নারায়ণগঞ্জ ১১:১০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত আদমজী ইপিজেডকে অশান্ত করছে জনপ্রতিনিধিরা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে মহিলা লীগ নেত্রীর শুভেচ্ছা বিনিময় না’গঞ্জ কারাগারে হাজতীর মৃত্যু ফতুল্লায় চোরাইকৃত ট্যাংকলড়ী উদ্ধার আড়াইহাজারের মিথিলা টেক্সটাইল ঘুরে গেলেন ৮ দেশের রাষ্ট্রদূতসহ ১৮ দেশের প্রতিনিধি সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে কাউন্সিলর ইকবাল হোসেনের মতবিনিময় ফতুল্লা ব্লাড ডোনার্সের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ শিক্ষা সিলেবাস বাতিলের দাবিতে খেলাফত মজলিসের বিক্ষোভ মিছিল সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শহরে নারী সমাবেশ ও মিছিল

সিদ্ধিরগঞ্জের ভূমীপল্লীতে ১১ ভবন মালিককে দশ লাখ টাকা জরিমানা

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৩৬:০৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ অগাস্ট ২০২১
  • ৩১ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি :সিদ্ধিরগঞ্জের আটি ভূমিপল্লী এলাকায় অভিযান চালিয়েছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) এর ভ্রাম্যমান আদালত। অভিযানে এগারোটি বহুতল ভবন মালিককে ১০ লাখ টাকা জরিমানা ও পাঁচটি ভবনের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে । বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) দুপুর একটা থেকে বিকেল তিনটা পর্যন্ত রাজউকের নিজস্ব নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আল মামুন এর নেতৃত্বে এঅভিযান চালানো হয়।

জানা গেছে, অটি এলাকায় পরিত্যাক্ত সরকারি প্রায় কয়েক একর জমি নিজেদের নামে কাগজপত্র করে নেয় ভূমিমন্ত্রনালয়ের কর্মকর্তারা। সেখানে প্লট করে গড়ে তুলা হয় ভূমীপল্লী। এখানে প্রায় দেড়শতাধিক বিলাসবহুল বহুতল ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। নির্মাণাধিন রয়েছে আরো অনেক ভবন। অধিকাংশই ভবনের মালিক সরকারি উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা। রাজউক সূত্র জানায়, প্রতিটি ভবনই নির্মাণ করা হয়েছে ইমরত বিধিমালা অমান্য করে। নকশা অনুযায়ী যে পরিমাণ জায়গা ছাড়ার কথা তা ছাড়েনি জমির মালিকরা। তাছাড়া অনেকই ছয় তলার অনুমোদন নিয়ে করেছে নয় তলা।

এবিষয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আল মামুন গণমাধ্যমে কোন বক্তব্য দিতে রাজি হননি। তবে রাজউকের অথরাইজড অফিসার শেখ মুহাম্মদ এহসানুল ইমাম বলেন, ইমারত বিধিমালা আইনে এগারোটি ভবন মালিককে জরিমানা করা হয়েছে। নগদ আদায় হয়েছে দশ লাখ টাকা। এছাড়া তিনি কিছু বলেননি।

তবে ইমারাত বিধিমালা অমান্য করে ভবন নির্মাণের কোন নোটিশ না দিয়ে আকস্মিক অভিযান করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ভবন মালিকরা। হঠাৎ এসে এক থেকে দুই লাখ টাকা করে জরিমানা করায় তাৎক্ষনিক পরিশোধ করা সম্ভব হয়নি অনেক মালিকের। বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করায় ভবনের ভাড়াটিয়ারা পড়েছে দুর্ভোগে। দুই ভবন মালিককে দুই লাখ করে ৪ লাখ আর ছয় ভবন মালিককে এক লাখ করে ৬ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এক ভবন মালিক জরিমানার টাকা দিতে পারেননি বলে জানা গেছে।
অভিযানে রাজউক জোন আট নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক অফিসের বর্মকর্তা ও বিপুল সংখ্যক পুলিশ উপস্থিত ছিলেন।

 

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত

সিদ্ধিরগঞ্জের ভূমীপল্লীতে ১১ ভবন মালিককে দশ লাখ টাকা জরিমানা

আপডেট সময় : ১০:৩৬:০৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ অগাস্ট ২০২১

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি :সিদ্ধিরগঞ্জের আটি ভূমিপল্লী এলাকায় অভিযান চালিয়েছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) এর ভ্রাম্যমান আদালত। অভিযানে এগারোটি বহুতল ভবন মালিককে ১০ লাখ টাকা জরিমানা ও পাঁচটি ভবনের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে । বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) দুপুর একটা থেকে বিকেল তিনটা পর্যন্ত রাজউকের নিজস্ব নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আল মামুন এর নেতৃত্বে এঅভিযান চালানো হয়।

জানা গেছে, অটি এলাকায় পরিত্যাক্ত সরকারি প্রায় কয়েক একর জমি নিজেদের নামে কাগজপত্র করে নেয় ভূমিমন্ত্রনালয়ের কর্মকর্তারা। সেখানে প্লট করে গড়ে তুলা হয় ভূমীপল্লী। এখানে প্রায় দেড়শতাধিক বিলাসবহুল বহুতল ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। নির্মাণাধিন রয়েছে আরো অনেক ভবন। অধিকাংশই ভবনের মালিক সরকারি উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা। রাজউক সূত্র জানায়, প্রতিটি ভবনই নির্মাণ করা হয়েছে ইমরত বিধিমালা অমান্য করে। নকশা অনুযায়ী যে পরিমাণ জায়গা ছাড়ার কথা তা ছাড়েনি জমির মালিকরা। তাছাড়া অনেকই ছয় তলার অনুমোদন নিয়ে করেছে নয় তলা।

এবিষয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আল মামুন গণমাধ্যমে কোন বক্তব্য দিতে রাজি হননি। তবে রাজউকের অথরাইজড অফিসার শেখ মুহাম্মদ এহসানুল ইমাম বলেন, ইমারত বিধিমালা আইনে এগারোটি ভবন মালিককে জরিমানা করা হয়েছে। নগদ আদায় হয়েছে দশ লাখ টাকা। এছাড়া তিনি কিছু বলেননি।

তবে ইমারাত বিধিমালা অমান্য করে ভবন নির্মাণের কোন নোটিশ না দিয়ে আকস্মিক অভিযান করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ভবন মালিকরা। হঠাৎ এসে এক থেকে দুই লাখ টাকা করে জরিমানা করায় তাৎক্ষনিক পরিশোধ করা সম্ভব হয়নি অনেক মালিকের। বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করায় ভবনের ভাড়াটিয়ারা পড়েছে দুর্ভোগে। দুই ভবন মালিককে দুই লাখ করে ৪ লাখ আর ছয় ভবন মালিককে এক লাখ করে ৬ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এক ভবন মালিক জরিমানার টাকা দিতে পারেননি বলে জানা গেছে।
অভিযানে রাজউক জোন আট নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক অফিসের বর্মকর্তা ও বিপুল সংখ্যক পুলিশ উপস্থিত ছিলেন।