নারায়ণগঞ্জ ১১:৩৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ফতুল্লায় শ্রমিক নেতার উপর হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবীতে ফতুল্লা থানা ঘেরাও

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:২৬:৩৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ জুন ২০২০
  • ২৯ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধি : ফতুল্লায় ডাইং এন্ড প্রিন্টিং শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতিকে মারধর করার অভিযোগ ঘটনায় রোববার (২১জুন) বিকেলে হামলাকারীদের গ্রেপ্তারেরদাবীতে ফতুল্লা থানা ঘেরাও করে শ্রমিকরা। এ ব্যাপারে শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি আহত হিরণ বাদী হয়ে রহমানিয়া ডাইং কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।
এ অভিযোগ ও থানায় আসা শ্রমিক সূত্রে জানাযায়, নন্দলালপুর এলাকার রহমানিয়া ডাইং, রাফি ডাইং, সুই ডাইং, আর.আর ডাইং, এ.জি.এম ডাইং, আব্দুল্লা ডাইং ও দাপা শৈলকুড়া এলাকার নিউ জেনিথ (পূর্ণিমা) ডাইংয়ের সমন্বয়ে শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়ন গঠিত হয়। এর রেজিঃ নং- নারায়ণগঞ্জ-০০৫। কিন্তু নানা কারণে এই সংগঠনটির বিরোধীতা করছেন উল্লেখিত ডাইং কারখানাগুলো মালিকপক্ষ। এই নিয়ে সংগঠনটির সভাপতি হিরণের সাথে মতভেদ ও বিরোধ চলছিলো ডাইং কর্তৃপক্ষের। একপর্যায়ে ডাইংগুলো বিগত লকডাউনে শ্রমিকদের বেতন ভাতা পরিশোধ না করায় শ্রমিকদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে মালিক পক্ষের সাথে আলোচনা করেন হিরণ। কিন্তু আলোচনায় কোন ফলাফল আসেনি। উল্টো মালিক পক্ষরা শ্রমিক নেতা হিরণকে হুমকি দেন। এরপর গত শুক্রবার (১৯ জুন) শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হিরণকে সকল প্রতিষ্ঠানের মালিক পক্ষের হুকুমে বহিরাগত সন্ত্রাসীরা মারধর করে আহত করে এবং হত্যার হুমকি দেয়।
ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক কবীর হোসেন রাজু  জানান, সরকার প্রতিটি শিল্প কারখানার শ্রমিকদের লকডাউন কালিন সময়েও বেতনের ৬০ শতাংশ পরিশোধ করার জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন। কিন্তু নন্দলালপুর এলাকার রহমানিয়া ডাইং, রাফি ডাইং, সুই ডাইং, আর.আর ডাইং, এ.জি.এম ডাইং, আব্দুল্লা ডাইং ও দাপা শৈলকুড়া এলাকার নিউ জেনিথ (পূর্ণিমা) ডাইংয়ের মালিকরা শ্রমিকদের তা পরিশোধ করেনি। এমনকি ঈদ বোনাসও দেয়নি। শ্রমিকরা তা দাবি করায় মালিকপক্ষ বহিরাগত লোক দিয়ে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের সভাপতি হিরণকে মারধর করে আহত করেছে। শ্রমিকরা এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার দাবি করে থানায় অভিযোগ দিয়েছে।’
ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসলাম হোসেন  জানান, ‘বিষয়টি ইন্ড্রাস্ট্রিয়াল পুলিশের আওতায় পড়েছে। ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশই বিষয়টি দেখবে। তারপরও শ্রমিকদের মারধর করা হয়েছে মর্মে বেশ কয়েকজন শ্রমিক থানায় অভিযোগ দিতে আসায় আমি তাদের অভিযোগ রেখেছি এবং পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’
##############

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

ফতুল্লায় শ্রমিক নেতার উপর হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবীতে ফতুল্লা থানা ঘেরাও

আপডেট সময় : ১১:২৬:৩৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ জুন ২০২০

নিজস্ব প্রতিনিধি : ফতুল্লায় ডাইং এন্ড প্রিন্টিং শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতিকে মারধর করার অভিযোগ ঘটনায় রোববার (২১জুন) বিকেলে হামলাকারীদের গ্রেপ্তারেরদাবীতে ফতুল্লা থানা ঘেরাও করে শ্রমিকরা। এ ব্যাপারে শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি আহত হিরণ বাদী হয়ে রহমানিয়া ডাইং কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।
এ অভিযোগ ও থানায় আসা শ্রমিক সূত্রে জানাযায়, নন্দলালপুর এলাকার রহমানিয়া ডাইং, রাফি ডাইং, সুই ডাইং, আর.আর ডাইং, এ.জি.এম ডাইং, আব্দুল্লা ডাইং ও দাপা শৈলকুড়া এলাকার নিউ জেনিথ (পূর্ণিমা) ডাইংয়ের সমন্বয়ে শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়ন গঠিত হয়। এর রেজিঃ নং- নারায়ণগঞ্জ-০০৫। কিন্তু নানা কারণে এই সংগঠনটির বিরোধীতা করছেন উল্লেখিত ডাইং কারখানাগুলো মালিকপক্ষ। এই নিয়ে সংগঠনটির সভাপতি হিরণের সাথে মতভেদ ও বিরোধ চলছিলো ডাইং কর্তৃপক্ষের। একপর্যায়ে ডাইংগুলো বিগত লকডাউনে শ্রমিকদের বেতন ভাতা পরিশোধ না করায় শ্রমিকদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে মালিক পক্ষের সাথে আলোচনা করেন হিরণ। কিন্তু আলোচনায় কোন ফলাফল আসেনি। উল্টো মালিক পক্ষরা শ্রমিক নেতা হিরণকে হুমকি দেন। এরপর গত শুক্রবার (১৯ জুন) শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হিরণকে সকল প্রতিষ্ঠানের মালিক পক্ষের হুকুমে বহিরাগত সন্ত্রাসীরা মারধর করে আহত করে এবং হত্যার হুমকি দেয়।
ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক কবীর হোসেন রাজু  জানান, সরকার প্রতিটি শিল্প কারখানার শ্রমিকদের লকডাউন কালিন সময়েও বেতনের ৬০ শতাংশ পরিশোধ করার জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন। কিন্তু নন্দলালপুর এলাকার রহমানিয়া ডাইং, রাফি ডাইং, সুই ডাইং, আর.আর ডাইং, এ.জি.এম ডাইং, আব্দুল্লা ডাইং ও দাপা শৈলকুড়া এলাকার নিউ জেনিথ (পূর্ণিমা) ডাইংয়ের মালিকরা শ্রমিকদের তা পরিশোধ করেনি। এমনকি ঈদ বোনাসও দেয়নি। শ্রমিকরা তা দাবি করায় মালিকপক্ষ বহিরাগত লোক দিয়ে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের সভাপতি হিরণকে মারধর করে আহত করেছে। শ্রমিকরা এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার দাবি করে থানায় অভিযোগ দিয়েছে।’
ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসলাম হোসেন  জানান, ‘বিষয়টি ইন্ড্রাস্ট্রিয়াল পুলিশের আওতায় পড়েছে। ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশই বিষয়টি দেখবে। তারপরও শ্রমিকদের মারধর করা হয়েছে মর্মে বেশ কয়েকজন শ্রমিক থানায় অভিযোগ দিতে আসায় আমি তাদের অভিযোগ রেখেছি এবং পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’
##############