নারায়ণগঞ্জ ১১:০১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত আদমজী ইপিজেডকে অশান্ত করছে জনপ্রতিনিধিরা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে মহিলা লীগ নেত্রীর শুভেচ্ছা বিনিময় না’গঞ্জ কারাগারে হাজতীর মৃত্যু ফতুল্লায় চোরাইকৃত ট্যাংকলড়ী উদ্ধার আড়াইহাজারের মিথিলা টেক্সটাইল ঘুরে গেলেন ৮ দেশের রাষ্ট্রদূতসহ ১৮ দেশের প্রতিনিধি সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে কাউন্সিলর ইকবাল হোসেনের মতবিনিময় ফতুল্লা ব্লাড ডোনার্সের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ শিক্ষা সিলেবাস বাতিলের দাবিতে খেলাফত মজলিসের বিক্ষোভ মিছিল সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শহরে নারী সমাবেশ ও মিছিল

ফতুল্লা পূর্ব ইসদাইরে কিশোর গ্যাংয়ের উৎপাত, প্রশাসনের নজরদারী প্রয়োজন

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:০০:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ এপ্রিল ২০২১
  • ১০২ বার পড়া হয়েছে

ফতুল্লা প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লা থানাধীন পূর্ব ইসদাইর এলাকায় কিশোর অপরাধীদের দৌরাত্ম্য বৃদ্ধি পাচ্ছে দিনে দিনে। আইন ও সমাজিক নিয়মের তোয়াক্কা না করে বীরদর্পে অপরাধমূলক কাজ করে যাচ্ছে প্রকাশ্যে। এতে সাধারন মানুষের জীবন ও সম্পদ হুমকির মুখে রয়েছে। প্রশাসনে নজরদারী ও তৎপরতার অভাবে তাদের থামানো যাচ্ছে না। স্থানীয়দের দাবী এখন প্রশাসনের ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরে কিছু উঠতি বয়সের কিশোর নানা অপরাধমূলক কাজ করে যাচ্ছে বীরত্বের সাথে। সমাজের কাউকে সন্মান করা তো দুরের কথা বরং উল্টো তাদের চোখ রাঙ্গায়। তারা এতটাই বেয়াদব যে কারো সাথে খারাপ আচরনসহ গায়ে হাত তুলতেও দ্বিধাবোধ করে না। তাদের মারমুখী আচরনে ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পর্যন্ত পায় না।

এলাকাবাসী বলেন, তারা সরকার দলীয় নেতাদের নাম ব্যবহার করে নিজেদের দলীয় লোক হিসেবে পরিচয় দিয়ে থাকে। এমনকি সমাজের বিচারক যারা, তারা তাদের এ সকল অনৈতিক ও অসামাজিক কাজ দেখেও না দেখার ভান করে, জেনেও কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না। তাই সাধারন মানুষ কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে ভয়ে বলার কোন সাহস পায় না। তাদের অনৈতিক কাজে বাধা দিতে গিয়ে অনেককেই তাদের অশোভনীয় আচরনের শিকার হতে হয়েছে বলে এমন কথাও শোনা যায়।
পূর্ব ইসদাইরের পাউলা গামের্টস এর সামনে হাজী আলমচান সড়ক এ সম্প্রতি তুচ্ছ কথাকে কেন্দ্র করে রাতের বেলায় এক অসহায় মুদি দোকানী ও স্বর্ণ কর্মকারকে মারধর করে।

এ এলাকার কিশোর গ্যাংরা দিনে রাতে নেশা সেবন করে মানুষ মারধরসহ নানাভাবে নাজেহাল করে আসছে। এ সংঘবদ্ধ চক্রের ২০/২৫ জনের কিশোর রয়েছে যারা বেপরোয়াভাবে চলাফেরা করে সমাজকে নষ্ট করার চেষ্টা করছে। স্হানীয় এলাকাবাসী তাদের ব্যাপারে প্রশাসনের নজরদারি কামনা করেন। সেই সাথে তাদের অপরাধের বিষয়ে আইনী ব্যবস্হা গ্রহন করার জোর দাবী জানান।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত

ফতুল্লা পূর্ব ইসদাইরে কিশোর গ্যাংয়ের উৎপাত, প্রশাসনের নজরদারী প্রয়োজন

আপডেট সময় : ০২:০০:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ এপ্রিল ২০২১

ফতুল্লা প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লা থানাধীন পূর্ব ইসদাইর এলাকায় কিশোর অপরাধীদের দৌরাত্ম্য বৃদ্ধি পাচ্ছে দিনে দিনে। আইন ও সমাজিক নিয়মের তোয়াক্কা না করে বীরদর্পে অপরাধমূলক কাজ করে যাচ্ছে প্রকাশ্যে। এতে সাধারন মানুষের জীবন ও সম্পদ হুমকির মুখে রয়েছে। প্রশাসনে নজরদারী ও তৎপরতার অভাবে তাদের থামানো যাচ্ছে না। স্থানীয়দের দাবী এখন প্রশাসনের ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরে কিছু উঠতি বয়সের কিশোর নানা অপরাধমূলক কাজ করে যাচ্ছে বীরত্বের সাথে। সমাজের কাউকে সন্মান করা তো দুরের কথা বরং উল্টো তাদের চোখ রাঙ্গায়। তারা এতটাই বেয়াদব যে কারো সাথে খারাপ আচরনসহ গায়ে হাত তুলতেও দ্বিধাবোধ করে না। তাদের মারমুখী আচরনে ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পর্যন্ত পায় না।

এলাকাবাসী বলেন, তারা সরকার দলীয় নেতাদের নাম ব্যবহার করে নিজেদের দলীয় লোক হিসেবে পরিচয় দিয়ে থাকে। এমনকি সমাজের বিচারক যারা, তারা তাদের এ সকল অনৈতিক ও অসামাজিক কাজ দেখেও না দেখার ভান করে, জেনেও কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না। তাই সাধারন মানুষ কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে ভয়ে বলার কোন সাহস পায় না। তাদের অনৈতিক কাজে বাধা দিতে গিয়ে অনেককেই তাদের অশোভনীয় আচরনের শিকার হতে হয়েছে বলে এমন কথাও শোনা যায়।
পূর্ব ইসদাইরের পাউলা গামের্টস এর সামনে হাজী আলমচান সড়ক এ সম্প্রতি তুচ্ছ কথাকে কেন্দ্র করে রাতের বেলায় এক অসহায় মুদি দোকানী ও স্বর্ণ কর্মকারকে মারধর করে।

এ এলাকার কিশোর গ্যাংরা দিনে রাতে নেশা সেবন করে মানুষ মারধরসহ নানাভাবে নাজেহাল করে আসছে। এ সংঘবদ্ধ চক্রের ২০/২৫ জনের কিশোর রয়েছে যারা বেপরোয়াভাবে চলাফেরা করে সমাজকে নষ্ট করার চেষ্টা করছে। স্হানীয় এলাকাবাসী তাদের ব্যাপারে প্রশাসনের নজরদারি কামনা করেন। সেই সাথে তাদের অপরাধের বিষয়ে আইনী ব্যবস্হা গ্রহন করার জোর দাবী জানান।