নারায়ণগঞ্জ ১১:০১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ধর্ম ব্যবসায়ীদের কুরুচিপূর্ণ প্রচারণা নারীদেরকে দিনদিন অসহায় করে তুলছে–আবু হাসান টিপু

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৪০:৪০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ মার্চ ২০২১
  • ১৯ বার পড়া হয়েছে

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : আন্তর্জাতিক নারী দিবসের সমাবেশে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় পলিট ব্যুরোর সদস্য ও বাম গণতান্ত্রিক জোটের শীর্ষ নেতা জননেতা কমরেড আবু হাসান টিপু বলেছেন, সরকারের প্রচ্ছন্ন মদদে ধর্ম ব্যবসায়ীদের ধারাবাহিক নারী বিরোধী কুরুচিপূর্ণ প্রচারণা নারীদেরকে দিনদিন অসহায় ও বিপন্ন করে তুলছে। সংবিধানে নারীর সমঅধিকারের কথা বলা থাকলেও স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরেও নারীর সম্মান, মর্যাদা ও অধিকার নিশ্চিত হয়নি। নারী এখনও শ্রেণীশোষণ ও পুরুষতান্ত্রিক শোষণ-নিপীড়ন ও বঞ্চনার শিকার। নারীর উপর নির্যাতন-নিপীড়ন-সহিংসতা, হত্যা-ধর্ষণ-নারী ও শিশু পাচার, মজুরী বৈষম্য এখন পর্যন্ত রাষ্ট্র ও সমাজের জন্য বড়ই লজ্জার।

বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি শ্রমিকনেতা মাহমুদ হোসেন বলেছেন, জাতীয় উৎপাদনে নারী শ্রমিক ও কিষাণীদের যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা এখন পর্যন্ত তার উপযুক্ত স্বীকৃতি নেই। দেশের মোট শ্রমশক্তির ৪০ শতাংশের বেশী নারী হলেও এখনও তারা উপযুক্ত মজুরী ও অধিকার থেকে বঞ্চিত। রাষ্ট্র, সমাজ ও পরিবারে নারীরা নানাভাবে উপেক্ষিত। আজ সমাজের ভোগবাদী বিকৃত মানসিকতার কারণে নারীরা কেবল পণ্য হিসেবেই গণ্য হচ্ছে।

সমাবেশে সভাপতিত্বকালে শ্রমজীবী নারী মৈত্রীর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক রাশিদা বেগম বলেছেন, দেশের সামগ্রিক অর্থনীতিতে নারীদের যে অবদান তারও উপযুক্ত স্বীকৃতি নেই। বস্তুত; নারীকে এখনও পর্যন্ত দ্বিতীয় শ্রেণীর মানুষ হিসাবেই গণ্য করা হচ্ছে। দেশে একমুখি বিজ্ঞানভিত্তিক ও অসাম্প্রদায়িক শিক্ষার অনুপস্থিতির কারণে পশ্চাৎপদ কূপমুন্ডক ধ্যান-ধারণা ও নানামুখী প্রচারণাও নারীকে পিছিয়ে দিচ্ছে। দেশের অর্ধেক জনগোষ্ঠিকে সমমর্যাদা না দিয়ে সমাজ ও রাষ্ট্র কোনভাবেই নিজেকে সভ্য ও গণতান্ত্রিক দাবি করতে পারে না। আরতাই নারী বিরোধী সকল আইনের বিলোপ ও নারী বিরোধী সকল ধরনের প্রচারণা বন্ধ করার লক্ষ্যে নারীদের পাশাপাশি পুরুষদেরও ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসতে হবে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমজীবী নারী মৈত্রী সদস্য রোকসানা বেগম বার্তা থেকে জানা যায়,
৮মার্চ মোসবার বিকেলে চাষাঢ়াস্থ নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে গুরুত্বর্পর্ণ বক্তব্য রাখেন, বিপ্লবী শ্রমিক সংহতির নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি সহিদুল আলম নাননু, নারীনেত্রী রোকসানা বেগম, তিথি সুবর্না, আইভি রহমান প্রমূখ।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

