নারায়ণগঞ্জ ১২:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত জুন মাসের ১৭ তারিখ কোরবানির ঈদ পালিত হওয়ার সম্ভবনা রিয়াদে নোভ আল আম্মার ইষ্টাবলিস্ট এর আয়োজনে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত রিয়াদে বেগম খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

বন্দরে মদনগঞ্জ ভুমি অফিস ঘেঁষেই ড্রেজার ব্যবসায়ীদের পাইপ, রহস্যজনক কারণে ব্যবস্থা নেয়নি প্রশাসন!

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৩১:১৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মার্চ ২০২১
  • ১১৯ বার পড়া হয়েছে

বন্দর প্রতিনিধি :  নারায়ণগঞ্জ বন্দরে মদনগঞ্জ ইউনিয়ন ভুমি অফিসের দেয়াল ঘেঁষেই ড্রেজার পাইপ বসিয়েছে অসাধু বালু ব্যবসায়ীরা। তবে প্রশাসনের নাকের ডগায় এসব পাইপ অনুমোদন ছাড়া বসালেও রহস্যজনক কারণে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২০নং ওয়ার্ডে অবস্থিত মদনগঞ্জ ইউনিয়ন ভুমি অফিস। এর পাশেই ২০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম নবী মুরাদের বাসভবন। সেখানে দেখা যায় মদনগঞ্জ ইউনিয়ন ভুমি অফিসের দেয়াল ঘেঁষে ড্রেজার পাইপ বসিয়েছে স্থানীয় বিএনপির নেতা খোকন মৃর্ধা ফরাজীকান্দা এলাকার আহসান মিয়ার ছেলে খোকন ও ঢালি বাড়ির এলাকার পুলিশের সোর্স আজহার। এসব পাইপ মহাসড়কের বিভিন্ন অংশে দিয়ে মাধবপাশা বিলের ফসলী জমি ভরাট করার জন্য পাইপ নেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, একই জায়গা ভরাটের জন্য বন্দর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিন প্রধান ও কলাগাছিয়া ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি বাচ্চু মিয়ার নেতৃত্বে মদনগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড-ফরাজীকান্দার প্রধান সড়কের উপর দিয়ে আরেকটি ড্রেজার পাইপ বসিয়েছে।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২০নং ওয়ার্ডে ফরাজীকান্দায় মাধবপাশা বিলে ফসলী জমি বালু দিয়ে ভরাটের জন্য আওয়ামীলীগ, জাতীয় পার্টি ও বিএনপির দলীয় নেতাকর্মীরা ড্রেজার নিয়ন্ত্রণ ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে এরই মাঝে কয়েক দফা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। অথচ বন্দর উপজেলা প্রশাসন ও থানা প্রশাসন রহস্যজনক কারণে কোন ব্যবস্থা না নেওয়াতে জনমনে নানান প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

অপর দিকে, তিন দলীয় ড্রেজার ব্যবসায়ীদের নিয়ে একটি সমঝোতার বৈঠক হয় ফরাজীকান্দা বাসস্ট্যান্ডে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিমউদ্দিনের অফিসে। কিন্তু একদিন পরই আবারও দেখা দিয়েছে তাদের মধ্যে বিরোধ। তবে ড্রেজার ব্যবসা নিয়ে বড় ধরনের দূর্ঘটনা না হওয়ায় পর্যন্ত এ সংঘর্ষ বন্ধ হবে না বলে মনে করছে স্থানীয়রা।

জানতে চাইল বন্দর উপজেলা সহকারি কমিশনার( ভুমি) আসমা সুলতানা নাসরিন এর মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, আমি এখন ব্যস্ত আছি, সামনে ডিসি সাহেব আছে। আপনাকে পরে ফোন দিবো ।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি

বন্দরে মদনগঞ্জ ভুমি অফিস ঘেঁষেই ড্রেজার ব্যবসায়ীদের পাইপ, রহস্যজনক কারণে ব্যবস্থা নেয়নি প্রশাসন!

আপডেট সময় : ০১:৩১:১৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মার্চ ২০২১

বন্দর প্রতিনিধি :  নারায়ণগঞ্জ বন্দরে মদনগঞ্জ ইউনিয়ন ভুমি অফিসের দেয়াল ঘেঁষেই ড্রেজার পাইপ বসিয়েছে অসাধু বালু ব্যবসায়ীরা। তবে প্রশাসনের নাকের ডগায় এসব পাইপ অনুমোদন ছাড়া বসালেও রহস্যজনক কারণে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২০নং ওয়ার্ডে অবস্থিত মদনগঞ্জ ইউনিয়ন ভুমি অফিস। এর পাশেই ২০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম নবী মুরাদের বাসভবন। সেখানে দেখা যায় মদনগঞ্জ ইউনিয়ন ভুমি অফিসের দেয়াল ঘেঁষে ড্রেজার পাইপ বসিয়েছে স্থানীয় বিএনপির নেতা খোকন মৃর্ধা ফরাজীকান্দা এলাকার আহসান মিয়ার ছেলে খোকন ও ঢালি বাড়ির এলাকার পুলিশের সোর্স আজহার। এসব পাইপ মহাসড়কের বিভিন্ন অংশে দিয়ে মাধবপাশা বিলের ফসলী জমি ভরাট করার জন্য পাইপ নেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, একই জায়গা ভরাটের জন্য বন্দর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিন প্রধান ও কলাগাছিয়া ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি বাচ্চু মিয়ার নেতৃত্বে মদনগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড-ফরাজীকান্দার প্রধান সড়কের উপর দিয়ে আরেকটি ড্রেজার পাইপ বসিয়েছে।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২০নং ওয়ার্ডে ফরাজীকান্দায় মাধবপাশা বিলে ফসলী জমি বালু দিয়ে ভরাটের জন্য আওয়ামীলীগ, জাতীয় পার্টি ও বিএনপির দলীয় নেতাকর্মীরা ড্রেজার নিয়ন্ত্রণ ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে এরই মাঝে কয়েক দফা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। অথচ বন্দর উপজেলা প্রশাসন ও থানা প্রশাসন রহস্যজনক কারণে কোন ব্যবস্থা না নেওয়াতে জনমনে নানান প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

অপর দিকে, তিন দলীয় ড্রেজার ব্যবসায়ীদের নিয়ে একটি সমঝোতার বৈঠক হয় ফরাজীকান্দা বাসস্ট্যান্ডে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিমউদ্দিনের অফিসে। কিন্তু একদিন পরই আবারও দেখা দিয়েছে তাদের মধ্যে বিরোধ। তবে ড্রেজার ব্যবসা নিয়ে বড় ধরনের দূর্ঘটনা না হওয়ায় পর্যন্ত এ সংঘর্ষ বন্ধ হবে না বলে মনে করছে স্থানীয়রা।

জানতে চাইল বন্দর উপজেলা সহকারি কমিশনার( ভুমি) আসমা সুলতানা নাসরিন এর মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, আমি এখন ব্যস্ত আছি, সামনে ডিসি সাহেব আছে। আপনাকে পরে ফোন দিবো ।