নারায়ণগঞ্জ ০৮:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রবাসী ও মামলার আসামিকে রেকমত আলী স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বানানোর পাঁয়তারা

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৫৯:৩৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • ৭০ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি পাইনাদী রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি থেকে বাদ পড়েও নিজের কর্তৃত্ব ধরে রাখার ফন্দি করেছেন আব্দুর রহিম (নাসিক ১ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর)। দীর্ঘ ৩১ বছর সভাপতি থেকে নানা অনিয়ম ও আয় ব্যয় হিসেব গড়মিল করার হোতা আবদুর রহিম আসন্ন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ১ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী হয়ে নির্বাচনী সুবিধা ভোগ করতে এই বিদ্যালয়টিকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করছেন। সভাপতির পদ হারিয়ে নিজের ছেলে মানব পাচার মামলার আসামি আব্দুল কাদির খোকন ও তার অন্যতম সহচর ফ্রান্স প্রবাসী গিয়াস উদ্দিনকে সভাপতি করার প্রস্তাব করেছেন। তাদের পক্ষে সমর্থন আদায় করার জন্য আব্দুর রহিম বিদ্যালয়ের প্রথম থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত মেয়ে শিক্ষার্থীদের ফ্রি করে দেওয়ার জন্য অভিভাবকদের প্রলব্ধ করছেন বলে অভিযোগ জানা গেছে।

জানা গেছে, বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি গঠন সংক্রান্ত প্রবিধানমালা এস.আর ও নং-৯৯/আইন/২০০৯-এর ৩৯(১) নং ধারা অনুযায়ী নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) কে সভাপতি করে ৬ মাসের জন্য এডহক কমিটি করে দেয়া হয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটি/গভর্নিং বডি সংক্রান্ত প্রবিধানমালা ২০০৯ এর ৪১(২) (খ)৪ অনুযায়ী ম্যানেজিং কমিটি/গভর্নিং বডি-কে শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগের যে ক্ষমতা দেয়া হয়েছে তা কেবল মাত্র নিয়মিত ম্যানেজিং কমিটি/গভর্নিং বডির মাধ্যমে সম্পন্ন করতে হবে। কোনক্রমেই এডহক বা বিশেষ ধরনের কমিটি/গভর্নিং বডির মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যাবে না মর্মে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড,ঢাকা চেয়ারম্যানের আদেশক্রমে বিদ্যালয় পরিদর্শক গত ১৮ আগস্ট তারিখে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কাছে চিঠি ইস্যু করেন। যার অনুলিপি প্রেরণ করা হয়, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা শিক্ষা অফিসার, সভাপতি,এডহক কমিটি মিজমিজি পাইনাদী রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়। চিঠি ইস্যুর পর আব্দুর রহিম ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পদ থেকে বাদ হলেও তিনি তার দীর্ঘদিনের কর্তৃত্ব হারাতে চাননা। তাই সাতক্ষীরা জেলায় দায়ের করা মানব পাচার মামলার আসামি আব্দুর রহিমের ছেলে আব্দুল কাদির খোকন ও তার অন্যতম সহযোগী ফ্রান্স প্রবাসী গিয়াস উদ্দিনকে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি করার প্রস্তাব করেন। এতে অভিভাবক মহলে দেখা দিয়েছে চরম ক্ষোভ। মানব পাচার মামলার আসামি ও প্রবাসী বিদ্যালয়ের সভাপতি হলে বিশৃঙ্খলা সুষ্টি হবে।

অভিযোগ জানা গেছে, বিদ্যালয়টির শিক্ষকদের ঠিকমত বেতন না দিয়ে নানা অনিয়ম করতেন সাবেক সভাপতি আব্দুর রহিম। তিনি স্কুলের ভিতরে একটি ক্যান্টিন বানিয়েছেন নিজে। এনিয়েও ক্ষোভ বিরাজ করছে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফা জহুরা বলেন, কারা সভাপতি হতে চায় তাৎক্ষণিক ভাবে তাদের নাম আমার জানা নেই। যারাই নিতে চায় তাদের ব্যপারে যাচাই-বাছাই করে কমিটিতে নেয়া হবে। কোন মামলা আসামি বা প্রবাসী কেহ সভাপতি হওয়ার সুযোগ নেই।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

