নারায়ণগঞ্জ ০৮:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

৭ই মার্চ ভাষণে বাঙালিরা মহান মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পরে-নৌ পুলিশ সুপার

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৪৫:৪৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ মার্চ ২০২১
  • ৪৬ বার পড়া হয়েছে

শহর প্রতিনিধি :  নারায়ণগঞ্জ নৌ থানার উদ্যোগে বঙ্গবন্দু ৭ই মার্চ ভাষণ উপলক্ষে  আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত  হয়েছে। আজ রোববার শহরের ১নং খেয়াঘাট এলাকায়  নৌ থানার আয়োজনে  অনুষ্ঠান টি করা হয়।
বাংলাদেশ এলডিসি থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তোরনে জাতিসংঘের চূড়ান্ত সুপারিশ প্রাপ্তিতে এ অনুষ্ঠানের আয়ােজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নৌ পুলিশ সুপার (নারায়ণগঞ্জ অঞ্চল) মীনা মাহমুদা বলেন, ৭ই মার্চ বাঙালি জাতির জীবনে এক গুরুত্বপূর্ণ দিন। এবারে এ দিনটি আরও গুরুত্বপূর্ণ। কেননা, আমরা সামনেই স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করতে যাচ্ছি। এ ৭ই মার্চ নাহলে দেশ স্বাধীন হতাে না। আমরা বিশ্বের দরবারের মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারতাম না।

তিনি বলেন, মাত্র ১৯ মিনিটে ওনি (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান) এ ভাষণটি দিয়েছিলেন। ওনার এ ভাষণটি এ বাংলায় বিদ্যুৎগতিতে
ছড়িয়ে পড়লে জাতির মনে শক্তি সঞ্চার হয়। ফলে বাঙালিরা মহান মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পরে, ৩০ লক্ষ প্রাণ উৎসর্গ করে স্বাধীনতাকে ছিনিয়ে আনে।

তিনি আরও বলেন, ৭ই মার্চের মাধ্যমে আমরা যে স্বাধীনতা পেয়েছি,আসুন এ দেশকে আমরা ভালােবাসি। আমরা কোন অন্যায়ের কাছে মাথা নত করবাে না। আমরা অন্যায়কে না বলবাে, মাদককে না বলবাে।

বক্তব্য শেষে কেক কেটে দিনটিকে পালন করা হয় সদর নৌ থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) শহিদুল আলমের সভাপতিত্বে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

৭ই মার্চ ভাষণে বাঙালিরা মহান মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পরে-নৌ পুলিশ সুপার

আপডেট সময় : ০৩:৪৫:৪৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ মার্চ ২০২১

শহর প্রতিনিধি :  নারায়ণগঞ্জ নৌ থানার উদ্যোগে বঙ্গবন্দু ৭ই মার্চ ভাষণ উপলক্ষে  আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত  হয়েছে। আজ রোববার শহরের ১নং খেয়াঘাট এলাকায়  নৌ থানার আয়োজনে  অনুষ্ঠান টি করা হয়।
বাংলাদেশ এলডিসি থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তোরনে জাতিসংঘের চূড়ান্ত সুপারিশ প্রাপ্তিতে এ অনুষ্ঠানের আয়ােজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নৌ পুলিশ সুপার (নারায়ণগঞ্জ অঞ্চল) মীনা মাহমুদা বলেন, ৭ই মার্চ বাঙালি জাতির জীবনে এক গুরুত্বপূর্ণ দিন। এবারে এ দিনটি আরও গুরুত্বপূর্ণ। কেননা, আমরা সামনেই স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করতে যাচ্ছি। এ ৭ই মার্চ নাহলে দেশ স্বাধীন হতাে না। আমরা বিশ্বের দরবারের মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারতাম না।

তিনি বলেন, মাত্র ১৯ মিনিটে ওনি (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান) এ ভাষণটি দিয়েছিলেন। ওনার এ ভাষণটি এ বাংলায় বিদ্যুৎগতিতে
ছড়িয়ে পড়লে জাতির মনে শক্তি সঞ্চার হয়। ফলে বাঙালিরা মহান মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পরে, ৩০ লক্ষ প্রাণ উৎসর্গ করে স্বাধীনতাকে ছিনিয়ে আনে।

তিনি আরও বলেন, ৭ই মার্চের মাধ্যমে আমরা যে স্বাধীনতা পেয়েছি,আসুন এ দেশকে আমরা ভালােবাসি। আমরা কোন অন্যায়ের কাছে মাথা নত করবাে না। আমরা অন্যায়কে না বলবাে, মাদককে না বলবাে।

বক্তব্য শেষে কেক কেটে দিনটিকে পালন করা হয় সদর নৌ থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) শহিদুল আলমের সভাপতিত্বে।