নারায়ণগঞ্জ ১২:২০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
সোনারগাঁওয়ে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত সিদ্ধিরগঞ্জে ৪টি কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হারামের পয়সা ব্যারামে খায় ,আমি হারাম খাই না খেতেও দেই না-সেলিম ওসমান ভূমি সম্পর্কিত সমস্যা থাকলে গণশুনানিতে আসার আহবান- না.গঞ্জে জেলা  প্রশাসক সিদ্ধিরগঞ্জে গ্যাসের দাবিতে ঢাকা-চটগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ সোনারগাঁওয়ে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০২৪ অনুষ্ঠিত র‌্যাব পরিচয়ে ৫২ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেফতার-৪ সিদ্ধিরগঞ্জে কাতার প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি চিকিৎসার নামে কোনো প্রকার হয়রানি মেনে নেওয়া হবে না ঃ স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতীর পোশাক শ্রমিক নিহত

ফতুল্লা পূর্ব ইসদাইরে কিশোর গ্যাংয়ের উৎপাত, প্রশাসনের নজরদারী প্রয়োজন

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:০০:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ এপ্রিল ২০২১
  • ২২৪ বার পড়া হয়েছে

ফতুল্লা প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লা থানাধীন পূর্ব ইসদাইর এলাকায় কিশোর অপরাধীদের দৌরাত্ম্য বৃদ্ধি পাচ্ছে দিনে দিনে। আইন ও সমাজিক নিয়মের তোয়াক্কা না করে বীরদর্পে অপরাধমূলক কাজ করে যাচ্ছে প্রকাশ্যে। এতে সাধারন মানুষের জীবন ও সম্পদ হুমকির মুখে রয়েছে। প্রশাসনে নজরদারী ও তৎপরতার অভাবে তাদের থামানো যাচ্ছে না। স্থানীয়দের দাবী এখন প্রশাসনের ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরে কিছু উঠতি বয়সের কিশোর নানা অপরাধমূলক কাজ করে যাচ্ছে বীরত্বের সাথে। সমাজের কাউকে সন্মান করা তো দুরের কথা বরং উল্টো তাদের চোখ রাঙ্গায়। তারা এতটাই বেয়াদব যে কারো সাথে খারাপ আচরনসহ গায়ে হাত তুলতেও দ্বিধাবোধ করে না। তাদের মারমুখী আচরনে ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পর্যন্ত পায় না।

এলাকাবাসী বলেন, তারা সরকার দলীয় নেতাদের নাম ব্যবহার করে নিজেদের দলীয় লোক হিসেবে পরিচয় দিয়ে থাকে। এমনকি সমাজের বিচারক যারা, তারা তাদের এ সকল অনৈতিক ও অসামাজিক কাজ দেখেও না দেখার ভান করে, জেনেও কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না। তাই সাধারন মানুষ কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে ভয়ে বলার কোন সাহস পায় না। তাদের অনৈতিক কাজে বাধা দিতে গিয়ে অনেককেই তাদের অশোভনীয় আচরনের শিকার হতে হয়েছে বলে এমন কথাও শোনা যায়।
পূর্ব ইসদাইরের পাউলা গামের্টস এর সামনে হাজী আলমচান সড়ক এ সম্প্রতি তুচ্ছ কথাকে কেন্দ্র করে রাতের বেলায় এক অসহায় মুদি দোকানী ও স্বর্ণ কর্মকারকে মারধর করে।

এ এলাকার কিশোর গ্যাংরা দিনে রাতে নেশা সেবন করে মানুষ মারধরসহ নানাভাবে নাজেহাল করে আসছে। এ সংঘবদ্ধ চক্রের ২০/২৫ জনের কিশোর রয়েছে যারা বেপরোয়াভাবে চলাফেরা করে সমাজকে নষ্ট করার চেষ্টা করছে। স্হানীয় এলাকাবাসী তাদের ব্যাপারে প্রশাসনের নজরদারি কামনা করেন। সেই সাথে তাদের অপরাধের বিষয়ে আইনী ব্যবস্হা গ্রহন করার জোর দাবী জানান।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সোনারগাঁওয়ে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

ফতুল্লা পূর্ব ইসদাইরে কিশোর গ্যাংয়ের উৎপাত, প্রশাসনের নজরদারী প্রয়োজন

আপডেট সময় : ০২:০০:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ এপ্রিল ২০২১

ফতুল্লা প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লা থানাধীন পূর্ব ইসদাইর এলাকায় কিশোর অপরাধীদের দৌরাত্ম্য বৃদ্ধি পাচ্ছে দিনে দিনে। আইন ও সমাজিক নিয়মের তোয়াক্কা না করে বীরদর্পে অপরাধমূলক কাজ করে যাচ্ছে প্রকাশ্যে। এতে সাধারন মানুষের জীবন ও সম্পদ হুমকির মুখে রয়েছে। প্রশাসনে নজরদারী ও তৎপরতার অভাবে তাদের থামানো যাচ্ছে না। স্থানীয়দের দাবী এখন প্রশাসনের ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরে কিছু উঠতি বয়সের কিশোর নানা অপরাধমূলক কাজ করে যাচ্ছে বীরত্বের সাথে। সমাজের কাউকে সন্মান করা তো দুরের কথা বরং উল্টো তাদের চোখ রাঙ্গায়। তারা এতটাই বেয়াদব যে কারো সাথে খারাপ আচরনসহ গায়ে হাত তুলতেও দ্বিধাবোধ করে না। তাদের মারমুখী আচরনে ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পর্যন্ত পায় না।

এলাকাবাসী বলেন, তারা সরকার দলীয় নেতাদের নাম ব্যবহার করে নিজেদের দলীয় লোক হিসেবে পরিচয় দিয়ে থাকে। এমনকি সমাজের বিচারক যারা, তারা তাদের এ সকল অনৈতিক ও অসামাজিক কাজ দেখেও না দেখার ভান করে, জেনেও কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না। তাই সাধারন মানুষ কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে ভয়ে বলার কোন সাহস পায় না। তাদের অনৈতিক কাজে বাধা দিতে গিয়ে অনেককেই তাদের অশোভনীয় আচরনের শিকার হতে হয়েছে বলে এমন কথাও শোনা যায়।
পূর্ব ইসদাইরের পাউলা গামের্টস এর সামনে হাজী আলমচান সড়ক এ সম্প্রতি তুচ্ছ কথাকে কেন্দ্র করে রাতের বেলায় এক অসহায় মুদি দোকানী ও স্বর্ণ কর্মকারকে মারধর করে।

এ এলাকার কিশোর গ্যাংরা দিনে রাতে নেশা সেবন করে মানুষ মারধরসহ নানাভাবে নাজেহাল করে আসছে। এ সংঘবদ্ধ চক্রের ২০/২৫ জনের কিশোর রয়েছে যারা বেপরোয়াভাবে চলাফেরা করে সমাজকে নষ্ট করার চেষ্টা করছে। স্হানীয় এলাকাবাসী তাদের ব্যাপারে প্রশাসনের নজরদারি কামনা করেন। সেই সাথে তাদের অপরাধের বিষয়ে আইনী ব্যবস্হা গ্রহন করার জোর দাবী জানান।