নারায়ণগঞ্জ ০৩:১১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত জুন মাসের ১৭ তারিখ কোরবানির ঈদ পালিত হওয়ার সম্ভবনা রিয়াদে নোভ আল আম্মার ইষ্টাবলিস্ট এর আয়োজনে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

দুদকের ভূয়া পরিচয় দিয়ে হায়দার নামে এক ব্যক্তি আটক

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:১৮:৫৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ মার্চ ২০২১
  • ১৮০ বার পড়া হয়েছে

ফতুল্লা  প্রতিনিধি  :  নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় দুর্নীতি দমন কমিশনের ভূয়া এক সদস্য নিজেকে দুদকের তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে এক প্রিন্টিং ব্যবসায়ির কাছ থেকে ২ লাখ টাকা ঘুষ নিতে এসে আটক হয়েছে। তার নাম ইমরান হোসেন হায়দার (৪০)। তার কাছ থেকে দুদুকের একটি পরিচয় পত্র (আইডি কার্ড) উদ্ধার করেছে পুলিশ।

যাতে লেখা রয়েছে ‘ মো: ইমরান হোসেন হায়দার, কোর্ট সহকারী (এ এস আই) দুর্নীতি দমন কমিশন’। রোববার (১৪ মার্চ) রাত সাড়ে ৮টার দিকে কায়মপুর ফকির গার্মেন্টসের সামনে থেকে তাকে জনতা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এসময় তার দুই সহযোগি সেলিম ও তানজিল পালিয়ে যায়। ভুক্তভোগী ওয়াবদারপুল এলাকার প্রিন্টিং ব্যবসায়ি নাদির সরদার জানান, দেড় মাস আগে আটককৃত ইমরান হায়দার একটি গাড়ি নিয়ে তার প্রতিষ্ঠানে আসে।

দুদকের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে বলে ‘আপনার বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে। আপনি দুর্নীতির মাধ্যমে ব্যবসা করে আসছেন। নানা ভয় দেখিয়ে ২০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। এক পর্যায়ে আরও ২ লাখ টাকা দাবি করে। এক পর্যায়ে বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়। এবং পুলিশের পরামর্শে টাকা দেয়ার আশ্বাস দিয়ে ইমরান হোসেন হায়দারকে আসতে বলা হয়।

পরে টাকা নেয়ার জন্য দুই সহযোগিসহ ইমরান আজকে (রোববার) আসলে তাকে আটক করা হয়। তবে তার দুই সহযোগি পালিয়ে যায়। এছাড়া একই এলাকার জিল্লু ব্রেড এন্ড বিস্কুট বেকারীর মালিকের কাছ একই কায়দায় ১ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় ইমরান হোসেন হায়দার।

এদিকে খবর পেয়ে ফতুল্লা থানার এস আই হাফিজ ঘটনাস্থলে গিয়ে আটক ইমরান হোসেন হায়দারকে থানায় নিয়ে যান। তিনি জানান, খোঁজ নিয়ে জানা গেছে আটককৃত ইমরান হোসেন হায়দায় দুদকে কনস্টবল হিসেবে কর্মরত ছিল। বর্তমানে সে চাকরীচ্যুত। এ ঘটনায় ভুক্তভোগি নাদির সরদার বাদী হয়ে প্রতারক ইমরান হায়দারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের প্রস্ততি নিয়েছেন।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা

দুদকের ভূয়া পরিচয় দিয়ে হায়দার নামে এক ব্যক্তি আটক

আপডেট সময় : ০৭:১৮:৫৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ মার্চ ২০২১

ফতুল্লা  প্রতিনিধি  :  নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় দুর্নীতি দমন কমিশনের ভূয়া এক সদস্য নিজেকে দুদকের তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে এক প্রিন্টিং ব্যবসায়ির কাছ থেকে ২ লাখ টাকা ঘুষ নিতে এসে আটক হয়েছে। তার নাম ইমরান হোসেন হায়দার (৪০)। তার কাছ থেকে দুদুকের একটি পরিচয় পত্র (আইডি কার্ড) উদ্ধার করেছে পুলিশ।

যাতে লেখা রয়েছে ‘ মো: ইমরান হোসেন হায়দার, কোর্ট সহকারী (এ এস আই) দুর্নীতি দমন কমিশন’। রোববার (১৪ মার্চ) রাত সাড়ে ৮টার দিকে কায়মপুর ফকির গার্মেন্টসের সামনে থেকে তাকে জনতা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এসময় তার দুই সহযোগি সেলিম ও তানজিল পালিয়ে যায়। ভুক্তভোগী ওয়াবদারপুল এলাকার প্রিন্টিং ব্যবসায়ি নাদির সরদার জানান, দেড় মাস আগে আটককৃত ইমরান হায়দার একটি গাড়ি নিয়ে তার প্রতিষ্ঠানে আসে।

দুদকের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে বলে ‘আপনার বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে। আপনি দুর্নীতির মাধ্যমে ব্যবসা করে আসছেন। নানা ভয় দেখিয়ে ২০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। এক পর্যায়ে আরও ২ লাখ টাকা দাবি করে। এক পর্যায়ে বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়। এবং পুলিশের পরামর্শে টাকা দেয়ার আশ্বাস দিয়ে ইমরান হোসেন হায়দারকে আসতে বলা হয়।

পরে টাকা নেয়ার জন্য দুই সহযোগিসহ ইমরান আজকে (রোববার) আসলে তাকে আটক করা হয়। তবে তার দুই সহযোগি পালিয়ে যায়। এছাড়া একই এলাকার জিল্লু ব্রেড এন্ড বিস্কুট বেকারীর মালিকের কাছ একই কায়দায় ১ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় ইমরান হোসেন হায়দার।

এদিকে খবর পেয়ে ফতুল্লা থানার এস আই হাফিজ ঘটনাস্থলে গিয়ে আটক ইমরান হোসেন হায়দারকে থানায় নিয়ে যান। তিনি জানান, খোঁজ নিয়ে জানা গেছে আটককৃত ইমরান হোসেন হায়দায় দুদকে কনস্টবল হিসেবে কর্মরত ছিল। বর্তমানে সে চাকরীচ্যুত। এ ঘটনায় ভুক্তভোগি নাদির সরদার বাদী হয়ে প্রতারক ইমরান হায়দারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের প্রস্ততি নিয়েছেন।