নারায়ণগঞ্জ ১২:০৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত জুন মাসের ১৭ তারিখ কোরবানির ঈদ পালিত হওয়ার সম্ভবনা রিয়াদে নোভ আল আম্মার ইষ্টাবলিস্ট এর আয়োজনে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

সিদ্ধিরগঞ্জে মুক্তি পেয়েও বিপাকে জিম্মি পরিবার এলাকা ছাড়ার হুমকি

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:২৪:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
  • ১২৫ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার : নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের মৌচাক এলাকার একটি বাড়ির ৬ পরিবার জিম্মিদশা থেকে মুক্তি পেলেও উল্টো পুলিশী হয়রানী ও সন্ত্রাসী মাসুম রানার হুমকির ভয়ে চরম আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। এলাকা ছেড়ে চলে না গেলে পরিবারের সবাইকে হত্যা করবে এমন হুমকি প্রদান করায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সন্ত্রাসী মাসুম রানা ও তার ভাই আরমানের বিরুদ্ধে সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাতে থানায় জিডি করেছে মো: নজরুল ইসলাম রনি।
জানা গেছে, মিজমিজি মৌচাক বসির উদ্দিন মার্কেট এলাকায় ১৫ লাখ টাকা চাঁদার দাবিতে গত ২৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টা থেকে রাত ১১ টা পর্যন্ত আব্দুল জব্বারের পরিবার ও ভাড়াটিয়াসহ ৬ টি পরিবারকে ঘর বন্দি করে জিম্মি করে রাখে একই এলাকার প্রভাবশালী সালাউদ্দিনের ছেলে সন্ত্রাসী মাসুম রানা। বাড়ির সামনের রাস্তার দুই পাশে ইটের দেয়াল ও প্রধান গেইটে তালা লাগিয়ে দেয়। খবর পেয়ে রাত ১১ টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে রাস্তার দেয়াল ভেঙ্গে বাড়ির সকল পরিবারকে জিম্মিদশা থেকে মুক্ত করে। জিম্মিদশা থেকে উদ্ধার হয়ে রাতেই সন্ত্রাসী মাসুম রানার বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে আব্দুল জব্বারের মেয়ে ঝ^র্ণা আক্তার। ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হওয়া ওই ঘটনায় অভিযোগ করার পরও মামলা গ্রহন না করে থানার ওসি কামরুল ফারুক ২৬ সেপ্টেম্বর সকালে দুইপক্ষকে থানায় ডেকে নিয়ে আপোষ মিমাংশা করার বৈঠক বসে। দুইপক্ষ আপোষ মিমাংশায় রাজি হলে অগামী ৫ আক্টোবর ওসি নিজে উপস্থিত থেকে আমিন দিয়ে জমির সীমানা মেপে বিরোধ নিস্পত্তি করে দিবে বলে দুইপক্ষকে শান্ত থাকার পরামর্শ দেয়।
এদিকে ওসির উদ্যোগে মিমাংশা বৈটক করার পরদিনই পুলিশ যে দেয়াল ভেঙ্গে আব্দুল জব্বারের পরিবার ও ভাড়াটিয়াদের মুক্ত করেছে সেই দেয়াল ভাঙ্গার অভিযোগে আব্দুল জব্বারের পরিবারের লোকজনের বিরুদ্ধে থানায় পাল্টা অভিযোগ দায়ের করা হয়। পরে ২৮ সেপ্টেম্বর সকালে থানার এআই আমিনুল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে যায়। দেয়াল ভাঙ্গার অভিযোগে পুলিশ ভূক্তভোগী পরিবারের উপর চাপ সৃষ্টি করে। অথচ পুলিশ দেয়াল ভেঙ্গেছে তার ছবি ও ভিডিও ফুটেজ দেখানোর পরও পুলিশ আব্দুল জব্বারের পরিবারের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করে বলে অভিযোগ জানায় ভূক্তভোগীরা।
অপরদিকে সন্ত্রাসী মাসুম রানা আব্দুল জব্বারের পরিবারকে বাড়ি ছেড়ে দিয়ে এলাকা থেকে চলে যেতে নানা ভাবে চাপ প্রয়োগ করছে। এলাকা না ছাড়লে পরিবারের সবাইকে হত্যা করবে বলে হুমকি প্রদান করছে। তাই জীবনের নিরাপত্তার জন্য সন্ত্রাসী মাসুম রানা ও তার ভাই আরমানের বিরুদ্ধে আব্দুল জব্বারের ছেলে মো: নজরুল ইসলাম রনি জিডি করেছে। কিন্তু পুলিশ হুমকিদাতা সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কোন আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করছেন না বলে ভূক্তভোগীদের অভিযোগ।
রনি জানায়, যে বাড়ি নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে। সেই বাড়িটি মাসুম রানা কিনতে চেয়েছিল। কিন্তু দাম কম বলায় বাড়ির মালিক বেশি দাম পেয়ে আব্দুল জব্বারের কাছে বিক্রি করে। বাড়িটি কিনার পর থেকেই মাসুম রানা ক্ষিপ্ত হয়ে নানা অত্যাচার নির্যাতন শুরু করে।
এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অভিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ফারুকের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, কিছু জানেননা। অভিযোগ ও জিডির ভিষয়ে জানতে চাইলে তিনি উত্তেজিত হয়ে বলেন, এসব নিউজের বিষয়না। আপনাদের কি আর কোন কাজ নেই বলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।
জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলমের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি বলেন, থানার ওসি না জানলে আমি জানব কি করে। আমি যথাযথ ব্যাবস্থা নিচ্ছি।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা

