নারায়ণগঞ্জ ০৯:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
সোনারগাঁওয়ে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত সিদ্ধিরগঞ্জে ৪টি কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হারামের পয়সা ব্যারামে খায় ,আমি হারাম খাই না খেতেও দেই না-সেলিম ওসমান ভূমি সম্পর্কিত সমস্যা থাকলে গণশুনানিতে আসার আহবান- না.গঞ্জে জেলা  প্রশাসক সিদ্ধিরগঞ্জে গ্যাসের দাবিতে ঢাকা-চটগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ সোনারগাঁওয়ে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০২৪ অনুষ্ঠিত র‌্যাব পরিচয়ে ৫২ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেফতার-৪ সিদ্ধিরগঞ্জে কাতার প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি চিকিৎসার নামে কোনো প্রকার হয়রানি মেনে নেওয়া হবে না ঃ স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতীর পোশাক শ্রমিক নিহত

শনির দশা কাটালো, ছাড়পত্র পেলো ‘শনিবার বিকেল’

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৫৫:২০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২৩
  • ১৮৭ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক : গুলশানে হামলা নিয়ে মোস্তফা সরোয়ার ফারুকীর নির্মিত ‘শনিবার বিকেল’ চলচ্চিত্রটির ‘শনির দশা’ অবশেষে কাটলো। চার বছর ধরে আটকে থাকা ছবিটি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের আপিল কমিটি মুক্তির ছাড়পত্র দিয়েছে।

শনিবার (২১ জানুয়ারি) বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডে আটকে থাকা ফারুকীর ‘শনিবার বিকেল’ ছবিটি নিয়ে আপিল বোর্ডের শুনানি হয়। এদিন সিনেমার নির্মাতা–প্রযোজকের বক্তব্য শোনেন আপিল কমিটির সদস্যরা।

এদিন দুপুরে এ ব্যাপারে নির্মাতা ফারুকী সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘শনিবার বিকেল’ মুক্তিতে বাধা নেই বলে জানিয়েছে আপিল বিভাগ। আমরা এখনও চিঠি পাইনি। চিঠির অপেক্ষায় আছি।

এদিকে আপিল কমিটির সদস্য শ্যামল দত্ত বলেছেন, আপিল বোর্ডের শুনানি হয়েছে। সেন্সর বোর্ড যে সমস্যাগুলোর কথা বলেছে, আমরা তার সঙ্গে একমত হইনি। এখন আর কোনো বাধা নেই। আমরা রিলিজ করে দিয়েছি ছবিটা। খুব শিগগিরই মুক্তি পাবে।

তিনি বলেন, ‘আমরা ছবিটি ছেড়ে দিয়েছি মুক্তির জন্য। তবে একটি শর্ত আছে। সেটি হলো- ছবির শুরুতে একটি ডিসক্লেইমার দিতে হবে। যেখানে লেখা থাকবে- এই ছবিটি হোলি আর্টিজান সংশ্লিষ্ট কোনো ঘটনা অবলম্বনে নয়।

গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে ২০১৬ সালের ঝড় তোলা জঙ্গি হামলার প্রেক্ষাপটে ‘শনিবার বিকেল’ সিনেমাটি নির্মাণ করা হয়। এতে জাহিদ হাসান, পরমব্রত, তিশা, ইরেশ যাকেরের সঙ্গে ফিলিস্তিনি অভিনেতা ইয়াদ হুরানিও অভিনয় করেছেন।

২০১৯ সালে সেন্সর বোর্ডের সদস্যরা দুবার দেখার পর এটি আটকে দেন মূলত বোর্ডে থাকা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধির আপত্তিতে।

তখন বলা হয়েছিল, ‘স্পর্শকাতর’ বিষয়টি নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্রটি মুক্তি পেলে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হতে পারে। যদিও ফারুকী বরাবরই বলে আসছিলেন, চলচ্চিত্রটি হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলার ঘটনা নিয়ে নয়, ওই ঘটনার ‘অনুপ্রেরণায়’ নির্মিত একটি কাহিনীচিত্র।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সোনারগাঁওয়ে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

শনির দশা কাটালো, ছাড়পত্র পেলো ‘শনিবার বিকেল’

আপডেট সময় : ১২:৫৫:২০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২৩

অনলাইন ডেস্ক : গুলশানে হামলা নিয়ে মোস্তফা সরোয়ার ফারুকীর নির্মিত ‘শনিবার বিকেল’ চলচ্চিত্রটির ‘শনির দশা’ অবশেষে কাটলো। চার বছর ধরে আটকে থাকা ছবিটি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের আপিল কমিটি মুক্তির ছাড়পত্র দিয়েছে।

শনিবার (২১ জানুয়ারি) বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডে আটকে থাকা ফারুকীর ‘শনিবার বিকেল’ ছবিটি নিয়ে আপিল বোর্ডের শুনানি হয়। এদিন সিনেমার নির্মাতা–প্রযোজকের বক্তব্য শোনেন আপিল কমিটির সদস্যরা।

এদিন দুপুরে এ ব্যাপারে নির্মাতা ফারুকী সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘শনিবার বিকেল’ মুক্তিতে বাধা নেই বলে জানিয়েছে আপিল বিভাগ। আমরা এখনও চিঠি পাইনি। চিঠির অপেক্ষায় আছি।

এদিকে আপিল কমিটির সদস্য শ্যামল দত্ত বলেছেন, আপিল বোর্ডের শুনানি হয়েছে। সেন্সর বোর্ড যে সমস্যাগুলোর কথা বলেছে, আমরা তার সঙ্গে একমত হইনি। এখন আর কোনো বাধা নেই। আমরা রিলিজ করে দিয়েছি ছবিটা। খুব শিগগিরই মুক্তি পাবে।

তিনি বলেন, ‘আমরা ছবিটি ছেড়ে দিয়েছি মুক্তির জন্য। তবে একটি শর্ত আছে। সেটি হলো- ছবির শুরুতে একটি ডিসক্লেইমার দিতে হবে। যেখানে লেখা থাকবে- এই ছবিটি হোলি আর্টিজান সংশ্লিষ্ট কোনো ঘটনা অবলম্বনে নয়।

গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে ২০১৬ সালের ঝড় তোলা জঙ্গি হামলার প্রেক্ষাপটে ‘শনিবার বিকেল’ সিনেমাটি নির্মাণ করা হয়। এতে জাহিদ হাসান, পরমব্রত, তিশা, ইরেশ যাকেরের সঙ্গে ফিলিস্তিনি অভিনেতা ইয়াদ হুরানিও অভিনয় করেছেন।

২০১৯ সালে সেন্সর বোর্ডের সদস্যরা দুবার দেখার পর এটি আটকে দেন মূলত বোর্ডে থাকা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধির আপত্তিতে।

তখন বলা হয়েছিল, ‘স্পর্শকাতর’ বিষয়টি নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্রটি মুক্তি পেলে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হতে পারে। যদিও ফারুকী বরাবরই বলে আসছিলেন, চলচ্চিত্রটি হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলার ঘটনা নিয়ে নয়, ওই ঘটনার ‘অনুপ্রেরণায়’ নির্মিত একটি কাহিনীচিত্র।