নারায়ণগঞ্জ ০৭:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
রিয়াদে Dxnএর আয়োজনে আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবস পালন ও সেমিনার অনুষ্ঠিত ইসদাইরে অবৈধ ক্যাবল অপারেটর ব্যবসার বিরুদ্ধে অভিযান,অফিস সীলগালা চাষাড়ায় মাতৃভাষা দিবসে বইমেলার উদ্বোধন নারায়ণগঞ্জে কারাগারে সাংবাদিক হত্যাকারির আত্নহত্যা চৌধুরীগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন অস্ত্র মামলায় মিশনপাড়ার নাজমুলকে ১০ বছরের কারাদণ্ড বন্দরে এক রোহিঙ্গা যুবককে ৪হাজার ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে জামানত ১ লাখ টাকা ফতুল্লার ক্লু-লেস হত্যার রহস্য উদঘাটনসহ প্রধান আসামিকে গ্রেফতার র‌্যাব-১১ বানিজ্য মেলায় দর্শনার্থীদের সেবা দিতে ডিকেএমসি হাসপাতালের অধ্যাপক ডাক্তার এম এ কাশেম

লুটেরাদের স্বার্থে ভোজ্যতেলের মূল্যবৃদ্ধি : বাংলাদেশ ন্যাপ

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৪৬:৪০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২
  • ১৪৩ বার পড়া হয়েছে

সরকার লুটেরা ব্যবসায়ীদের স্বার্থরক্ষায় ভোজ্যতেলের মূল্যবৃদ্ধি আবারো বৃদ্ধি করেছে বলে মন্তব্য করেছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ।

সোমবার (৭ জানুয়ারি) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে দলটির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এ মন্তব্য করেন।

তারা বলেন, সরকার নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেও সয়াবিনের সিন্ডিকেট ভাঙতে ব্যর্থ হয়েছে। এতে স্পষ্ট সরকার সিন্ডিকেট ভাঙতে পারেনি। সিন্ডিকেটদের কাছে সরকার অসহায়। দুর্নীতিবাজ ব্যবসায়ীদের স্বার্থ রক্ষায় ভোজ্যতেলের মূল্য দফায় দফায় বৃদ্ধি করছে।

নেতৃদ্বয় বলেন, দীর্ঘদিন করোনায় জনজীবন বিপর্যস্থ, বেকারত্ব, দারিদ্রতা বৃদ্ধি পেলেও সরকারী দলের নেতা আর লুটেরা গোষ্ঠীর লুটপাট অব্যাহত রয়েছে। এর মধ্যেই চলছে সরকারের মূল্যবৃদ্ধির আগ্রাসন। চাল-ডাল, ভোজ্য তেল, চিনি, আদা-ময়দাসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধিতে মানুষ যখন অতিষ্ঠ, তখন ভোজ্যতেলের মূল্যবৃদ্ধি জনজীবনকে আরো দুর্বিসহ করে তুলেছে।

তারা বলেন, সরকারের বোঝা উচিত, কোনো লুটেরা ব্যবসায়ারী কখনও সাধারণ মানুষের কথা ভাবেন না। তারা চলেন লোভ ও লাভের নীতিতে। দেশি-বিদেশি কোম্পানি একচেটিয়াভাবে ভোজ্যতেল আমদানির পর রিফাইন করে বাজারে বিক্রি করছেন। ভোজ্যতেল সিন্ডিকেট সরকারের দুর্নীতিবাজদের সমর্থন নিয়ে তেলের মূল্য বৃদ্ধি করেই চলেছেন। সরকারকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে, তারা জনগণের পক্ষে থাকবে নাকি লুটেরা ব্যবসায়ীদের পক্ষ নেবে।

নেতৃদ্বয় আরও বলেন, দেশে ভোজ্যতেল উৎপাদনের ব্যবস্থা করতে হবে। তেল উৎপাদনের নতুন উৎস খুঁজে বের করে দেশে ভোজ্যতেল উৎপাদনের নতুন ব্যবস্থা করতে হবে। কৃষি বিভাগকে ঢেলে সাজালে কৃষকরা দেশে ভোজ্যতেলের কৃষিপণ্য উৎপাদন করতে সক্ষম হবেন। এতে পরনির্ভরশীলতা কমিয়ে দেশকে ভোজ্যতেল উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ করে গড়ে তোলা সম্ভব হবে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

রিয়াদে Dxnএর আয়োজনে আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবস পালন ও সেমিনার অনুষ্ঠিত

লুটেরাদের স্বার্থে ভোজ্যতেলের মূল্যবৃদ্ধি : বাংলাদেশ ন্যাপ

আপডেট সময় : ০৬:৪৬:৪০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২

সরকার লুটেরা ব্যবসায়ীদের স্বার্থরক্ষায় ভোজ্যতেলের মূল্যবৃদ্ধি আবারো বৃদ্ধি করেছে বলে মন্তব্য করেছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ।

সোমবার (৭ জানুয়ারি) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে দলটির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এ মন্তব্য করেন।

তারা বলেন, সরকার নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেও সয়াবিনের সিন্ডিকেট ভাঙতে ব্যর্থ হয়েছে। এতে স্পষ্ট সরকার সিন্ডিকেট ভাঙতে পারেনি। সিন্ডিকেটদের কাছে সরকার অসহায়। দুর্নীতিবাজ ব্যবসায়ীদের স্বার্থ রক্ষায় ভোজ্যতেলের মূল্য দফায় দফায় বৃদ্ধি করছে।

নেতৃদ্বয় বলেন, দীর্ঘদিন করোনায় জনজীবন বিপর্যস্থ, বেকারত্ব, দারিদ্রতা বৃদ্ধি পেলেও সরকারী দলের নেতা আর লুটেরা গোষ্ঠীর লুটপাট অব্যাহত রয়েছে। এর মধ্যেই চলছে সরকারের মূল্যবৃদ্ধির আগ্রাসন। চাল-ডাল, ভোজ্য তেল, চিনি, আদা-ময়দাসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধিতে মানুষ যখন অতিষ্ঠ, তখন ভোজ্যতেলের মূল্যবৃদ্ধি জনজীবনকে আরো দুর্বিসহ করে তুলেছে।

তারা বলেন, সরকারের বোঝা উচিত, কোনো লুটেরা ব্যবসায়ারী কখনও সাধারণ মানুষের কথা ভাবেন না। তারা চলেন লোভ ও লাভের নীতিতে। দেশি-বিদেশি কোম্পানি একচেটিয়াভাবে ভোজ্যতেল আমদানির পর রিফাইন করে বাজারে বিক্রি করছেন। ভোজ্যতেল সিন্ডিকেট সরকারের দুর্নীতিবাজদের সমর্থন নিয়ে তেলের মূল্য বৃদ্ধি করেই চলেছেন। সরকারকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে, তারা জনগণের পক্ষে থাকবে নাকি লুটেরা ব্যবসায়ীদের পক্ষ নেবে।

নেতৃদ্বয় আরও বলেন, দেশে ভোজ্যতেল উৎপাদনের ব্যবস্থা করতে হবে। তেল উৎপাদনের নতুন উৎস খুঁজে বের করে দেশে ভোজ্যতেল উৎপাদনের নতুন ব্যবস্থা করতে হবে। কৃষি বিভাগকে ঢেলে সাজালে কৃষকরা দেশে ভোজ্যতেলের কৃষিপণ্য উৎপাদন করতে সক্ষম হবেন। এতে পরনির্ভরশীলতা কমিয়ে দেশকে ভোজ্যতেল উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ করে গড়ে তোলা সম্ভব হবে।