সিদ্ধিরগঞ্জে মুক্তি পেয়েও বিপাকে জিম্মি পরিবার এলাকা ছাড়ার হুমকি

আপডেট সময় : ১২:২৪:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার : নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের মৌচাক এলাকার একটি বাড়ির ৬ পরিবার জিম্মিদশা থেকে মুক্তি পেলেও উল্টো পুলিশী হয়রানী ও সন্ত্রাসী মাসুম রানার হুমকির ভয়ে চরম আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। এলাকা ছেড়ে চলে না গেলে পরিবারের সবাইকে হত্যা করবে এমন হুমকি প্রদান করায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সন্ত্রাসী মাসুম রানা ও তার ভাই আরমানের বিরুদ্ধে সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাতে থানায় জিডি করেছে মো: নজরুল ইসলাম রনি।
জানা গেছে, মিজমিজি মৌচাক বসির উদ্দিন মার্কেট এলাকায় ১৫ লাখ টাকা চাঁদার দাবিতে গত ২৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টা থেকে রাত ১১ টা পর্যন্ত আব্দুল জব্বারের পরিবার ও ভাড়াটিয়াসহ ৬ টি পরিবারকে ঘর বন্দি করে জিম্মি করে রাখে একই এলাকার প্রভাবশালী সালাউদ্দিনের ছেলে সন্ত্রাসী মাসুম রানা। বাড়ির সামনের রাস্তার দুই পাশে ইটের দেয়াল ও প্রধান গেইটে তালা লাগিয়ে দেয়। খবর পেয়ে রাত ১১ টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে রাস্তার দেয়াল ভেঙ্গে বাড়ির সকল পরিবারকে জিম্মিদশা থেকে মুক্ত করে। জিম্মিদশা থেকে উদ্ধার হয়ে রাতেই সন্ত্রাসী মাসুম রানার বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে আব্দুল জব্বারের মেয়ে ঝ^র্ণা আক্তার। ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হওয়া ওই ঘটনায় অভিযোগ করার পরও মামলা গ্রহন না করে থানার ওসি কামরুল ফারুক ২৬ সেপ্টেম্বর সকালে দুইপক্ষকে থানায় ডেকে নিয়ে আপোষ মিমাংশা করার বৈঠক বসে। দুইপক্ষ আপোষ মিমাংশায় রাজি হলে অগামী ৫ আক্টোবর ওসি নিজে উপস্থিত থেকে আমিন দিয়ে জমির সীমানা মেপে বিরোধ নিস্পত্তি করে দিবে বলে দুইপক্ষকে শান্ত থাকার পরামর্শ দেয়।
এদিকে ওসির উদ্যোগে মিমাংশা বৈটক করার পরদিনই পুলিশ যে দেয়াল ভেঙ্গে আব্দুল জব্বারের পরিবার ও ভাড়াটিয়াদের মুক্ত করেছে সেই দেয়াল ভাঙ্গার অভিযোগে আব্দুল জব্বারের পরিবারের লোকজনের বিরুদ্ধে থানায় পাল্টা অভিযোগ দায়ের করা হয়। পরে ২৮ সেপ্টেম্বর সকালে থানার এআই আমিনুল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে যায়। দেয়াল ভাঙ্গার অভিযোগে পুলিশ ভূক্তভোগী পরিবারের উপর চাপ সৃষ্টি করে। অথচ পুলিশ দেয়াল ভেঙ্গেছে তার ছবি ও ভিডিও ফুটেজ দেখানোর পরও পুলিশ আব্দুল জব্বারের পরিবারের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করে বলে অভিযোগ জানায় ভূক্তভোগীরা।
অপরদিকে সন্ত্রাসী মাসুম রানা আব্দুল জব্বারের পরিবারকে বাড়ি ছেড়ে দিয়ে এলাকা থেকে চলে যেতে নানা ভাবে চাপ প্রয়োগ করছে। এলাকা না ছাড়লে পরিবারের সবাইকে হত্যা করবে বলে হুমকি প্রদান করছে। তাই জীবনের নিরাপত্তার জন্য সন্ত্রাসী মাসুম রানা ও তার ভাই আরমানের বিরুদ্ধে আব্দুল জব্বারের ছেলে মো: নজরুল ইসলাম রনি জিডি করেছে। কিন্তু পুলিশ হুমকিদাতা সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কোন আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করছেন না বলে ভূক্তভোগীদের অভিযোগ।
রনি জানায়, যে বাড়ি নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে। সেই বাড়িটি মাসুম রানা কিনতে চেয়েছিল। কিন্তু দাম কম বলায় বাড়ির মালিক বেশি দাম পেয়ে আব্দুল জব্বারের কাছে বিক্রি করে। বাড়িটি কিনার পর থেকেই মাসুম রানা ক্ষিপ্ত হয়ে নানা অত্যাচার নির্যাতন শুরু করে।
এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অভিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ফারুকের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, কিছু জানেননা। অভিযোগ ও জিডির ভিষয়ে জানতে চাইলে তিনি উত্তেজিত হয়ে বলেন, এসব নিউজের বিষয়না। আপনাদের কি আর কোন কাজ নেই বলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।
জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলমের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি বলেন, থানার ওসি না জানলে আমি জানব কি করে। আমি যথাযথ ব্যাবস্থা নিচ্ছি।