নারায়ণগঞ্জ ১০:৩১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত আদমজী ইপিজেডকে অশান্ত করছে জনপ্রতিনিধিরা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে মহিলা লীগ নেত্রীর শুভেচ্ছা বিনিময় না’গঞ্জ কারাগারে হাজতীর মৃত্যু ফতুল্লায় চোরাইকৃত ট্যাংকলড়ী উদ্ধার আড়াইহাজারের মিথিলা টেক্সটাইল ঘুরে গেলেন ৮ দেশের রাষ্ট্রদূতসহ ১৮ দেশের প্রতিনিধি সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে কাউন্সিলর ইকবাল হোসেনের মতবিনিময় ফতুল্লা ব্লাড ডোনার্সের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ শিক্ষা সিলেবাস বাতিলের দাবিতে খেলাফত মজলিসের বিক্ষোভ মিছিল সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শহরে নারী সমাবেশ ও মিছিল

শাস্তির সম্মুখিন হতে হয়েছে রিকশা চালকদের

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:১০:১৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১
  • ৪৬ বার পড়া হয়েছে

শহর প্রতিনিধি : আমরা রিক্সা চালাই, রিক্সা না চালাইলে কে খাওয়াবে আমাদের, কই কেওতো এক বেলা খাবারও দিলনা। লকডাউনের নির্দেশিকা উপেক্ষা করে নারায়ণগঞ্জ শহরে রিকশা নিয়ে প্রবেশ করায় শাস্তির সম্মুখিন হতে হয়েছে রিকশা চালকদের। শাস্তি স্বরুপ তাদের রিকশা উল্টে রেখে তিন ঘণ্টা তাদের দাঁড় করিয়ে রাখা হয়। তবে শাস্তি পাওয়া রিকশা চালকরা বলছে শহরে অবাদে রিকশা চললেও তাদের ভিন্ন কারণে আটক করে রেখেছে পুলিশ। যদিও তারা কারণটি নিশ্চিত করতে পারেনি।

রবিবার (১৮ এপ্রিল) সকাল থেকে নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়া প্রবেশের মুখে পুলিশের তল্লাশি চৌকিতে এ ঘটনা ঘটে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, পুলিশ কয়েকটি রিকশা উল্টে রেখে শাস্তি দিলেও এর চারপাশ দিয়ে অবাধে রিকশা চলছে। পুলিশ তাদের গতি রোধ ও করছেনা। শহরে অবাধে চলাচলেও বাধা দিচ্ছেনা।

রিকশাচালক আমিন বলেন, আমি দেওভোগ থেকে রিকশা চালাই। সকালে আমি যাত্রী নিয়ে গিয়েছিলাম জামতলা। সেখান থেকে ফিরে আসার সময় আমার রিকশা আটকে উল্টে রাখে। অনেক হাতে পায়ে ধরেও সেটি ছাড়াতে পারিনি।

আরেক রিকশা চালক মাহমুদ বলেন, আমি রিকশা চালাই সংসার কোনোভাবে চালানোর জন্য। দিনশেষে তো আমাকে রিকশার মালিককে পুরো জমা ও গ্যারেজ ভাড়া দিতে হবে। আমার এই তিন ঘণ্টার টাকা কে দেবে। আমাকে এখানেই দাঁড় করিয়ে রাখলো রিকশাও উল্টে রাখলো।

জেলা পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম বলেন, মানুষ এখনো সচেতন নয়। তারা নানা অজুহাতে ঘর থেকে বের হচ্ছেন। আমাদের ৩০টি চেকপোস্ট ও ৬টি ভ্রাম্যমাণ আদালত মাঠে কাজ করছে। কেউ কোনো কারণ ছাড়া ঘর থেকে বের হলেই ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত

শাস্তির সম্মুখিন হতে হয়েছে রিকশা চালকদের

আপডেট সময় : ১১:১০:১৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১

শহর প্রতিনিধি : আমরা রিক্সা চালাই, রিক্সা না চালাইলে কে খাওয়াবে আমাদের, কই কেওতো এক বেলা খাবারও দিলনা। লকডাউনের নির্দেশিকা উপেক্ষা করে নারায়ণগঞ্জ শহরে রিকশা নিয়ে প্রবেশ করায় শাস্তির সম্মুখিন হতে হয়েছে রিকশা চালকদের। শাস্তি স্বরুপ তাদের রিকশা উল্টে রেখে তিন ঘণ্টা তাদের দাঁড় করিয়ে রাখা হয়। তবে শাস্তি পাওয়া রিকশা চালকরা বলছে শহরে অবাদে রিকশা চললেও তাদের ভিন্ন কারণে আটক করে রেখেছে পুলিশ। যদিও তারা কারণটি নিশ্চিত করতে পারেনি।

রবিবার (১৮ এপ্রিল) সকাল থেকে নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়া প্রবেশের মুখে পুলিশের তল্লাশি চৌকিতে এ ঘটনা ঘটে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, পুলিশ কয়েকটি রিকশা উল্টে রেখে শাস্তি দিলেও এর চারপাশ দিয়ে অবাধে রিকশা চলছে। পুলিশ তাদের গতি রোধ ও করছেনা। শহরে অবাধে চলাচলেও বাধা দিচ্ছেনা।

রিকশাচালক আমিন বলেন, আমি দেওভোগ থেকে রিকশা চালাই। সকালে আমি যাত্রী নিয়ে গিয়েছিলাম জামতলা। সেখান থেকে ফিরে আসার সময় আমার রিকশা আটকে উল্টে রাখে। অনেক হাতে পায়ে ধরেও সেটি ছাড়াতে পারিনি।

আরেক রিকশা চালক মাহমুদ বলেন, আমি রিকশা চালাই সংসার কোনোভাবে চালানোর জন্য। দিনশেষে তো আমাকে রিকশার মালিককে পুরো জমা ও গ্যারেজ ভাড়া দিতে হবে। আমার এই তিন ঘণ্টার টাকা কে দেবে। আমাকে এখানেই দাঁড় করিয়ে রাখলো রিকশাও উল্টে রাখলো।

জেলা পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম বলেন, মানুষ এখনো সচেতন নয়। তারা নানা অজুহাতে ঘর থেকে বের হচ্ছেন। আমাদের ৩০টি চেকপোস্ট ও ৬টি ভ্রাম্যমাণ আদালত মাঠে কাজ করছে। কেউ কোনো কারণ ছাড়া ঘর থেকে বের হলেই ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।