নারায়ণগঞ্জ ০৪:০৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতীর পোশাক শ্রমিক নিহত সোনারগাঁয়ের ১টি হত্যা মামলার প্রধান আসামিসহ দুজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১ নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত

ফতুল্লায় ইলেক্ট্রনিক্স মেকানিক খুন : আটক-১

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৩৫:২৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৭ অক্টোবর ২০১৯
  • ১১৩ বার পড়া হয়েছে

ফতুল্লা প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় এক জেনারেটর ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। গত রবিবার দিবাগত গভীর রাতে ফতুল্লার হাজীগঞ্জ বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
নিহতের নাম মাহমুদুল হক বাবলু (৫১)। তিনি হাজীগঞ্জ এলাকার মৃত জালাল উদ্দিনের ছেলে।
এ হত্যার ঘটনায় রাকিব নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। সে তল্লা সুপারিবাগ এলাকার বেনু মিয়ার ছেলে।
নিহতের ছোট ভাই খোকন জানায়, বাবলু হাজীগঞ্জ বাজারে টিভি ফ্রিজ মেরামতের দোকান পরিচালনার পাশাপাশি জেনারেটর ব্যবসা করতেন। রবিবার রাত ২ টায় দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফেরার পথে সন্ত্রাসী আলম, রাকিব, খালেক ও পলাশসহ অজ্ঞাত আরো কয়েকজন বাবলুকে পিটিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে শহরের খানপুর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। এ ঘটনায়, আটককৃত রাকিবসহ চার জনের নাম উল্লেখ করে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।
হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সেলিনা আক্তার জানান, হাসপাতালে আনার আগেই তার (বাবলু) মৃত্যু হয়েছে।
নিহতের খালু অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খোন্দকার জানান, বাবলু পেশায় একজন ইলেক্ট্রনিক্স মেকানিক ও জেনারেটর ব্যবসায়ী। বছর খানেক ধরে তল্লা এলাকার বেনু মিয়ার ছেলে আলম ও তার ভাইয়েরা জোর করে বাবলুর জেনারেটর ব্যবসা দখল করার চেষ্টা করছে। ব্যবসা দখল করতে না পেরেই তারা রাতের আঁধারে তাকে হত্যা করেছে বলে প্রতিয়মান হচ্ছে।
ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, হত্যা কান্ডের কারণ জানার তদন্ত করা হচ্ছে। এ ঘটনায় রাকিব নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি ও ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকের চেষ্টা চলছে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতীর পোশাক শ্রমিক নিহত

ফতুল্লায় ইলেক্ট্রনিক্স মেকানিক খুন : আটক-১

আপডেট সময় : ১১:৩৫:২৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৭ অক্টোবর ২০১৯

ফতুল্লা প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় এক জেনারেটর ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। গত রবিবার দিবাগত গভীর রাতে ফতুল্লার হাজীগঞ্জ বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
নিহতের নাম মাহমুদুল হক বাবলু (৫১)। তিনি হাজীগঞ্জ এলাকার মৃত জালাল উদ্দিনের ছেলে।
এ হত্যার ঘটনায় রাকিব নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। সে তল্লা সুপারিবাগ এলাকার বেনু মিয়ার ছেলে।
নিহতের ছোট ভাই খোকন জানায়, বাবলু হাজীগঞ্জ বাজারে টিভি ফ্রিজ মেরামতের দোকান পরিচালনার পাশাপাশি জেনারেটর ব্যবসা করতেন। রবিবার রাত ২ টায় দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফেরার পথে সন্ত্রাসী আলম, রাকিব, খালেক ও পলাশসহ অজ্ঞাত আরো কয়েকজন বাবলুকে পিটিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে শহরের খানপুর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। এ ঘটনায়, আটককৃত রাকিবসহ চার জনের নাম উল্লেখ করে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।
হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সেলিনা আক্তার জানান, হাসপাতালে আনার আগেই তার (বাবলু) মৃত্যু হয়েছে।
নিহতের খালু অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খোন্দকার জানান, বাবলু পেশায় একজন ইলেক্ট্রনিক্স মেকানিক ও জেনারেটর ব্যবসায়ী। বছর খানেক ধরে তল্লা এলাকার বেনু মিয়ার ছেলে আলম ও তার ভাইয়েরা জোর করে বাবলুর জেনারেটর ব্যবসা দখল করার চেষ্টা করছে। ব্যবসা দখল করতে না পেরেই তারা রাতের আঁধারে তাকে হত্যা করেছে বলে প্রতিয়মান হচ্ছে।
ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, হত্যা কান্ডের কারণ জানার তদন্ত করা হচ্ছে। এ ঘটনায় রাকিব নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি ও ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকের চেষ্টা চলছে।