নারায়ণগঞ্জ ০১:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত আদমজী ইপিজেডকে অশান্ত করছে জনপ্রতিনিধিরা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে মহিলা লীগ নেত্রীর শুভেচ্ছা বিনিময় না’গঞ্জ কারাগারে হাজতীর মৃত্যু ফতুল্লায় চোরাইকৃত ট্যাংকলড়ী উদ্ধার আড়াইহাজারের মিথিলা টেক্সটাইল ঘুরে গেলেন ৮ দেশের রাষ্ট্রদূতসহ ১৮ দেশের প্রতিনিধি সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে কাউন্সিলর ইকবাল হোসেনের মতবিনিময় ফতুল্লা ব্লাড ডোনার্সের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ শিক্ষা সিলেবাস বাতিলের দাবিতে খেলাফত মজলিসের বিক্ষোভ মিছিল সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শহরে নারী সমাবেশ ও মিছিল

শ্যামপুর থেকে নারী পাচারকারী চক্রের মূলহোতা গ্রেপ্তার

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৪৯:১৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • ৫৩ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার : আন্তর্জাতিক নারী পাচারকারী চক্রের মূলহোতা নাজমা সুলতানা ওরফে হাসনাহেনাকে(৪২) আটক করেছে র‌্যাব-১০। রাজধানী ঢাকার শ্যামপুর থানার ধোলাইপার যুক্তিবাদি গলি এলাকায় অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে তাকে আটক করা হয়। তার কাছ থেকে ৫টি পাসপোর্ট, ১৫০ কপি পাসপোর্টের ফটোকপি, ৩টি আকামা (২টি কাতার ও ১টি মালোয়েশিয়া), ১৫টি Emigration clearance card, 11wU BMET card (১০টি নকল), ১৫টি জন্ম সনদ,১ টি এনআইডি কার্ড ও ২টি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।
আটক নাজমা সুলতানা শ্যামপুর থানার ধোলাইপার মুক্তিবাদির গলির ৪১/০১ স্বর্ণকুটির বাসিন্দা মোঃ নাজমুলের স্ত্রী।
র‌্যাব জানায়, বাংলাদেশ হতে মধ্যপ্রাচ্যে পাচারকৃত ১ নারী নির্যাতনের শিকার হয়।গণমাধ্যমে এ সংবাদ প্রচার হওয়ার পর র‌্যাব-১০ এর একটি আভিযানিক দল অনুসন্ধান শুরু করে। সত্যতা পেয়ে শ্যামপুর থানার ধোলাইপার এলাকায় অভিযান করে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি ২০ বছরের ১ জন মহিলা ভিকটিমকে গৃহকর্মীর কাজের জন্য গত ১৫ জুলাই মধ্যপ্রাচ্যে পাঠায় । সেখানে কাজ করা অবস্থায় ভিকটিমকে পায়ে, পিঠেসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গরম ইস্ত্রি দিয়ে ছেকা দিয়ে মারাতœক জখম করা হয়। এতে ভিকটিম গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে গত ৮ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে ফিরে আসেন। মিডফোর্ড স্যার সলিমুল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে নিজ বাসায় রয়েছেন।
প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় যে, আটক নারী পেশাদার নারী ও শিশু পাচারকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য। বেশ কিছুদিন যাবত সে ও তার স্বামী মোঃ নাজমুল পরস্পর যোগসাজসে সংঘবদ্ধভাবে পতিতাবৃত্তি ও যৌন কাজে নিয়োজিত করার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন বয়সের নারী ও শিশুদের প্রলোভন দেখিয়ে মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে গৃহকর্মী কাজের নামে পাচার করে আসছিল। এই দম্পত্তি ৭০ থেকে ৮০ হাজার টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন বয়সী নারীদের বিদেশে বিক্রি করত। সাধারণ মানুষকে বিভিন্ন দেশে পাঠানোর প্রলোভন দেখিয়ে তাদের নিকট থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিত। পাচারকৃত নারীরা সেখানে গিয়ে বিভিন্নভাবে যৌন ও শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছে। তার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় নিয়মিত মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত

শ্যামপুর থেকে নারী পাচারকারী চক্রের মূলহোতা গ্রেপ্তার

আপডেট সময় : ০১:৪৯:১৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার : আন্তর্জাতিক নারী পাচারকারী চক্রের মূলহোতা নাজমা সুলতানা ওরফে হাসনাহেনাকে(৪২) আটক করেছে র‌্যাব-১০। রাজধানী ঢাকার শ্যামপুর থানার ধোলাইপার যুক্তিবাদি গলি এলাকায় অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে তাকে আটক করা হয়। তার কাছ থেকে ৫টি পাসপোর্ট, ১৫০ কপি পাসপোর্টের ফটোকপি, ৩টি আকামা (২টি কাতার ও ১টি মালোয়েশিয়া), ১৫টি Emigration clearance card, 11wU BMET card (১০টি নকল), ১৫টি জন্ম সনদ,১ টি এনআইডি কার্ড ও ২টি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।
আটক নাজমা সুলতানা শ্যামপুর থানার ধোলাইপার মুক্তিবাদির গলির ৪১/০১ স্বর্ণকুটির বাসিন্দা মোঃ নাজমুলের স্ত্রী।
র‌্যাব জানায়, বাংলাদেশ হতে মধ্যপ্রাচ্যে পাচারকৃত ১ নারী নির্যাতনের শিকার হয়।গণমাধ্যমে এ সংবাদ প্রচার হওয়ার পর র‌্যাব-১০ এর একটি আভিযানিক দল অনুসন্ধান শুরু করে। সত্যতা পেয়ে শ্যামপুর থানার ধোলাইপার এলাকায় অভিযান করে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি ২০ বছরের ১ জন মহিলা ভিকটিমকে গৃহকর্মীর কাজের জন্য গত ১৫ জুলাই মধ্যপ্রাচ্যে পাঠায় । সেখানে কাজ করা অবস্থায় ভিকটিমকে পায়ে, পিঠেসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গরম ইস্ত্রি দিয়ে ছেকা দিয়ে মারাতœক জখম করা হয়। এতে ভিকটিম গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে গত ৮ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে ফিরে আসেন। মিডফোর্ড স্যার সলিমুল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে নিজ বাসায় রয়েছেন।
প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় যে, আটক নারী পেশাদার নারী ও শিশু পাচারকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য। বেশ কিছুদিন যাবত সে ও তার স্বামী মোঃ নাজমুল পরস্পর যোগসাজসে সংঘবদ্ধভাবে পতিতাবৃত্তি ও যৌন কাজে নিয়োজিত করার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন বয়সের নারী ও শিশুদের প্রলোভন দেখিয়ে মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে গৃহকর্মী কাজের নামে পাচার করে আসছিল। এই দম্পত্তি ৭০ থেকে ৮০ হাজার টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন বয়সী নারীদের বিদেশে বিক্রি করত। সাধারণ মানুষকে বিভিন্ন দেশে পাঠানোর প্রলোভন দেখিয়ে তাদের নিকট থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিত। পাচারকৃত নারীরা সেখানে গিয়ে বিভিন্নভাবে যৌন ও শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছে। তার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় নিয়মিত মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।