নারায়ণগঞ্জ ০৩:৩৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বন্দরে এক নারীর অত্যাচারের প্রতিবাদে শতাধিক নারী ও পুরুষের বিক্ষোভ

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:০১:২৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ মার্চ ২০২১
  • ২২ বার পড়া হয়েছে

বন্দর প্রতিনিধি  : নারায়ণগঞ্জের বন্দরে মালিবাগ এলাকার মামলাবাজ টুম্পার অত্যাচারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ করেছে স্থানীয় ভুক্তভোগীরা।

শুক্রবার (১২ মার্চ) রাত ১০ টার দিকে বন্দরে মালিবাগ চান্দেরবাড়ী এলাকায় প্রায় শতাধিক নারী ও পুরুষ রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করে।

এ সময় ভুক্তভোগী একাধিক নারী পুরুষ অভিযোগ করে বলেন, তারিকুল ইসলামের স্ত্রী মুক্তা বেগম ওরফে টুম্পার অত্যাচারে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। প্রতিদিনই কেউ না কেউ টুম্পার হাতে লাঞ্ছিত হচ্ছে। বাদ যায়নি শ্বশুড়, শাশুড়ি তাদের গায়েও হাত তুলেন টুম্পা।

তারা আরো বলেন, বন্দর থানার সাবেক অফিসার ইনচার্জ এ.কে.এম শাহীন মন্ডলের সহায়তায় আইনের অপপ্রয়োগ করে সাধারণ জনগণকে মিথ্যা মামলা বা মামলার হুমকি দিয়ে হয়রানী করে আসছে। এবং স্থানীয় চেয়ারম্যান, মেম্বার ও গণমাধ্যম ব্যাক্তিবর্গ কয়েকবার সালিশ করেও এর কোন সুষ্ঠু সমাধান করতে পারেনি।

টুম্পার অত্যাচারের হাত থেকে প্রতিকার চেয়ে মুছাপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড এবং ধামগড় ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মালিবাগ ও চান্দেরবাড়ি গ্রামের প্রায় তিন শতাধিক নারী পুরুষ গণস্বাক্ষর করে গত ৯ মার্চ নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন। এবং বন্দর থানায় পর পর দুটি জিডি করা হয়।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

বন্দরে এক নারীর অত্যাচারের প্রতিবাদে শতাধিক নারী ও পুরুষের বিক্ষোভ

আপডেট সময় : ০১:০১:২৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ মার্চ ২০২১

বন্দর প্রতিনিধি  : নারায়ণগঞ্জের বন্দরে মালিবাগ এলাকার মামলাবাজ টুম্পার অত্যাচারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ করেছে স্থানীয় ভুক্তভোগীরা।

শুক্রবার (১২ মার্চ) রাত ১০ টার দিকে বন্দরে মালিবাগ চান্দেরবাড়ী এলাকায় প্রায় শতাধিক নারী ও পুরুষ রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করে।

এ সময় ভুক্তভোগী একাধিক নারী পুরুষ অভিযোগ করে বলেন, তারিকুল ইসলামের স্ত্রী মুক্তা বেগম ওরফে টুম্পার অত্যাচারে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। প্রতিদিনই কেউ না কেউ টুম্পার হাতে লাঞ্ছিত হচ্ছে। বাদ যায়নি শ্বশুড়, শাশুড়ি তাদের গায়েও হাত তুলেন টুম্পা।

তারা আরো বলেন, বন্দর থানার সাবেক অফিসার ইনচার্জ এ.কে.এম শাহীন মন্ডলের সহায়তায় আইনের অপপ্রয়োগ করে সাধারণ জনগণকে মিথ্যা মামলা বা মামলার হুমকি দিয়ে হয়রানী করে আসছে। এবং স্থানীয় চেয়ারম্যান, মেম্বার ও গণমাধ্যম ব্যাক্তিবর্গ কয়েকবার সালিশ করেও এর কোন সুষ্ঠু সমাধান করতে পারেনি।

টুম্পার অত্যাচারের হাত থেকে প্রতিকার চেয়ে মুছাপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড এবং ধামগড় ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মালিবাগ ও চান্দেরবাড়ি গ্রামের প্রায় তিন শতাধিক নারী পুরুষ গণস্বাক্ষর করে গত ৯ মার্চ নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন। এবং বন্দর থানায় পর পর দুটি জিডি করা হয়।