সিদ্ধিরগঞ্জ থানা তাঁতীলীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালন

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জে তাঁতীলীগের উদ্যোগে স্বাস্থবিধি মেনে জাতীয় শোক দিবস ১৫ আগস্ট পালন করা হয়েছে। শনিবার রাত ৮ টায় নাসিক ৬ নং ওয়ার্ড আদমজী সোনামিয়া বাজার এলাকায় দলীয় কার্যালয়ে বাঙালি জাতির মহান দিশারী শেখ মুজিবুর রহমানকে বিশেষভাবে স্বরণ করে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা সভা ও তার পরিবারের শাহাদাত হওয়া সকল সদস্যদের বিদেহী আত্নার মাগফিরাত কামানা করে বিশেষ দোয়া মোনাজাত শেষে রান্না করা খাবার বিতরণের মাধ্যমে দিবসটি পালন করা হয়।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানা তাঁতীলীগ সভাপতি মো: লিটন আহমেদ এর উদ্যোগে আয়োজিত এ দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি করা হয়, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগ সভাপতি আলহাজ্ব মজিবুর রহমান ও বিশেষ অতিথি করা হয় সাধারণ সম্পাদক হাজি ইয়াছিন মিয়াকে। প্রধান বক্তা করা হয়েছে নারায়ণগঞ্জ মহানগর তাঁতীলীগের আহবায়ক এইচ এম সাহেদ ফারুককে । এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মহানগর শ্রমীকলীগের সহসভাপতি সেলিম মোল্লা, থানা কমিটির সহসভাপতি মনির খান, যুগ্নসম্পাদক মাসুম, মিজান, রকি, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক রাকিব, যুবলীগ নেতা এমএ কাদির, আব্দুল কাদির প্রধানসহ স্থানীয় তাঁতীলীগ নেতাকর্মী ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। দোয়া পরিচালনা করেন এবাদুল্লাহ জামে মসজিদের সভাপতি হাজি আবুল কালাম। স্থানীয় তাঁতীলীগ নেতাকর্মী ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
এসময় বক্তারা বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কতিপয় সেনা সদস্যদের হাতে সপরিবারে নির্মমভাবে শাহাদাতবরণ করেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ট বাঙালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যরা। সেদিন দেশে না থাকায় প্রাণে বেঁচে যান বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা দেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার বোন শেখ রেহানা। জন্মশতবর্ষে শোকসন্তপ্ত জাতি আজ নানা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে বিন¤্রভাবে স্বরণ করছে। যাঁর গৌরমময় নেতৃত্বে এ দেশ স্বাধীন হয়েছে সেই মহান নেতাকে সপরিবারে হত্যার মাধ্যমে স্বাধীন বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা থামিয়ে দিতে চেয়োছিল ঘাতকরা। শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্বের ইতিহাসে ১৫ আগস্টের হত্যাকান্ড একটি কলঙ্কজনক ঘটনা। ঘাতক দল ভেবেছিল, বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে তার নাম ইতিহাস থেকে চিরতরে মুছে ফেলবে। কিন্তু তাদের সে হীন ষড়যন্ত্র সফল হয়নি। হিংস্র ঘাতকদের দর্পচূর্ণ করে বলিষ্ট নেতৃত্বে দেশকে আজ সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তারই সুযোগ্য কন্যা আওয়ামীলীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।