ধর্ম ব্যবসায়ীদের কুরুচিপূর্ণ প্রচারণা নারীদেরকে দিনদিন অসহায় করে তুলছে–আবু হাসান টিপু

আপডেট সময় : ০৬:৪০:৪০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ মার্চ ২০২১

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : আন্তর্জাতিক নারী দিবসের সমাবেশে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় পলিট ব্যুরোর সদস্য ও বাম গণতান্ত্রিক জোটের শীর্ষ নেতা জননেতা কমরেড আবু হাসান টিপু বলেছেন, সরকারের প্রচ্ছন্ন মদদে ধর্ম ব্যবসায়ীদের ধারাবাহিক নারী বিরোধী কুরুচিপূর্ণ প্রচারণা নারীদেরকে দিনদিন অসহায় ও বিপন্ন করে তুলছে। সংবিধানে নারীর সমঅধিকারের কথা বলা থাকলেও স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরেও নারীর সম্মান, মর্যাদা ও অধিকার নিশ্চিত হয়নি। নারী এখনও শ্রেণীশোষণ ও পুরুষতান্ত্রিক শোষণ-নিপীড়ন ও বঞ্চনার শিকার। নারীর উপর নির্যাতন-নিপীড়ন-সহিংসতা, হত্যা-ধর্ষণ-নারী ও শিশু পাচার, মজুরী বৈষম্য এখন পর্যন্ত রাষ্ট্র ও সমাজের জন্য বড়ই লজ্জার।

বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি শ্রমিকনেতা মাহমুদ হোসেন বলেছেন, জাতীয় উৎপাদনে নারী শ্রমিক ও কিষাণীদের যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা এখন পর্যন্ত তার উপযুক্ত স্বীকৃতি নেই। দেশের মোট শ্রমশক্তির ৪০ শতাংশের বেশী নারী হলেও এখনও তারা উপযুক্ত মজুরী ও অধিকার থেকে বঞ্চিত। রাষ্ট্র, সমাজ ও পরিবারে নারীরা নানাভাবে উপেক্ষিত। আজ সমাজের ভোগবাদী বিকৃত মানসিকতার কারণে নারীরা কেবল পণ্য হিসেবেই গণ্য হচ্ছে।

সমাবেশে সভাপতিত্বকালে শ্রমজীবী নারী মৈত্রীর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক রাশিদা বেগম বলেছেন, দেশের সামগ্রিক অর্থনীতিতে নারীদের যে অবদান তারও উপযুক্ত স্বীকৃতি নেই। বস্তুত; নারীকে এখনও পর্যন্ত দ্বিতীয় শ্রেণীর মানুষ হিসাবেই গণ্য করা হচ্ছে। দেশে একমুখি বিজ্ঞানভিত্তিক ও অসাম্প্রদায়িক শিক্ষার অনুপস্থিতির কারণে পশ্চাৎপদ কূপমুন্ডক ধ্যান-ধারণা ও নানামুখী প্রচারণাও নারীকে পিছিয়ে দিচ্ছে। দেশের অর্ধেক জনগোষ্ঠিকে সমমর্যাদা না দিয়ে সমাজ ও রাষ্ট্র কোনভাবেই নিজেকে সভ্য ও গণতান্ত্রিক দাবি করতে পারে না। আরতাই নারী বিরোধী সকল আইনের বিলোপ ও নারী বিরোধী সকল ধরনের প্রচারণা বন্ধ করার লক্ষ্যে নারীদের পাশাপাশি পুরুষদেরও ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসতে হবে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমজীবী নারী মৈত্রী সদস্য রোকসানা বেগম বার্তা থেকে জানা যায়,
৮মার্চ মোসবার বিকেলে চাষাঢ়াস্থ নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে গুরুত্বর্পর্ণ বক্তব্য রাখেন, বিপ্লবী শ্রমিক সংহতির নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি সহিদুল আলম নাননু, নারীনেত্রী রোকসানা বেগম, তিথি সুবর্না, আইভি রহমান প্রমূখ।