নারায়ণগঞ্জ ১০:৫৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

এখন পর্যন্ত ১০ লাখ ভ্যাকসিন প্রদান করেছে সৌদি সরকার

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:০৯:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ মার্চ ২০২১
  • ১০ বার পড়া হয়েছে

সৌদি থেকে, কামরুজ্জামান  (শাওন ) :    সৌদি আরবের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এখন পর্যন্ত ১০ লাখেরও বেশি করোনা ভ্যাকসিন  জনগনের মাঝে প্রদান করেছে। গত বুধবারে একটি ঘোষণায় এই তথ্য জানায় মন্ত্রণালয়।

২০২০ সালের ১৭ ডিসেম্বর থেকে সর্বসাধারন এর মাঝে করোনা ভ্যাকসিন প্রদান করা শুরু করে সৌদি আরব। সৌদি আরবের ফুড এন্ড ড্রাগ অথোরিটি ফাইজার-বায়োএনটেক এর প্রস্তুতকৃত করোনা ভ্যাকসিনকে অনুমোদন দেয়ার পর থেকেই ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়।

সারাদেশে ৪০৫টি ভ্যাকসিন প্রদান স্থান এবং কেন্দ্রে ভ্যাকসিন প্রদান করা হয়। ভ্যাকসিন প্রদান কর্মসূচিতে ৩ প্রকারের মানুষদের অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে।

১/ যাদের বয়স ৬৫ বছরের অধিক

২/ যারা গুরুত্বর অসুখে ভুগছেন

৩/ যারা করোনা মহামারীতে সম্মুখভাগে কাজ করছেন – যেমন স্বাস্থ্য খাত এর কর্মীরা।

সৌদি আরবের রিয়াদে প্রথম ভ্যাকসিনেশন সেন্টার চালু করা হয়। পরবর্তীতে জেদ্দা, দাম্মাম, মদিনা, এবং মক্কায় ভ্যাকসিনেশন সেন্টার চালু করা হয়। দ্বীতিয় ধাপে বিগত ১৮ ফেব্রুয়ারী থেকে করোনা ভ্যাকসিন প্রদান করা হয়। সমগ্র সৌদি আরবে বসবাসরত সকল নাগরিক এবং প্রবাসী ফ্রি তে করোনা ভ্যাকসিন পাচ্ছেন।

সম্প্রতি সৌদি ফুড এন্ড ড্রাগ অথোরিটি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা এর করোনা ভ্যাকসিনকে অনুমোদন দেয়। অনুমোদন পাবার পর থেকে এটা জাতীয় ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রমে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

এখন পর্যন্ত ১০ লাখ ভ্যাকসিন প্রদান করেছে সৌদি সরকার

আপডেট সময় : ১১:০৯:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ মার্চ ২০২১

সৌদি থেকে, কামরুজ্জামান  (শাওন ) :    সৌদি আরবের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এখন পর্যন্ত ১০ লাখেরও বেশি করোনা ভ্যাকসিন  জনগনের মাঝে প্রদান করেছে। গত বুধবারে একটি ঘোষণায় এই তথ্য জানায় মন্ত্রণালয়।

২০২০ সালের ১৭ ডিসেম্বর থেকে সর্বসাধারন এর মাঝে করোনা ভ্যাকসিন প্রদান করা শুরু করে সৌদি আরব। সৌদি আরবের ফুড এন্ড ড্রাগ অথোরিটি ফাইজার-বায়োএনটেক এর প্রস্তুতকৃত করোনা ভ্যাকসিনকে অনুমোদন দেয়ার পর থেকেই ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়।

সারাদেশে ৪০৫টি ভ্যাকসিন প্রদান স্থান এবং কেন্দ্রে ভ্যাকসিন প্রদান করা হয়। ভ্যাকসিন প্রদান কর্মসূচিতে ৩ প্রকারের মানুষদের অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে।

১/ যাদের বয়স ৬৫ বছরের অধিক

২/ যারা গুরুত্বর অসুখে ভুগছেন

৩/ যারা করোনা মহামারীতে সম্মুখভাগে কাজ করছেন – যেমন স্বাস্থ্য খাত এর কর্মীরা।

সৌদি আরবের রিয়াদে প্রথম ভ্যাকসিনেশন সেন্টার চালু করা হয়। পরবর্তীতে জেদ্দা, দাম্মাম, মদিনা, এবং মক্কায় ভ্যাকসিনেশন সেন্টার চালু করা হয়। দ্বীতিয় ধাপে বিগত ১৮ ফেব্রুয়ারী থেকে করোনা ভ্যাকসিন প্রদান করা হয়। সমগ্র সৌদি আরবে বসবাসরত সকল নাগরিক এবং প্রবাসী ফ্রি তে করোনা ভ্যাকসিন পাচ্ছেন।

সম্প্রতি সৌদি ফুড এন্ড ড্রাগ অথোরিটি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা এর করোনা ভ্যাকসিনকে অনুমোদন দেয়। অনুমোদন পাবার পর থেকে এটা জাতীয় ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রমে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।