা হয়।

পোলষ্টার ক্লাবের সভাপতি লোকমান আহম্মেদের সভাপতিত্বে এ সময়ে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য সামসুজ্জামান ভাষানী, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন। সার্বিক সহযোগীতায় ছিলেন রিয়েল, রোমান, স্বপন, মনির হোসেন, দ্বীপ, বাবু, দূর্জয়, পরশ, নির্জন প্রমুখ।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতীর পোশাক শ্রমিক নিহত

বড়ভাইকে স্মরণ করতে গিয়ে কাঁদলেন সাজনু

আপডেট সময় : ০৫:২৩:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০১৭

বড়ভাই গোলাম সারোয়ার’র কথা সর্ম্পকে বক্তব্যে রাখতে গিয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে গেলেন শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন সাজনু। এসময় তাঁর চোখে কয়েক ফোঁটা জলও গড়িয়ে পড়ে। নারায়ণগঞ্জ শহর আওয়ামীলীগের প্রয়াত সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন গোলাম সারোয়ার ব্যক্তিজীবনে রাজনীতির পাশাপাশি মানুষের কল্যানে কাজ করেছেন যার কারনেই মানুষের অন্তুরে স্থান পান এই বর্ষিয়ান নেতা। বেশকিছুদিন যাবত নগরীর বিভিন্ন স্থানে সেই বর্ষিয়ান নেতার স্মরনে অরাজনৈকিক সংগঠন ‘ক্যান্টিন’ এর উদ্যোগে শীর্তাত্যদের কম্বল বিতরণ করা হয়।

তারাই ধারাবাহিকতায় সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) বিকালে নগরীর খানপুর এলাকায় পোলষ্টার ক্লাবের ব্যবস্থাপনায় শীতবস্ত্র বিতরণ কালে বক্তব্যে রাখতে গিয়ে আবেগে আপ্লুত হোন সাজনু। এ সময়ে এক হৃদয় বিদারক ঘটনার সৃষ্টি হয়।

শাহাদাৎ হোসেন সাজনু তার বক্তব্যে বলেন, রাজনীতিটা মানুষের জন্য। মানুষের পাশে না দাড়াতে পারলে রাজনীতি করার কোন মূল্য নেই। চেষ্টা করি মানুষের পাশে থেকে মানুষের সেবা করতে।

তিনি তার বড়ভাই প্রয়াত গোলাম সারোয়ারের কথা স্মরণ করে বলেন, আমি কবরস্থানে যাই না তার কারন আমি যখন কবরস্থানে গিয়ে ফিরে আসতে যাই আমার মনে হয় আমার ভাই আমাকে পিছন থেকে ডাকে। কোন পোষ্টার দেখলে মুখ গুড়িয়ে নেই, কারন পোষ্টার দেখলে আর ঠিক থাকতে পারি না।

খানপুর ব্যাংককলনী এলাকা এবং পোলস্টার ক্লাবে প্রায় ৫শতাধীক কম্বল বিতরণ করা হয়।

পোলষ্টার ক্লাবের সভাপতি লোকমান আহম্মেদের সভাপতিত্বে এ সময়ে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য সামসুজ্জামান ভাষানী, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন। সার্বিক সহযোগীতায় ছিলেন রিয়েল, রোমান, স্বপন, মনির হোসেন, দ্বীপ, বাবু, দূর্জয়, পরশ, নির্জন প্রমুখ।