নারায়ণগঞ্জ ০৯:৩৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বন্দরে লকডাউনের মধ্যে জমি দখল করে বাউন্ডারি, দেয়াল নির্মাণ কাজে পুলিশের বাধা

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:১৩:৪১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২ জুলাই ২০২১
  • ৫০ বার পড়া হয়েছে

বন্দর প্রতিনিধি :

নারায়ণগঞ্জে বন্দরে কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দেলোয়ার প্রধানের ভায়রা ভাই আবু বকর এর নেতৃত্বে অসহায় রবি হোসেন গংদের জমিতে আদালতের নির্দেশ অমান্য করে জোরপূর্বক বাউন্ডারি দেয়াল নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) কলাগাছিয়া ইউনিয়ন এর হাজরাদি গ্রামের মৃত আব্দুল আলীম এর পুত্রদের ১১ শতাংশ জমি জোরপূর্বক দখল করে বাউন্ডারি দেয়াল নির্মাণ করার পায়তারায় করছিলো চেয়ারম্যান দেলোয়ার প্রধান এর ভায়রা আবু বকর এর নেতৃত্বে স্থানীয় সন্ত্রাসী ফজলুল করিম সহ বিএনপি- যুবদলের প্রায় অর্ধশতাধিক ক্যাডাররা৷ এসময় বন্দর থানা থেকে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছলে সন্ত্রাসীরা কাজ বন্ধ করে দৌড়ে পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে আবু বকরের মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার ব্যবহৃত নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়।

উল্লেখিত ভূমি প্রসঙ্গে অসহায় রবি হোসেন জানান, আমার পিতা আব্দুল আলীম খালেক ও মালেক এর নিকট হইতে সাফকবলা দলিল মূলে ১১ শতাংশ জায়গা ক্রয় করে, পরবর্তীতে আমাদের পাঁচ ভাইয়ের নামে আমার পিতা হেবা করে দিয়ে যায়। কিন্তু এই করোনাকালীন সময়ে যেখানে সরকারের বিধি-নিষেধ কঠিনভাবে আরোপ করা হয়েছে তা অমান্য করে চেয়ারম্যানের আত্মীয় আবু বকর এর নির্দেশনায় সন্ত্রাসী ফজলুল করিম ও সিফাত গংরা আমাদের জায়গায় জোরপূর্বক দেয়াল নির্মাণের পাঁয়তারা করছে। আমি আমার পরিবার পরিজন নিয়ে এখন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি৷ আমি এই বিষয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

বন্দরে লকডাউনের মধ্যে জমি দখল করে বাউন্ডারি, দেয়াল নির্মাণ কাজে পুলিশের বাধা

আপডেট সময় : ০৮:১৩:৪১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২ জুলাই ২০২১

বন্দর প্রতিনিধি :

নারায়ণগঞ্জে বন্দরে কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দেলোয়ার প্রধানের ভায়রা ভাই আবু বকর এর নেতৃত্বে অসহায় রবি হোসেন গংদের জমিতে আদালতের নির্দেশ অমান্য করে জোরপূর্বক বাউন্ডারি দেয়াল নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) কলাগাছিয়া ইউনিয়ন এর হাজরাদি গ্রামের মৃত আব্দুল আলীম এর পুত্রদের ১১ শতাংশ জমি জোরপূর্বক দখল করে বাউন্ডারি দেয়াল নির্মাণ করার পায়তারায় করছিলো চেয়ারম্যান দেলোয়ার প্রধান এর ভায়রা আবু বকর এর নেতৃত্বে স্থানীয় সন্ত্রাসী ফজলুল করিম সহ বিএনপি- যুবদলের প্রায় অর্ধশতাধিক ক্যাডাররা৷ এসময় বন্দর থানা থেকে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছলে সন্ত্রাসীরা কাজ বন্ধ করে দৌড়ে পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে আবু বকরের মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার ব্যবহৃত নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়।

উল্লেখিত ভূমি প্রসঙ্গে অসহায় রবি হোসেন জানান, আমার পিতা আব্দুল আলীম খালেক ও মালেক এর নিকট হইতে সাফকবলা দলিল মূলে ১১ শতাংশ জায়গা ক্রয় করে, পরবর্তীতে আমাদের পাঁচ ভাইয়ের নামে আমার পিতা হেবা করে দিয়ে যায়। কিন্তু এই করোনাকালীন সময়ে যেখানে সরকারের বিধি-নিষেধ কঠিনভাবে আরোপ করা হয়েছে তা অমান্য করে চেয়ারম্যানের আত্মীয় আবু বকর এর নির্দেশনায় সন্ত্রাসী ফজলুল করিম ও সিফাত গংরা আমাদের জায়গায় জোরপূর্বক দেয়াল নির্মাণের পাঁয়তারা করছে। আমি আমার পরিবার পরিজন নিয়ে এখন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি৷ আমি এই বিষয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।