নারায়ণগঞ্জ ১১:০৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত আদমজী ইপিজেডকে অশান্ত করছে জনপ্রতিনিধিরা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে মহিলা লীগ নেত্রীর শুভেচ্ছা বিনিময় না’গঞ্জ কারাগারে হাজতীর মৃত্যু ফতুল্লায় চোরাইকৃত ট্যাংকলড়ী উদ্ধার আড়াইহাজারের মিথিলা টেক্সটাইল ঘুরে গেলেন ৮ দেশের রাষ্ট্রদূতসহ ১৮ দেশের প্রতিনিধি সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে কাউন্সিলর ইকবাল হোসেনের মতবিনিময় ফতুল্লা ব্লাড ডোনার্সের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ শিক্ষা সিলেবাস বাতিলের দাবিতে খেলাফত মজলিসের বিক্ষোভ মিছিল সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শহরে নারী সমাবেশ ও মিছিল

ফতুল্লায় ভাইকে আটক রেখে বোনকে গণধর্ষণ : গ্রেপ্তার-৬

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:০৪:০০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯
  • ১১৬ বার পড়া হয়েছে

ফতুল্লা প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ষোল বছরের এক নারী শ্রমিককে রাস্তা থেকে ধরে নিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগে ছয় জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।  সোমবার রাত সাড়ে সাতটার দিকে বটতলা শাহজালাল রি-রোলিং মিল এলাকায় মসজিদ গলির একটি নির্জন বাড়িতে নরীর সঙ্গে থাকা চাচাত ভাইকে মারধর ও আটকে রেখে পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনায় রাত এগারটার দিকে পুলিশ একই এলাকা থেকে ধর্ষকদের গ্রেপ্তার করে।

মঙ্গলবার দুপুরে ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মনিরুল ইসলাম ফতুল্লা থানায় সংবাদ সম্মেলনে ছয় ধর্ষককে গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তারা হলো-চাঁদপুর জেলার মতলবের মুক্তিরকান্দি এলাকার মো. সিরাজের ছেলে রাসেল (৩৮), নেত্রকোনা জেলার কালিয়াজুড়ির মৃত রুকু মিয়ার ছেলে সুজন মিয়া (২৩), মুন্সিগঞ্জ জেলার বিক্রমপুরের মৃত খোরশেদ আলমের ছেলে শাহাদাৎ হোসেন (২২), ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশালের বিরামপুরের মো. ফরিদের ছেলে সুমন (২২), একই জেলার কেন্দুয়ার হাদিছুর রহমানের ছেলে মো. রবিন (২৩) ও শরিয়তপুর জেলার জাজিরার আব্দুল লতিফের ছেলে মো: আল আমিন (২১)। তারা সবাই ফতুল্লার দাপা ইদ্রাকপুরের বিভিন্ন এলাকায় ভাড়া থাকে।

পুলিশ সুপার জানান, বটতলা এলাকার কেএম ইন্টারন্যাশনাল অ্যাডভান্স মশার কয়েল কারখানায় কাজ করেন ধর্ষিতা নারী। সোমবার সন্ধ্যায় ছুটির পর চাচাত ভাইয়ের সঙ্গে বাসায় ফিরছিল সে। এসময় এলাকার বখাটে রাসেল তার সঙ্গীদের নিয়ে পথরোধ করে। নারীর সঙ্গে থাকা চাচাত ভাইকে মারধর ও ৩ হাজার চারশ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে তাকে আটকে রাখে আর নারী শ্রমিককে একটি নির্জন বাড়িতে নিয়ে সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন ভেঙ্গে ফেলে ছুরির ভয় দেখিয়ে রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে ঘটনা কাউকে না বলার হুমকি দিয়ে ওই তরুণী ও তার চাচাত ভাইকে একটি আটোরিকশায় তুলে দেয়। ধর্ষনের শিকার তরুণী গোগনগর ফকিরবাড়ি এলাকার ভাড়াটিয়া।

এ ঘটনায় ধৃতদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করে সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান ফতুল্লা থানার ওসি আসলাম হোসেন।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত

ফতুল্লায় ভাইকে আটক রেখে বোনকে গণধর্ষণ : গ্রেপ্তার-৬

আপডেট সময় : ০১:০৪:০০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯

ফতুল্লা প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ষোল বছরের এক নারী শ্রমিককে রাস্তা থেকে ধরে নিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগে ছয় জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।  সোমবার রাত সাড়ে সাতটার দিকে বটতলা শাহজালাল রি-রোলিং মিল এলাকায় মসজিদ গলির একটি নির্জন বাড়িতে নরীর সঙ্গে থাকা চাচাত ভাইকে মারধর ও আটকে রেখে পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনায় রাত এগারটার দিকে পুলিশ একই এলাকা থেকে ধর্ষকদের গ্রেপ্তার করে।

মঙ্গলবার দুপুরে ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মনিরুল ইসলাম ফতুল্লা থানায় সংবাদ সম্মেলনে ছয় ধর্ষককে গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তারা হলো-চাঁদপুর জেলার মতলবের মুক্তিরকান্দি এলাকার মো. সিরাজের ছেলে রাসেল (৩৮), নেত্রকোনা জেলার কালিয়াজুড়ির মৃত রুকু মিয়ার ছেলে সুজন মিয়া (২৩), মুন্সিগঞ্জ জেলার বিক্রমপুরের মৃত খোরশেদ আলমের ছেলে শাহাদাৎ হোসেন (২২), ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশালের বিরামপুরের মো. ফরিদের ছেলে সুমন (২২), একই জেলার কেন্দুয়ার হাদিছুর রহমানের ছেলে মো. রবিন (২৩) ও শরিয়তপুর জেলার জাজিরার আব্দুল লতিফের ছেলে মো: আল আমিন (২১)। তারা সবাই ফতুল্লার দাপা ইদ্রাকপুরের বিভিন্ন এলাকায় ভাড়া থাকে।

পুলিশ সুপার জানান, বটতলা এলাকার কেএম ইন্টারন্যাশনাল অ্যাডভান্স মশার কয়েল কারখানায় কাজ করেন ধর্ষিতা নারী। সোমবার সন্ধ্যায় ছুটির পর চাচাত ভাইয়ের সঙ্গে বাসায় ফিরছিল সে। এসময় এলাকার বখাটে রাসেল তার সঙ্গীদের নিয়ে পথরোধ করে। নারীর সঙ্গে থাকা চাচাত ভাইকে মারধর ও ৩ হাজার চারশ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে তাকে আটকে রাখে আর নারী শ্রমিককে একটি নির্জন বাড়িতে নিয়ে সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন ভেঙ্গে ফেলে ছুরির ভয় দেখিয়ে রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে ঘটনা কাউকে না বলার হুমকি দিয়ে ওই তরুণী ও তার চাচাত ভাইকে একটি আটোরিকশায় তুলে দেয়। ধর্ষনের শিকার তরুণী গোগনগর ফকিরবাড়ি এলাকার ভাড়াটিয়া।

এ ঘটনায় ধৃতদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করে সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান ফতুল্লা থানার ওসি আসলাম হোসেন।