নারায়ণগঞ্জ ০১:৪৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত জুন মাসের ১৭ তারিখ কোরবানির ঈদ পালিত হওয়ার সম্ভবনা রিয়াদে নোভ আল আম্মার ইষ্টাবলিস্ট এর আয়োজনে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

আড়াইহাজারে ফিল্মি স্টাইলে চাল ব্যবসায়ীকে অপহরণ

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:০৬:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ জুন ২০২১
  • ১১০ বার পড়া হয়েছে

আড়াইহাজার প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় পাওনা টাকা চাওয়ায় ফিল্মী স্টাইলে এক ব্যক্তিকে অপহরণ করে আটকে রেখে নির্যাতন করা হয়েছে। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় পুলিশ উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।
বুধবার দুপুরে উপজেলার বাজারের হাজী দায়ানের ৬ তলা ভবনের নিচ তলা থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।
অপহৃত হলেন, উপজেলার হাইজাদি ইউনিয়নের ইলমদী এলাকার আব্দুল খালেকের ছেলে মোহাম্মদ ইব্রাহিম (৪২)। সে চাল ব্যবসায়ী।
অপহৃতের বরাত দিয়ে আড়াইহাজার থানার পরিদর্শক (ভারপ্রাপ্ত ওসি) আনিছুর রহমান মোল্লা বলেন, ‘মঙ্গলবার দুপুরে ১টার দিকে চাল কেনার জন্য উপজেলার বাজারে আসেন ইব্রাহিম। ওইসময় একই গ্রামের মোজ্জাম্মেলের ছেলে ব্যবসায়ী এনামুল ফোন দিয়ে ডেকে নেয়। পরে তাকে অপহরণ করে উপজেলা শহরের হাজী দায়ানের ৬ তলা ভবনের নিচ তলায় হাত-পা বেঁধে ফেলে রাখা হয়। এর আগে মুখ বেঁধে তাকে ব্যাপক মারধরও করা হয়।’

তিনি বলেন, ‘ইব্রাহিমকে খোঁজে না পেয়ে স্বজনরা আড়াইহাজার থানায় নিখোঁজের জিডি করেন। এরপর থেকেই আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে ইব্রাহিমকে উদ্ধারে অভিযান শুরু করে পুলিশ। এরই মধ্যে সকালে কান্নার শব্দ পেয়ে ওই ভবনের লোকজন কান্নার উৎস খোঁজতে গিয়ে ইব্রাহিমকে হাত-পা বাঁধা মুমূর্ষ অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে ইব্রাহিমকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে সেখানকার ডাক্তার তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।’
তিনি আরো বলেন,‘ইব্রাহিমের হাত পা বেঁধে রাখায় রক্ত জমে গিয়েছে। এতে সে হাত পা নাড়াচাড়া করতে পারছে না। এছাড়া শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

কেন ইব্রাহিমকে অপহরণ করা হয়েছে? জবাবে তিনি বলেন,‘ব্যবসায়ী লেনদেন নিয়ে এনামুলের কাছে ১ লাখ টাকা পাওনা ছিল। ওই টাকা পরিশোধের জন্য ইব্রাহিমকে চাপ দিচ্ছিল ইব্রাহিম। এজন্য ক্ষোভে এনামুল কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে এ কাজ করেছে। এনামুলকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে আরো বিস্তারিত জানা যাবে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা

আড়াইহাজারে ফিল্মি স্টাইলে চাল ব্যবসায়ীকে অপহরণ

আপডেট সময় : ০১:০৬:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ জুন ২০২১

আড়াইহাজার প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় পাওনা টাকা চাওয়ায় ফিল্মী স্টাইলে এক ব্যক্তিকে অপহরণ করে আটকে রেখে নির্যাতন করা হয়েছে। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় পুলিশ উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।
বুধবার দুপুরে উপজেলার বাজারের হাজী দায়ানের ৬ তলা ভবনের নিচ তলা থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।
অপহৃত হলেন, উপজেলার হাইজাদি ইউনিয়নের ইলমদী এলাকার আব্দুল খালেকের ছেলে মোহাম্মদ ইব্রাহিম (৪২)। সে চাল ব্যবসায়ী।
অপহৃতের বরাত দিয়ে আড়াইহাজার থানার পরিদর্শক (ভারপ্রাপ্ত ওসি) আনিছুর রহমান মোল্লা বলেন, ‘মঙ্গলবার দুপুরে ১টার দিকে চাল কেনার জন্য উপজেলার বাজারে আসেন ইব্রাহিম। ওইসময় একই গ্রামের মোজ্জাম্মেলের ছেলে ব্যবসায়ী এনামুল ফোন দিয়ে ডেকে নেয়। পরে তাকে অপহরণ করে উপজেলা শহরের হাজী দায়ানের ৬ তলা ভবনের নিচ তলায় হাত-পা বেঁধে ফেলে রাখা হয়। এর আগে মুখ বেঁধে তাকে ব্যাপক মারধরও করা হয়।’

তিনি বলেন, ‘ইব্রাহিমকে খোঁজে না পেয়ে স্বজনরা আড়াইহাজার থানায় নিখোঁজের জিডি করেন। এরপর থেকেই আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে ইব্রাহিমকে উদ্ধারে অভিযান শুরু করে পুলিশ। এরই মধ্যে সকালে কান্নার শব্দ পেয়ে ওই ভবনের লোকজন কান্নার উৎস খোঁজতে গিয়ে ইব্রাহিমকে হাত-পা বাঁধা মুমূর্ষ অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে ইব্রাহিমকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে সেখানকার ডাক্তার তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।’
তিনি আরো বলেন,‘ইব্রাহিমের হাত পা বেঁধে রাখায় রক্ত জমে গিয়েছে। এতে সে হাত পা নাড়াচাড়া করতে পারছে না। এছাড়া শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

কেন ইব্রাহিমকে অপহরণ করা হয়েছে? জবাবে তিনি বলেন,‘ব্যবসায়ী লেনদেন নিয়ে এনামুলের কাছে ১ লাখ টাকা পাওনা ছিল। ওই টাকা পরিশোধের জন্য ইব্রাহিমকে চাপ দিচ্ছিল ইব্রাহিম। এজন্য ক্ষোভে এনামুল কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে এ কাজ করেছে। এনামুলকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে আরো বিস্তারিত জানা যাবে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।