নারায়ণগঞ্জ ১১:০৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত আদমজী ইপিজেডকে অশান্ত করছে জনপ্রতিনিধিরা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে মহিলা লীগ নেত্রীর শুভেচ্ছা বিনিময় না’গঞ্জ কারাগারে হাজতীর মৃত্যু ফতুল্লায় চোরাইকৃত ট্যাংকলড়ী উদ্ধার আড়াইহাজারের মিথিলা টেক্সটাইল ঘুরে গেলেন ৮ দেশের রাষ্ট্রদূতসহ ১৮ দেশের প্রতিনিধি সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে কাউন্সিলর ইকবাল হোসেনের মতবিনিময় ফতুল্লা ব্লাড ডোনার্সের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ শিক্ষা সিলেবাস বাতিলের দাবিতে খেলাফত মজলিসের বিক্ষোভ মিছিল সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শহরে নারী সমাবেশ ও মিছিল

গণটিকা নিয়ে অব্যবস্থাপনা ও বিশৃঙ্খলা বন্ধ করুন : বাংলাদেশ ন্যাপ

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:২৩:২২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১১ অগাস্ট ২০২১
  • ৪৫ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি : গণটিকা নিয়ে সমন্বয়হীনতার কারণে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এতে জনগণকে চরম ভোগান্তি ও ঝুঁকিপূর্ণ পরিস্থিতির মুখে পড়তে হচ্ছে। গণটিকা কার্যক্রমে অব্যবস্থাপনা ও বিশৃঙ্খলা বন্ধ, হাসপাতালগুলোতে লোকবল ও চিকিৎসা সামগ্রীর সংকট দূর করার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ।

বুধবার (১১ আগষ্ট) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে পার্টির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এ আহ্বান জানান।

তারা বলেন, গণটিকা দান কর্মসূচিতে দেশে বিভিন্ন স্থানে অব্যবস্থাপনা ও বিশৃঙ্খলার যে চিত্র পরিলক্ষিত হচ্ছে তাতে মনে হচ্ছে এ বিষয়ে যথাযথ প্রস্তুতির যথেষ্ট অভাব রয়েছে। টিকা দিতে গিয়ে মানুষ অবর্ননীয় দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। কেউ কেই দু’ তিন দিন কেন্দ্রে গিয়েও টিকা পাচ্ছে না। গণটিকা দান কর্মসূচির ক্ষেত্রে বিরাজমান এসব অব্যবস্থাপনা ও বিশৃঙ্খলা দূর করে অবিলম্বে সকল নাগরিকের জন্য মানসম্পন্ন করোনা টিকা নিশ্চিত করা সময়ের দাবী।

নেতৃদ্বয় বলেন, অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে সরকার জনগণের জীবন নিয়ে তামাশা করছে। সরকারি হিসাব মতে, যেখানে ২৬ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন প্রয়োজন সেখানে তারা সোয়া কোটি ডোজ টিকা নিয়ে কর্মসূচির নামের আগে ‘গণ’ জুড়ে দিয়েছে। পরিস্থিতি প্রমান করছে টিকা ও গণটিকা নিয়ে সরকারের কোনও পরিকল্পনা নেই। তাই, অপরিকল্পিত এই গণটিকা কর্মসূচি বুমেরাং হতে পারে।

তারা বলেন, গণটিকা কর্মসূচিতে স্বাস্থ্যবিধি পালনের কোন বালাই নাই, ফলে আরও ভয়াবহ রূপে ছড়িয়ে পড়তে পারে। অনেক অসুস্থ ও বৃদ্ধ মানুষ লাইনে দাঁড়িয়ে রোদে পুড়ে, বৃষ্টিতে ভিজে নানা হয়রানির শিকার হয়েও টিকা পায়নি। আবার প্রয়োজন অনুযায়ী টিকা সংগ্রহ করতে না পারলে, গণটিকা কর্মসূচি আবারও মুখ থুবড়ে পড়তে পারে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত

গণটিকা নিয়ে অব্যবস্থাপনা ও বিশৃঙ্খলা বন্ধ করুন : বাংলাদেশ ন্যাপ

আপডেট সময় : ০৬:২৩:২২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১১ অগাস্ট ২০২১

বিশেষ প্রতিনিধি : গণটিকা নিয়ে সমন্বয়হীনতার কারণে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এতে জনগণকে চরম ভোগান্তি ও ঝুঁকিপূর্ণ পরিস্থিতির মুখে পড়তে হচ্ছে। গণটিকা কার্যক্রমে অব্যবস্থাপনা ও বিশৃঙ্খলা বন্ধ, হাসপাতালগুলোতে লোকবল ও চিকিৎসা সামগ্রীর সংকট দূর করার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ।

বুধবার (১১ আগষ্ট) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে পার্টির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এ আহ্বান জানান।

তারা বলেন, গণটিকা দান কর্মসূচিতে দেশে বিভিন্ন স্থানে অব্যবস্থাপনা ও বিশৃঙ্খলার যে চিত্র পরিলক্ষিত হচ্ছে তাতে মনে হচ্ছে এ বিষয়ে যথাযথ প্রস্তুতির যথেষ্ট অভাব রয়েছে। টিকা দিতে গিয়ে মানুষ অবর্ননীয় দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। কেউ কেই দু’ তিন দিন কেন্দ্রে গিয়েও টিকা পাচ্ছে না। গণটিকা দান কর্মসূচির ক্ষেত্রে বিরাজমান এসব অব্যবস্থাপনা ও বিশৃঙ্খলা দূর করে অবিলম্বে সকল নাগরিকের জন্য মানসম্পন্ন করোনা টিকা নিশ্চিত করা সময়ের দাবী।

নেতৃদ্বয় বলেন, অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে সরকার জনগণের জীবন নিয়ে তামাশা করছে। সরকারি হিসাব মতে, যেখানে ২৬ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন প্রয়োজন সেখানে তারা সোয়া কোটি ডোজ টিকা নিয়ে কর্মসূচির নামের আগে ‘গণ’ জুড়ে দিয়েছে। পরিস্থিতি প্রমান করছে টিকা ও গণটিকা নিয়ে সরকারের কোনও পরিকল্পনা নেই। তাই, অপরিকল্পিত এই গণটিকা কর্মসূচি বুমেরাং হতে পারে।

তারা বলেন, গণটিকা কর্মসূচিতে স্বাস্থ্যবিধি পালনের কোন বালাই নাই, ফলে আরও ভয়াবহ রূপে ছড়িয়ে পড়তে পারে। অনেক অসুস্থ ও বৃদ্ধ মানুষ লাইনে দাঁড়িয়ে রোদে পুড়ে, বৃষ্টিতে ভিজে নানা হয়রানির শিকার হয়েও টিকা পায়নি। আবার প্রয়োজন অনুযায়ী টিকা সংগ্রহ করতে না পারলে, গণটিকা কর্মসূচি আবারও মুখ থুবড়ে পড়তে পারে।