নারায়ণগঞ্জ ০২:৪৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মেঘনায় অবৈধ ড্রেজারে বালু উত্তোলনের সময় মেয়রের ড্রেজার আটক

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:০৪:৫৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • ১৪ বার পড়া হয়েছে

আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ)সংবাদদাতা: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নে মেঘনা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের সময় এক মেয়রের মালিকানাধীন দুটি ড্রেজার আটকের পর ঊর্ধ্বতনদের চাপে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। ছেড়ে দেয়ার পর আবারো ফিরে বালু উত্তোলন শুরু করে ড্রেজার দুটি।সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে কালাপাহাড়িরার নতুনচর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ড্রেজারের মালিক কুমিল্লার হোমনার মেয়র নজরুল ইসলাম। তিনি আওয়ামীলীগের রাজনীতি করেন এবং বিভিন্ন নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসা করে আসছেন।পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা যায়, বিকেলের দিকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন শুরু করলে এলাকাবাসী ড্রেজার দুটি আটক করে পুলিশে খবর দেয়।

পরে খাগকান্দা ফাঁড়ি পুলিশ গিয়ে ড্রেজার দুটি আটক করলে বিভিন্ন মহল থেকে ফোনে চাপ সৃষ্টি করা হয় ছেড়ে দিতে। পুলিশ অবৈধভাবে আর বালু উত্তোলন করবেনা এমন মুচলেকা নিয়ে ড্রেজার দুটি ছেড়ে দেয়। পরে আবারো ছাড়া পেয়ে বালু উত্তোলন শুরু করে ড্রেজারগুলো।খাগকান্দা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ গোলাম মোর্শেদ তালুকদার জানান, আমরা এলাকাবাসী আটক করে জানালে গিয়ে ড্রেজার দুটি আটক করি। পরবর্তীতে আর অবৈধভাবে নদী থেকে বালু উত্তোলন করবেনা শর্তে ছেড়ে দেই। এ ব্যাপারে একাধিক মহলের চাপ ছিল তাদের ছেড়ে দিতে বলে জানান তিনি।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

মেঘনায় অবৈধ ড্রেজারে বালু উত্তোলনের সময় মেয়রের ড্রেজার আটক

আপডেট সময় : ০৩:০৪:৫৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ)সংবাদদাতা: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নে মেঘনা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের সময় এক মেয়রের মালিকানাধীন দুটি ড্রেজার আটকের পর ঊর্ধ্বতনদের চাপে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। ছেড়ে দেয়ার পর আবারো ফিরে বালু উত্তোলন শুরু করে ড্রেজার দুটি।সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে কালাপাহাড়িরার নতুনচর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ড্রেজারের মালিক কুমিল্লার হোমনার মেয়র নজরুল ইসলাম। তিনি আওয়ামীলীগের রাজনীতি করেন এবং বিভিন্ন নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসা করে আসছেন।পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা যায়, বিকেলের দিকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন শুরু করলে এলাকাবাসী ড্রেজার দুটি আটক করে পুলিশে খবর দেয়।

পরে খাগকান্দা ফাঁড়ি পুলিশ গিয়ে ড্রেজার দুটি আটক করলে বিভিন্ন মহল থেকে ফোনে চাপ সৃষ্টি করা হয় ছেড়ে দিতে। পুলিশ অবৈধভাবে আর বালু উত্তোলন করবেনা এমন মুচলেকা নিয়ে ড্রেজার দুটি ছেড়ে দেয়। পরে আবারো ছাড়া পেয়ে বালু উত্তোলন শুরু করে ড্রেজারগুলো।খাগকান্দা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ গোলাম মোর্শেদ তালুকদার জানান, আমরা এলাকাবাসী আটক করে জানালে গিয়ে ড্রেজার দুটি আটক করি। পরবর্তীতে আর অবৈধভাবে নদী থেকে বালু উত্তোলন করবেনা শর্তে ছেড়ে দেই। এ ব্যাপারে একাধিক মহলের চাপ ছিল তাদের ছেড়ে দিতে বলে জানান তিনি।