নারায়ণগঞ্জ ০৬:১০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত জুন মাসের ১৭ তারিখ কোরবানির ঈদ পালিত হওয়ার সম্ভবনা রিয়াদে নোভ আল আম্মার ইষ্টাবলিস্ট এর আয়োজনে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত রিয়াদে বেগম খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ফতুল্লা রেল স্টেশন সমস্যায় জর্জারিত

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৩৮:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭
  • ৫৬৩ বার পড়া হয়েছে

ঢাকা-নারায়গঞ্জ রেলওয়ে পথে অন্যতম গুরুত্তপুর্ন স্টেশন হল এই ফতুল্লা রেল স্টেশন। এটি ব্রিটিশ আমলে স্থাপিত হয়েছে যা এই আজো ফতুল্লার মানুষকে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। প্রতিদিন সহস্রাধিক মানুষ এই স্টেশন থেকে যাতায়াত করে, যাদের ভেতর অধিকাংশই নিয়মিত চাকুরীজীবী ও বিভিন্ন স্কুল কলেজ ও ভার্সিটির ছাত্র। কিন্তু এই স্টেশনের মাধ্যমে যাতায়াতরত মানুষের দুর্ভোগ এর শেষ নেই। প্রায় ৫ বছর ধরে নিয়মিত যাতায়াতরত যাত্রী আনোয়ার হোসেন(২৪) বলেন এই স্টেশনে যাত্রী সুবিধা নেই বললেই চলে, এখানে পর্যাপ্ত বসার স্থান নেই এমন কি অফিস টাইমে দাঁড়ানের স্থানও থাকে না। বসার স্থান যেগুলো আছে তা পর্যাপ্ত নয় এবং সামান্য বৃষ্টিতে উপরের টিনের ছিদ্র থেকে পানি পড়ে সিট ভিজে থাকে। অনার্সের প্রথম বর্ষের ছাত্রী রাহিমু মাহিন(২০) অভিযোগ করেন স্টেশনে কোন মহিলা পাবলিক টয়লেট বা ওয়াশরুম নেই ,এতে করে দুর হতে আগত বা পথের যাত্রীদের ভোগান্তিতে পড়তে হয়। জনতা ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার জনাব শাহাবুদ্দিন (৫০) তিনিও সময় বাঁচানোর জন্য ট্রেনের পথ ব্যাবহার করেন, কিন্তু এই রুটের অতিপুরাতন অভিযোগ ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় এ তিনি বিরক্ত। তিনি বলেন সময়ের মূল্য বুঝা উচিত সংশ্লিষ্টদের ,যাত্রীদের অনেক সময় রেল কর্তৃপক্ষের খামখেয়ালিতে নস্ট হয়। এছাড়া তিনি ট্রেনের বগি বাড়ানোর পরামর্শ দেন।এসব অভিযোগ নিয়ে স্টেশন মাস্টারের কাছে জানতে চাইলে স্টেশন মাষ্টার জিয়াউল হক (৬০)+ বলেন রেল ৮ টি ডিভিশন মিলে কাজ করে , স্টেশনের কাঠামোগত সমস্যা আমাদের দায়িত্বে পরে না, সেটি DEN 1&2 তাদের দায়িত্ব, আর ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় এর জন্য ঢাকার স্টেশন মাস্টারের অব্যাবস্থাপনা বলে অভিহিত করলেন, তিনি আর বলেন অভিযোগ দিয়া হয়েছে অনেক, বেসরকারী বিধায় তা শোনার কেউ নেই।  এখন স্থানীয় যাত্রীদের মনে প্রশ্ন আর কত ভোগান্তি পোহালে স্টেশন যাত্রী সেবার আলোর মুখ দেখবে ?

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি

ফতুল্লা রেল স্টেশন সমস্যায় জর্জারিত

আপডেট সময় : ১২:৩৮:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭

ঢাকা-নারায়গঞ্জ রেলওয়ে পথে অন্যতম গুরুত্তপুর্ন স্টেশন হল এই ফতুল্লা রেল স্টেশন। এটি ব্রিটিশ আমলে স্থাপিত হয়েছে যা এই আজো ফতুল্লার মানুষকে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। প্রতিদিন সহস্রাধিক মানুষ এই স্টেশন থেকে যাতায়াত করে, যাদের ভেতর অধিকাংশই নিয়মিত চাকুরীজীবী ও বিভিন্ন স্কুল কলেজ ও ভার্সিটির ছাত্র। কিন্তু এই স্টেশনের মাধ্যমে যাতায়াতরত মানুষের দুর্ভোগ এর শেষ নেই। প্রায় ৫ বছর ধরে নিয়মিত যাতায়াতরত যাত্রী আনোয়ার হোসেন(২৪) বলেন এই স্টেশনে যাত্রী সুবিধা নেই বললেই চলে, এখানে পর্যাপ্ত বসার স্থান নেই এমন কি অফিস টাইমে দাঁড়ানের স্থানও থাকে না। বসার স্থান যেগুলো আছে তা পর্যাপ্ত নয় এবং সামান্য বৃষ্টিতে উপরের টিনের ছিদ্র থেকে পানি পড়ে সিট ভিজে থাকে। অনার্সের প্রথম বর্ষের ছাত্রী রাহিমু মাহিন(২০) অভিযোগ করেন স্টেশনে কোন মহিলা পাবলিক টয়লেট বা ওয়াশরুম নেই ,এতে করে দুর হতে আগত বা পথের যাত্রীদের ভোগান্তিতে পড়তে হয়। জনতা ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার জনাব শাহাবুদ্দিন (৫০) তিনিও সময় বাঁচানোর জন্য ট্রেনের পথ ব্যাবহার করেন, কিন্তু এই রুটের অতিপুরাতন অভিযোগ ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় এ তিনি বিরক্ত। তিনি বলেন সময়ের মূল্য বুঝা উচিত সংশ্লিষ্টদের ,যাত্রীদের অনেক সময় রেল কর্তৃপক্ষের খামখেয়ালিতে নস্ট হয়। এছাড়া তিনি ট্রেনের বগি বাড়ানোর পরামর্শ দেন।এসব অভিযোগ নিয়ে স্টেশন মাস্টারের কাছে জানতে চাইলে স্টেশন মাষ্টার জিয়াউল হক (৬০)+ বলেন রেল ৮ টি ডিভিশন মিলে কাজ করে , স্টেশনের কাঠামোগত সমস্যা আমাদের দায়িত্বে পরে না, সেটি DEN 1&2 তাদের দায়িত্ব, আর ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় এর জন্য ঢাকার স্টেশন মাস্টারের অব্যাবস্থাপনা বলে অভিহিত করলেন, তিনি আর বলেন অভিযোগ দিয়া হয়েছে অনেক, বেসরকারী বিধায় তা শোনার কেউ নেই।  এখন স্থানীয় যাত্রীদের মনে প্রশ্ন আর কত ভোগান্তি পোহালে স্টেশন যাত্রী সেবার আলোর মুখ দেখবে ?