নারায়ণগঞ্জ ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
সোনারগাঁওয়ে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত সিদ্ধিরগঞ্জে ৪টি কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হারামের পয়সা ব্যারামে খায় ,আমি হারাম খাই না খেতেও দেই না-সেলিম ওসমান ভূমি সম্পর্কিত সমস্যা থাকলে গণশুনানিতে আসার আহবান- না.গঞ্জে জেলা  প্রশাসক সিদ্ধিরগঞ্জে গ্যাসের দাবিতে ঢাকা-চটগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ সোনারগাঁওয়ে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০২৪ অনুষ্ঠিত র‌্যাব পরিচয়ে ৫২ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেফতার-৪ সিদ্ধিরগঞ্জে কাতার প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি চিকিৎসার নামে কোনো প্রকার হয়রানি মেনে নেওয়া হবে না ঃ স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতীর পোশাক শ্রমিক নিহত

আবারও হকার-পুলিশ সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া -পুলিশ সাংবাদিকসহ আহত ২০

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৫০:১৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ মার্চ ২০২১
  • ১২৬ বার পড়া হয়েছে

নারায়ণগঞ্জ সংবাদ :  ফুটপাতে বসতে দেওয়ার দাবিতে নারায়ণগঞ্জে পুলিশ-হকার সংঘর্ষ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় সাংবাদিক-পুলিশসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছে। পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনায় নারায়ণগঞ্জ হকার্স সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক আসাদুর রহমান আসাদকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) বিকেল ৫টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

উত্তেজিত হকাররা এসময় সড়কের চারটি পয়েন্টে আগুন ধরিয়ে দেয় এবং দুটিসহ চারটি যানবাহন ভাংচুর করে। এতে ওই সড়কে এক ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। পরে পুলিশ গিয়ে সড়কের আগুন নেভালে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, বিকেলে ফুটপাতে বসতে দেওয়ার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে হকার্স সংগ্রাম পরিষদ। বিক্ষোভ মিছিলটি চাষাঢ়া থেকে কালীর বাজারের দিকে যাওয়ার পথে পানোরামা প্লাজার সামনে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পুলিশ ধাওয়া দিয়ে এসময় হকারদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় এবং হকার্স সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক আসাদুর রহমান আসাদকে আটক করে নেয়।

এসময় হকার্স নেতার মুক্তির দাবিতে বিক্ষুব্ধ হকাররা বঙ্গবন্ধু সড়কের সাধু পৌলের গীর্জার সামনে সড়ক, শায়েস্তা খান সড়কের মোড়ে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে এবং পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পরে বিপুল সংখ্যক পুলিশ গিয়ে সড়কের আগুন নেভায়। পুলিশের ধাওয়া খেয়ে পুনঃরায় সন্ধ্যার দিকে হকাররা শহরের চাষাঢ়া ও মিশনপাড়া এলাকায় কাপড়ে ও কাঠে আগুন ধরিয়ে দেয়।

হকার-পুলিশ সংঘর্ষের কারণে ওই সড়কে বিকেল ৫টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এক ঘণ্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে সড়কে যানবাহন চলাচল শুরু হয়। সংঘর্ষে পুলিশ-ফটো সাংবাদিকসহ আহত হয়েছে ২০ জন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) সুভাস চন্দ্র সাহা সাংবাদিকদের বলেন, ফুটপাত ও রাস্তা দখলমুক্ত রাখতে উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী পুলিশ কাজ করছে। হকাররা আলোচনা সাপেক্ষে না গিয়ে তাঁরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ, সড়কে আগুন দেওয়াসহ সহিংসতার পথ বেছে নিয়েছে। ইটপাটকেল নিক্ষেপে পুলিশ-সাংবাদিকসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।

তিনি বলেন, পুলিশ ধৈর্য্য ধরেছে। এই ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। যারা সহিংসতা করছে এবং সড়কে আগুন দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সোনারগাঁওয়ে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

আবারও হকার-পুলিশ সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া -পুলিশ সাংবাদিকসহ আহত ২০

আপডেট সময় : ০৬:৫০:১৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ মার্চ ২০২১

নারায়ণগঞ্জ সংবাদ :  ফুটপাতে বসতে দেওয়ার দাবিতে নারায়ণগঞ্জে পুলিশ-হকার সংঘর্ষ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় সাংবাদিক-পুলিশসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছে। পুলিশের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনায় নারায়ণগঞ্জ হকার্স সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক আসাদুর রহমান আসাদকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) বিকেল ৫টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

উত্তেজিত হকাররা এসময় সড়কের চারটি পয়েন্টে আগুন ধরিয়ে দেয় এবং দুটিসহ চারটি যানবাহন ভাংচুর করে। এতে ওই সড়কে এক ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। পরে পুলিশ গিয়ে সড়কের আগুন নেভালে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, বিকেলে ফুটপাতে বসতে দেওয়ার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে হকার্স সংগ্রাম পরিষদ। বিক্ষোভ মিছিলটি চাষাঢ়া থেকে কালীর বাজারের দিকে যাওয়ার পথে পানোরামা প্লাজার সামনে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পুলিশ ধাওয়া দিয়ে এসময় হকারদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় এবং হকার্স সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক আসাদুর রহমান আসাদকে আটক করে নেয়।

এসময় হকার্স নেতার মুক্তির দাবিতে বিক্ষুব্ধ হকাররা বঙ্গবন্ধু সড়কের সাধু পৌলের গীর্জার সামনে সড়ক, শায়েস্তা খান সড়কের মোড়ে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে এবং পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পরে বিপুল সংখ্যক পুলিশ গিয়ে সড়কের আগুন নেভায়। পুলিশের ধাওয়া খেয়ে পুনঃরায় সন্ধ্যার দিকে হকাররা শহরের চাষাঢ়া ও মিশনপাড়া এলাকায় কাপড়ে ও কাঠে আগুন ধরিয়ে দেয়।

হকার-পুলিশ সংঘর্ষের কারণে ওই সড়কে বিকেল ৫টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এক ঘণ্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে সড়কে যানবাহন চলাচল শুরু হয়। সংঘর্ষে পুলিশ-ফটো সাংবাদিকসহ আহত হয়েছে ২০ জন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) সুভাস চন্দ্র সাহা সাংবাদিকদের বলেন, ফুটপাত ও রাস্তা দখলমুক্ত রাখতে উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী পুলিশ কাজ করছে। হকাররা আলোচনা সাপেক্ষে না গিয়ে তাঁরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ, সড়কে আগুন দেওয়াসহ সহিংসতার পথ বেছে নিয়েছে। ইটপাটকেল নিক্ষেপে পুলিশ-সাংবাদিকসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।

তিনি বলেন, পুলিশ ধৈর্য্য ধরেছে। এই ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। যারা সহিংসতা করছে এবং সড়কে আগুন দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে