নারায়ণগঞ্জ ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত জুন মাসের ১৭ তারিখ কোরবানির ঈদ পালিত হওয়ার সম্ভবনা রিয়াদে নোভ আল আম্মার ইষ্টাবলিস্ট এর আয়োজনে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত রিয়াদে বেগম খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ফতুল্লায় মাদক সন্ত্রাসীরা আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করেছে সুমন নামে ১ মাদক ব্যবসায়ীকে

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:০৮:১৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
  • ২৬০ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার : নারায়ণগঞ্জ শহরের মাসদাইরে মাদক সন্ত্রাসীরা আগুনে পড়িয়ে হত্যা করেছে সুমন (৩২) নামে অপর এক মাদক ব্যবসায়ীকে। পাওনা টাকা চাইতে গিলে প্রথমে তাকে পিটিয়ে আহত করে পরে গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় মাদক সন্ত্রাসীরা। শুক্রবার রাত সাড়ে ১১ টায় ফতুল্লা থানার মাসদাইর পাকাপুল এলাকার সুরুজ্জামালের বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত সুমনকে মুমুর্ষ অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধিন অবস্থায় শনিবার ভোর ৫ টায় সে মারা যায়। নিহত সুমন মাসদাইর এলাকার জলিল মিয়ার ছেলে।
স্থানীয়রা জানায়, মাসদাইর এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা সুমন একজন পাইকারী মাদক বিক্রেতা। সে বিভিন্ন খুচরা মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে মাদক সরবরাহ করে। মাসদাইর পাকাপুল এলাকার সুরুজ্জামালের বাড়ির ভাড়াটিয়া বিপ্লব খুচরা মাদক বিক্রেতা। তার কাছে সুমন মাদক বিক্রির ৭০ হাজার টাকা পায়। শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টায় সুমন মাদকের পাওনা টাকা আনতে বিপ্লবের কাছে যায়। এসময় দুজনের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। একপর্যায়ে বিপ্লব ও তার সহযোগীরা সুমনের উপর হামলা চালিয়ে পিটিয়ে আহত করে।পরে গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়ে চলে যায়। তখন এলাকাবাসী সুমনকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেছিল।

নিহত সুমনের পরিবার জানায়, প্রতিবেশী সোহেল মন্ডল ও বিপ্লবের কাছে ৭০ হাজার করে টাকা পাওনা ছিল সুমনের। কোরবানি ঈদের সময় সুমনের কাছে পাওনা পরিশোধের জন্য বিপ্লব ও সোহেল এক সপ্তাহ সময় চায়। শুক্রবার দিবাগত রাত ১১টায় একটি ফোন পেয়ে বাসা থেকে বের হয়ে যায় সুমন। যাওয়ার সময় তার মাকে জানিয়ে যায় পাওনা টাকা আনতে বিপ্লবের কাছে যাচ্ছে । তার কিছুক্ষণ পরেই সুমনের পরিবার জানতে পারে সুমনের গায়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। মৃত্যুর আগে সুমন তার পরিবারের সদস্যদের কাছে ঘটনার বর্ণনা দিয়েছে বলে জানা গেছে। সুমনের বোন রীতা জানায়, সুমনের দেয়া বর্ণনা মতে এই হত্যার সাথে ৪ জন জড়িত। তারা হলো, বিপ্লব, তার স্ত্রী শায়লা, সুমন মন্ডল ও হোটেল মাসুদ। সুমন তার পাওনা টাকা আনতে গেলে শায়লা, মাসুদ ও বিপ্লব তাকে আটক করে। পরে বিপ্লব সুমনের গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন দেয়। ঘটনার পর থেকেই এই চারজন পলাতক রয়েছে বলেও জানায় রীতা।

ফতুল্লা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মঞ্জুর কাদের জানান, সুমন বিপ্লব নামে এক মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে শুক্রবার রাতে মারামারি হয়েছে। আগুনে ঝলসে যাওয়া সুমনকে রাতেই ঢাক মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শনিবার ভোরে সে মারা যায়। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ নারায়ণগঞ্জে আসার পর মামলা নেয়া হবে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি

