নারায়ণগঞ্জ ০৭:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
সোনারগাঁওয়ে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত সিদ্ধিরগঞ্জে ৪টি কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হারামের পয়সা ব্যারামে খায় ,আমি হারাম খাই না খেতেও দেই না-সেলিম ওসমান ভূমি সম্পর্কিত সমস্যা থাকলে গণশুনানিতে আসার আহবান- না.গঞ্জে জেলা  প্রশাসক সিদ্ধিরগঞ্জে গ্যাসের দাবিতে ঢাকা-চটগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ সোনারগাঁওয়ে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০২৪ অনুষ্ঠিত র‌্যাব পরিচয়ে ৫২ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেফতার-৪ সিদ্ধিরগঞ্জে কাতার প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি চিকিৎসার নামে কোনো প্রকার হয়রানি মেনে নেওয়া হবে না ঃ স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতীর পোশাক শ্রমিক নিহত

লুটেরাদের স্বার্থে ভোজ্যতেলের মূল্যবৃদ্ধি : বাংলাদেশ ন্যাপ

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৪৬:৪০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২
  • ১৭৯ বার পড়া হয়েছে

সরকার লুটেরা ব্যবসায়ীদের স্বার্থরক্ষায় ভোজ্যতেলের মূল্যবৃদ্ধি আবারো বৃদ্ধি করেছে বলে মন্তব্য করেছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ।

সোমবার (৭ জানুয়ারি) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে দলটির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এ মন্তব্য করেন।

তারা বলেন, সরকার নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেও সয়াবিনের সিন্ডিকেট ভাঙতে ব্যর্থ হয়েছে। এতে স্পষ্ট সরকার সিন্ডিকেট ভাঙতে পারেনি। সিন্ডিকেটদের কাছে সরকার অসহায়। দুর্নীতিবাজ ব্যবসায়ীদের স্বার্থ রক্ষায় ভোজ্যতেলের মূল্য দফায় দফায় বৃদ্ধি করছে।

নেতৃদ্বয় বলেন, দীর্ঘদিন করোনায় জনজীবন বিপর্যস্থ, বেকারত্ব, দারিদ্রতা বৃদ্ধি পেলেও সরকারী দলের নেতা আর লুটেরা গোষ্ঠীর লুটপাট অব্যাহত রয়েছে। এর মধ্যেই চলছে সরকারের মূল্যবৃদ্ধির আগ্রাসন। চাল-ডাল, ভোজ্য তেল, চিনি, আদা-ময়দাসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধিতে মানুষ যখন অতিষ্ঠ, তখন ভোজ্যতেলের মূল্যবৃদ্ধি জনজীবনকে আরো দুর্বিসহ করে তুলেছে।

তারা বলেন, সরকারের বোঝা উচিত, কোনো লুটেরা ব্যবসায়ারী কখনও সাধারণ মানুষের কথা ভাবেন না। তারা চলেন লোভ ও লাভের নীতিতে। দেশি-বিদেশি কোম্পানি একচেটিয়াভাবে ভোজ্যতেল আমদানির পর রিফাইন করে বাজারে বিক্রি করছেন। ভোজ্যতেল সিন্ডিকেট সরকারের দুর্নীতিবাজদের সমর্থন নিয়ে তেলের মূল্য বৃদ্ধি করেই চলেছেন। সরকারকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে, তারা জনগণের পক্ষে থাকবে নাকি লুটেরা ব্যবসায়ীদের পক্ষ নেবে।

নেতৃদ্বয় আরও বলেন, দেশে ভোজ্যতেল উৎপাদনের ব্যবস্থা করতে হবে। তেল উৎপাদনের নতুন উৎস খুঁজে বের করে দেশে ভোজ্যতেল উৎপাদনের নতুন ব্যবস্থা করতে হবে। কৃষি বিভাগকে ঢেলে সাজালে কৃষকরা দেশে ভোজ্যতেলের কৃষিপণ্য উৎপাদন করতে সক্ষম হবেন। এতে পরনির্ভরশীলতা কমিয়ে দেশকে ভোজ্যতেল উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ করে গড়ে তোলা সম্ভব হবে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সোনারগাঁওয়ে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

লুটেরাদের স্বার্থে ভোজ্যতেলের মূল্যবৃদ্ধি : বাংলাদেশ ন্যাপ

আপডেট সময় : ০৬:৪৬:৪০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২

সরকার লুটেরা ব্যবসায়ীদের স্বার্থরক্ষায় ভোজ্যতেলের মূল্যবৃদ্ধি আবারো বৃদ্ধি করেছে বলে মন্তব্য করেছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ।

সোমবার (৭ জানুয়ারি) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে দলটির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এ মন্তব্য করেন।

তারা বলেন, সরকার নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেও সয়াবিনের সিন্ডিকেট ভাঙতে ব্যর্থ হয়েছে। এতে স্পষ্ট সরকার সিন্ডিকেট ভাঙতে পারেনি। সিন্ডিকেটদের কাছে সরকার অসহায়। দুর্নীতিবাজ ব্যবসায়ীদের স্বার্থ রক্ষায় ভোজ্যতেলের মূল্য দফায় দফায় বৃদ্ধি করছে।

নেতৃদ্বয় বলেন, দীর্ঘদিন করোনায় জনজীবন বিপর্যস্থ, বেকারত্ব, দারিদ্রতা বৃদ্ধি পেলেও সরকারী দলের নেতা আর লুটেরা গোষ্ঠীর লুটপাট অব্যাহত রয়েছে। এর মধ্যেই চলছে সরকারের মূল্যবৃদ্ধির আগ্রাসন। চাল-ডাল, ভোজ্য তেল, চিনি, আদা-ময়দাসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধিতে মানুষ যখন অতিষ্ঠ, তখন ভোজ্যতেলের মূল্যবৃদ্ধি জনজীবনকে আরো দুর্বিসহ করে তুলেছে।

তারা বলেন, সরকারের বোঝা উচিত, কোনো লুটেরা ব্যবসায়ারী কখনও সাধারণ মানুষের কথা ভাবেন না। তারা চলেন লোভ ও লাভের নীতিতে। দেশি-বিদেশি কোম্পানি একচেটিয়াভাবে ভোজ্যতেল আমদানির পর রিফাইন করে বাজারে বিক্রি করছেন। ভোজ্যতেল সিন্ডিকেট সরকারের দুর্নীতিবাজদের সমর্থন নিয়ে তেলের মূল্য বৃদ্ধি করেই চলেছেন। সরকারকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে, তারা জনগণের পক্ষে থাকবে নাকি লুটেরা ব্যবসায়ীদের পক্ষ নেবে।

নেতৃদ্বয় আরও বলেন, দেশে ভোজ্যতেল উৎপাদনের ব্যবস্থা করতে হবে। তেল উৎপাদনের নতুন উৎস খুঁজে বের করে দেশে ভোজ্যতেল উৎপাদনের নতুন ব্যবস্থা করতে হবে। কৃষি বিভাগকে ঢেলে সাজালে কৃষকরা দেশে ভোজ্যতেলের কৃষিপণ্য উৎপাদন করতে সক্ষম হবেন। এতে পরনির্ভরশীলতা কমিয়ে দেশকে ভোজ্যতেল উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ করে গড়ে তোলা সম্ভব হবে।