প্রবাসী ও মামলার আসামিকে রেকমত আলী স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বানানোর পাঁয়তারা

আপডেট সময় : ১০:৫৯:৩৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি পাইনাদী রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি থেকে বাদ পড়েও নিজের কর্তৃত্ব ধরে রাখার ফন্দি করেছেন আব্দুর রহিম (নাসিক ১ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর)। দীর্ঘ ৩১ বছর সভাপতি থেকে নানা অনিয়ম ও আয় ব্যয় হিসেব গড়মিল করার হোতা আবদুর রহিম আসন্ন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ১ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী হয়ে নির্বাচনী সুবিধা ভোগ করতে এই বিদ্যালয়টিকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করছেন। সভাপতির পদ হারিয়ে নিজের ছেলে মানব পাচার মামলার আসামি আব্দুল কাদির খোকন ও তার অন্যতম সহচর ফ্রান্স প্রবাসী গিয়াস উদ্দিনকে সভাপতি করার প্রস্তাব করেছেন। তাদের পক্ষে সমর্থন আদায় করার জন্য আব্দুর রহিম বিদ্যালয়ের প্রথম থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত মেয়ে শিক্ষার্থীদের ফ্রি করে দেওয়ার জন্য অভিভাবকদের প্রলব্ধ করছেন বলে অভিযোগ জানা গেছে।

জানা গেছে, বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি গঠন সংক্রান্ত প্রবিধানমালা এস.আর ও নং-৯৯/আইন/২০০৯-এর ৩৯(১) নং ধারা অনুযায়ী নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) কে সভাপতি করে ৬ মাসের জন্য এডহক কমিটি করে দেয়া হয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটি/গভর্নিং বডি সংক্রান্ত প্রবিধানমালা ২০০৯ এর ৪১(২) (খ)৪ অনুযায়ী ম্যানেজিং কমিটি/গভর্নিং বডি-কে শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগের যে ক্ষমতা দেয়া হয়েছে তা কেবল মাত্র নিয়মিত ম্যানেজিং কমিটি/গভর্নিং বডির মাধ্যমে সম্পন্ন করতে হবে। কোনক্রমেই এডহক বা বিশেষ ধরনের কমিটি/গভর্নিং বডির মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যাবে না মর্মে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড,ঢাকা চেয়ারম্যানের আদেশক্রমে বিদ্যালয় পরিদর্শক গত ১৮ আগস্ট তারিখে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কাছে চিঠি ইস্যু করেন। যার অনুলিপি প্রেরণ করা হয়, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা শিক্ষা অফিসার, সভাপতি,এডহক কমিটি মিজমিজি পাইনাদী রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়। চিঠি ইস্যুর পর আব্দুর রহিম ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পদ থেকে বাদ হলেও তিনি তার দীর্ঘদিনের কর্তৃত্ব হারাতে চাননা। তাই সাতক্ষীরা জেলায় দায়ের করা মানব পাচার মামলার আসামি আব্দুর রহিমের ছেলে আব্দুল কাদির খোকন ও তার অন্যতম সহযোগী ফ্রান্স প্রবাসী গিয়াস উদ্দিনকে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি করার প্রস্তাব করেন। এতে অভিভাবক মহলে দেখা দিয়েছে চরম ক্ষোভ। মানব পাচার মামলার আসামি ও প্রবাসী বিদ্যালয়ের সভাপতি হলে বিশৃঙ্খলা সুষ্টি হবে।

অভিযোগ জানা গেছে, বিদ্যালয়টির শিক্ষকদের ঠিকমত বেতন না দিয়ে নানা অনিয়ম করতেন সাবেক সভাপতি আব্দুর রহিম। তিনি স্কুলের ভিতরে একটি ক্যান্টিন বানিয়েছেন নিজে। এনিয়েও ক্ষোভ বিরাজ করছে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফা জহুরা বলেন, কারা সভাপতি হতে চায় তাৎক্ষণিক ভাবে তাদের নাম আমার জানা নেই। যারাই নিতে চায় তাদের ব্যপারে যাচাই-বাছাই করে কমিটিতে নেয়া হবে। কোন মামলা আসামি বা প্রবাসী কেহ সভাপতি হওয়ার সুযোগ নেই।