ফতুল্লায় মাদক সন্ত্রাসীরা আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করেছে সুমন নামে ১ মাদক ব্যবসায়ীকে

আপডেট সময় : ১১:০৮:১৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

স্টাফ রিপোর্টার : নারায়ণগঞ্জ শহরের মাসদাইরে মাদক সন্ত্রাসীরা আগুনে পড়িয়ে হত্যা করেছে সুমন (৩২) নামে অপর এক মাদক ব্যবসায়ীকে। পাওনা টাকা চাইতে গিলে প্রথমে তাকে পিটিয়ে আহত করে পরে গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় মাদক সন্ত্রাসীরা। শুক্রবার রাত সাড়ে ১১ টায় ফতুল্লা থানার মাসদাইর পাকাপুল এলাকার সুরুজ্জামালের বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত সুমনকে মুমুর্ষ অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধিন অবস্থায় শনিবার ভোর ৫ টায় সে মারা যায়। নিহত সুমন মাসদাইর এলাকার জলিল মিয়ার ছেলে।
স্থানীয়রা জানায়, মাসদাইর এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা সুমন একজন পাইকারী মাদক বিক্রেতা। সে বিভিন্ন খুচরা মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে মাদক সরবরাহ করে। মাসদাইর পাকাপুল এলাকার সুরুজ্জামালের বাড়ির ভাড়াটিয়া বিপ্লব খুচরা মাদক বিক্রেতা। তার কাছে সুমন মাদক বিক্রির ৭০ হাজার টাকা পায়। শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টায় সুমন মাদকের পাওনা টাকা আনতে বিপ্লবের কাছে যায়। এসময় দুজনের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। একপর্যায়ে বিপ্লব ও তার সহযোগীরা সুমনের উপর হামলা চালিয়ে পিটিয়ে আহত করে।পরে গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়ে চলে যায়। তখন এলাকাবাসী সুমনকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেছিল।

নিহত সুমনের পরিবার জানায়, প্রতিবেশী সোহেল মন্ডল ও বিপ্লবের কাছে ৭০ হাজার করে টাকা পাওনা ছিল সুমনের। কোরবানি ঈদের সময় সুমনের কাছে পাওনা পরিশোধের জন্য বিপ্লব ও সোহেল এক সপ্তাহ সময় চায়। শুক্রবার দিবাগত রাত ১১টায় একটি ফোন পেয়ে বাসা থেকে বের হয়ে যায় সুমন। যাওয়ার সময় তার মাকে জানিয়ে যায় পাওনা টাকা আনতে বিপ্লবের কাছে যাচ্ছে । তার কিছুক্ষণ পরেই সুমনের পরিবার জানতে পারে সুমনের গায়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। মৃত্যুর আগে সুমন তার পরিবারের সদস্যদের কাছে ঘটনার বর্ণনা দিয়েছে বলে জানা গেছে। সুমনের বোন রীতা জানায়, সুমনের দেয়া বর্ণনা মতে এই হত্যার সাথে ৪ জন জড়িত। তারা হলো, বিপ্লব, তার স্ত্রী শায়লা, সুমন মন্ডল ও হোটেল মাসুদ। সুমন তার পাওনা টাকা আনতে গেলে শায়লা, মাসুদ ও বিপ্লব তাকে আটক করে। পরে বিপ্লব সুমনের গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন দেয়। ঘটনার পর থেকেই এই চারজন পলাতক রয়েছে বলেও জানায় রীতা।

ফতুল্লা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মঞ্জুর কাদের জানান, সুমন বিপ্লব নামে এক মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে শুক্রবার রাতে মারামারি হয়েছে। আগুনে ঝলসে যাওয়া সুমনকে রাতেই ঢাক মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শনিবার ভোরে সে মারা যায়। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ নারায়ণগঞ্জে আসার পর মামলা নেয়া হবে।