নারায়ণগঞ্জ ১০:৪৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ফতুল্লার মাদক সম্রাট লিপু বন্দুক যুদ্ধে নিহত

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:৩০:০২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯
  • ৩৬ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার : ফতুল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে লিপু (৩০) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে ডিবি পুলিশের ৩ সদস্য। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শুটার গান ও এক রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার দিবাগত গভীর রাতে দাপা বালুর মাঠ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, নিহত লিপু এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসা ও ডাকাতিসহ ১৫টি মামলা রয়েছে। লিপু ফতুল্লার পিলকুনি এলাকার মৃত শামসুল হকের ছেলে।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ইন্সপেক্টর এনামুল হক জানান, বুধবার লিপুকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাকে নিয়ে রাতে মাদক ও অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান চালাতে দাপা বালুর মাঠ এলাকায় পৌঁছালে লিপুর সহযোগীরা তাকে ছিনিয়ে নিতে পুলিশকে ল্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। তখন আত্মরার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। গোলাগুলির একপর্যায়ে লিপুর সহযোগিরা পালিয়ে যায়। এ সময় লিপুকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। তাকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

ফতুল্লার মাদক সম্রাট লিপু বন্দুক যুদ্ধে নিহত

আপডেট সময় : ০৭:৩০:০২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার : ফতুল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে লিপু (৩০) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে ডিবি পুলিশের ৩ সদস্য। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শুটার গান ও এক রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার দিবাগত গভীর রাতে দাপা বালুর মাঠ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, নিহত লিপু এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসা ও ডাকাতিসহ ১৫টি মামলা রয়েছে। লিপু ফতুল্লার পিলকুনি এলাকার মৃত শামসুল হকের ছেলে।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ইন্সপেক্টর এনামুল হক জানান, বুধবার লিপুকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাকে নিয়ে রাতে মাদক ও অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান চালাতে দাপা বালুর মাঠ এলাকায় পৌঁছালে লিপুর সহযোগীরা তাকে ছিনিয়ে নিতে পুলিশকে ল্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। তখন আত্মরার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। গোলাগুলির একপর্যায়ে লিপুর সহযোগিরা পালিয়ে যায়। এ সময় লিপুকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। তাকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।