নারায়ণগঞ্জ ০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
অপরাধি যেই হোক ছাড় পাবেনা : ওসি গোলাম মোস্তফা মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত আদমজী ইপিজেডকে অশান্ত করছে জনপ্রতিনিধিরা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে মহিলা লীগ নেত্রীর শুভেচ্ছা বিনিময় না’গঞ্জ কারাগারে হাজতীর মৃত্যু ফতুল্লায় চোরাইকৃত ট্যাংকলড়ী উদ্ধার আড়াইহাজারের মিথিলা টেক্সটাইল ঘুরে গেলেন ৮ দেশের রাষ্ট্রদূতসহ ১৮ দেশের প্রতিনিধি সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে কাউন্সিলর ইকবাল হোসেনের মতবিনিময় ফতুল্লা ব্লাড ডোনার্সের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ শিক্ষা সিলেবাস বাতিলের দাবিতে খেলাফত মজলিসের বিক্ষোভ মিছিল

আদমজী ইপিজেডের ব্যবসা ছিনিয়ে নিতে আক্তার বাহিনীর হামলায় আহত-২

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:১২:৩৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৩
  • ২১৯ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী ইপিজেডের একটি পোশাক কারখানায় ব্যবসা নিয়ন্ত্রনকে কেন্দ্র করে দুই ব্যবসায়ীর উপর হামলা চালিয়ে মারধর করেছে কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির অন্যতম সহযোগী কিশোরগ্যাং নেতা আক্তার হোসেন ওরফে পানি আক্তার বাহিনী। বুধবার (২৫ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৩ টায় ইপিজেডের ভেতরে এই হামলার ঘটনা ঘটে। আহত দুইজনকে নারায়ণগঞ্জ খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। থানায় মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।
জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে আদমজী ইপিজেডে ব্যবসা করছেন আটি এলাকার সাত্তার মোল্লার ছেলে সুমন মাহমুদ (৩৮) ও কদমতলী এলাকার লাল মাহমুদের ছেলে লিমন শেখ (৩৫)। তারা ইপিজেডে চেক পয়েন্ট সিস্টেম বিডি লিমিটেড কারখানায় ব্যবসা করে আসছেন। বুধবার বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে নাসিক ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির ঘনিষ্ট সহযোগী একাধিক মামলার আসামি কিশোরগ্যাং নেতা পানি আক্তারের নেতৃত্বে শামীম, রবিন, গ্যাস মিজান, রবিউল, নূর হোসেন, হৃদয় ও ডিস স্বপনসহ ১০/১২ জন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সুমন মাহমুদ ও লিমন শেখের উপর হামলা চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা ওই কারখানায় ব্যবসা করতে নিষেধ করে সুমন ও লিমন শেখকে এলোপাথারি মারধর শুরু করে। এতে তারা দুইজন গুরুতর আহত হয়। পরে নানা হুমকি দিয়ে হামলাকারী আক্তার বাহিনী চলে গেলে স্থানীয়রা আহত দুইজনকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন।
আহত সুমন মাহমুদ জানায়, ইপিজেডের চেক পয়েন্ট সিস্টেম বিডি লিমিটেড কারখানায় দীর্ঘদিন ধরে আমরা কয়েকজন ব্যবসা করে আসছি। আমাদেরকে ব্যবসা না করার জন্য কাউন্সিলর মতির নির্দেশে পানি আক্তার বেশ কিছুদিন ধরে
হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে। এরই অংশ হিসেবে বুধবার বিকেলে আমাদের উপর হামলা চালায়। এঘটনা থানায় মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।
এবিষয়ে জানতে পানি আক্তারের সাথে যোগাযোগ করতে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নাম্বারে একাধিকবার ফোন করলে রিং হলেও তিনি রিসিভ করেননি।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি গোলাম মোস্তফা বলেন, ঘটনাটি জানতে পেরেছি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

অপরাধি যেই হোক ছাড় পাবেনা : ওসি গোলাম মোস্তফা

আদমজী ইপিজেডের ব্যবসা ছিনিয়ে নিতে আক্তার বাহিনীর হামলায় আহত-২

আপডেট সময় : ০২:১২:৩৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৩

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী ইপিজেডের একটি পোশাক কারখানায় ব্যবসা নিয়ন্ত্রনকে কেন্দ্র করে দুই ব্যবসায়ীর উপর হামলা চালিয়ে মারধর করেছে কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির অন্যতম সহযোগী কিশোরগ্যাং নেতা আক্তার হোসেন ওরফে পানি আক্তার বাহিনী। বুধবার (২৫ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৩ টায় ইপিজেডের ভেতরে এই হামলার ঘটনা ঘটে। আহত দুইজনকে নারায়ণগঞ্জ খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। থানায় মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।
জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে আদমজী ইপিজেডে ব্যবসা করছেন আটি এলাকার সাত্তার মোল্লার ছেলে সুমন মাহমুদ (৩৮) ও কদমতলী এলাকার লাল মাহমুদের ছেলে লিমন শেখ (৩৫)। তারা ইপিজেডে চেক পয়েন্ট সিস্টেম বিডি লিমিটেড কারখানায় ব্যবসা করে আসছেন। বুধবার বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে নাসিক ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির ঘনিষ্ট সহযোগী একাধিক মামলার আসামি কিশোরগ্যাং নেতা পানি আক্তারের নেতৃত্বে শামীম, রবিন, গ্যাস মিজান, রবিউল, নূর হোসেন, হৃদয় ও ডিস স্বপনসহ ১০/১২ জন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সুমন মাহমুদ ও লিমন শেখের উপর হামলা চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা ওই কারখানায় ব্যবসা করতে নিষেধ করে সুমন ও লিমন শেখকে এলোপাথারি মারধর শুরু করে। এতে তারা দুইজন গুরুতর আহত হয়। পরে নানা হুমকি দিয়ে হামলাকারী আক্তার বাহিনী চলে গেলে স্থানীয়রা আহত দুইজনকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন।
আহত সুমন মাহমুদ জানায়, ইপিজেডের চেক পয়েন্ট সিস্টেম বিডি লিমিটেড কারখানায় দীর্ঘদিন ধরে আমরা কয়েকজন ব্যবসা করে আসছি। আমাদেরকে ব্যবসা না করার জন্য কাউন্সিলর মতির নির্দেশে পানি আক্তার বেশ কিছুদিন ধরে
হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে। এরই অংশ হিসেবে বুধবার বিকেলে আমাদের উপর হামলা চালায়। এঘটনা থানায় মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।
এবিষয়ে জানতে পানি আক্তারের সাথে যোগাযোগ করতে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নাম্বারে একাধিকবার ফোন করলে রিং হলেও তিনি রিসিভ করেননি।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি গোলাম মোস্তফা বলেন, ঘটনাটি জানতে পেরেছি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।