নারায়ণগঞ্জ ০৯:৪৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতীর পোশাক শ্রমিক নিহত সোনারগাঁয়ের ১টি হত্যা মামলার প্রধান আসামিসহ দুজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১ নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত

সিদ্ধিরগঞ্জে ১৯ দিন ধরে তিন সন্তানের জনক আমির হোসেন নিখোঁজ

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৩৮:০৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ জুন ২০২০
  • ৯২ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জে বাসা থেকে বিদ্যুতের বিল দিতে বের হয়ে ১৯ দিন ধরে তিন সন্তানের জনক ড্রাইভার আমির হোসেন নিখোঁজ রয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ৩ জুন বুধবার সকাল ১০টায় মহানগরের ৪নং ওয়ার্ডের শিমরাইল দক্ষিণপাড়া রিনালয় সিএনজি পাম্পের পিছনের এলাকার নিজ বসতবাড়ি থেকে ৪১ হাজার টাকা নিয়ে চিটাগাং রোড ডিপিডিসি কার্যালয়ে বিল দিতে বের হয়ে সে আর বাড়ি ফিরেনি। এ ঘটনায় সম্ভাব্য সকল স্থাণে খোঁজা-খুঁজি করে না পেয়ে নিখোঁজ আমির হোসেনের বড়ভাই হাসান আলী গত ৫ জুন সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেছেন। সিদ্ধিরগঞ্জ থানার জিডি নং-২০২৫, তাং-০৫/০৬/২০ইং। বর্তমানে পরিবারটি চরম দুশ্চিন্তায় দিন যাপন করছে।
নিখোঁজ আমির হোসেন সিদ্ধিরগঞ্জের নাসিক ৪নং ওয়ার্ডের শিমরাইল দক্ষিণপাড়া এলাকার চাঁন মিয়ার ছেলে। পাঁচ ভাই-বোনের মধ্যে সে চতুর্থ। সে সংসার জীবনে দুই ছেলে ও এক ছেলের জনক। পেশায় সে একজন প্রাইভেট চালক। লকডাউনের কারণে চাকরি না থাকায় সে বেকার জীবন পাড় করছিল।
অভিযোগে নিখোঁজের বড়ভাই হাসান আলী জানায়, গত ৩ জুন সকাল ১০ টায় বাড়ি থেকে ৪১ হাজার টাকা নিয়ে চিটাগাং রোডের বিদ্যুৎ অফিসে বিল দিতে গিয়ে সে আর বাসায় ফিরে আসেনি। আমরা সম্ভাব্য সকল জায়গায় খোঁজা খুঁজি করে না পেয়ে ৫ জুন শুক্রবার থানায় একটি জিডি করেছি। কিন্তু ১৯ দিন হয়ে গেলেও আমরা আমাদের ভাইয়ের কোন সন্ধান পাচ্ছিনা। তার তিনটি সন্তান রয়েছে। তার স্ত্রী-সন্তানসহ আমাদের পরিবারের সবাই চরম হতাশায় রয়েছি। আমরা আমাদের ভাইয়ের সন্ধান পেতে প্রশাসনের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করছি।
নিখোঁজের বোন জানায়, ভাই আমার ভাইয়ের জন্য আমার বৃদ্ধ মা তার ছেলের সন্ধানে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে হন্যে হয়ে ঘুরছে। তার কোন সন্ধান না পেয়ে দিন-রাত শুধু কাঁদছে। আমরা জানিনা আমাদের ভাইয়ের কি হয়েছে। প্রশাসনের কাছে বিনীত ভাবে অনুরোধ করছি যেন তাঁরা আমার ভাইয়ের সন্ধানের জন্য সর্বাত্মক সহযোগিতা করছে। আমাদের পরিবারের সবার চোখ দিয়ে শুধু অশ্রæ ঝরছে।
এ ব্যাপারে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (অপারেশন্স) মো: রুবেল হাওলাদার জানায়, এমন একটি অভিযোগ আমরা পেয়ে তদন্ত শুরু করেছি। বিভিন্ন তথ্য অনুসন্ধান করে আগাচ্ছি। তবে ঐ পরিবারের লোকজনকে আমরা পাচ্ছি না। তারা আমাদের সাথে যোগাযোগ করে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করলে আমাদের কাজ করতে সুবিধা হবে। আমরা নিখোঁজের সন্ধানে কাজ করছি।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতীর পোশাক শ্রমিক নিহত

সিদ্ধিরগঞ্জে ১৯ দিন ধরে তিন সন্তানের জনক আমির হোসেন নিখোঁজ

আপডেট সময় : ১১:৩৮:০৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ জুন ২০২০

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জে বাসা থেকে বিদ্যুতের বিল দিতে বের হয়ে ১৯ দিন ধরে তিন সন্তানের জনক ড্রাইভার আমির হোসেন নিখোঁজ রয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ৩ জুন বুধবার সকাল ১০টায় মহানগরের ৪নং ওয়ার্ডের শিমরাইল দক্ষিণপাড়া রিনালয় সিএনজি পাম্পের পিছনের এলাকার নিজ বসতবাড়ি থেকে ৪১ হাজার টাকা নিয়ে চিটাগাং রোড ডিপিডিসি কার্যালয়ে বিল দিতে বের হয়ে সে আর বাড়ি ফিরেনি। এ ঘটনায় সম্ভাব্য সকল স্থাণে খোঁজা-খুঁজি করে না পেয়ে নিখোঁজ আমির হোসেনের বড়ভাই হাসান আলী গত ৫ জুন সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেছেন। সিদ্ধিরগঞ্জ থানার জিডি নং-২০২৫, তাং-০৫/০৬/২০ইং। বর্তমানে পরিবারটি চরম দুশ্চিন্তায় দিন যাপন করছে।
নিখোঁজ আমির হোসেন সিদ্ধিরগঞ্জের নাসিক ৪নং ওয়ার্ডের শিমরাইল দক্ষিণপাড়া এলাকার চাঁন মিয়ার ছেলে। পাঁচ ভাই-বোনের মধ্যে সে চতুর্থ। সে সংসার জীবনে দুই ছেলে ও এক ছেলের জনক। পেশায় সে একজন প্রাইভেট চালক। লকডাউনের কারণে চাকরি না থাকায় সে বেকার জীবন পাড় করছিল।
অভিযোগে নিখোঁজের বড়ভাই হাসান আলী জানায়, গত ৩ জুন সকাল ১০ টায় বাড়ি থেকে ৪১ হাজার টাকা নিয়ে চিটাগাং রোডের বিদ্যুৎ অফিসে বিল দিতে গিয়ে সে আর বাসায় ফিরে আসেনি। আমরা সম্ভাব্য সকল জায়গায় খোঁজা খুঁজি করে না পেয়ে ৫ জুন শুক্রবার থানায় একটি জিডি করেছি। কিন্তু ১৯ দিন হয়ে গেলেও আমরা আমাদের ভাইয়ের কোন সন্ধান পাচ্ছিনা। তার তিনটি সন্তান রয়েছে। তার স্ত্রী-সন্তানসহ আমাদের পরিবারের সবাই চরম হতাশায় রয়েছি। আমরা আমাদের ভাইয়ের সন্ধান পেতে প্রশাসনের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করছি।
নিখোঁজের বোন জানায়, ভাই আমার ভাইয়ের জন্য আমার বৃদ্ধ মা তার ছেলের সন্ধানে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে হন্যে হয়ে ঘুরছে। তার কোন সন্ধান না পেয়ে দিন-রাত শুধু কাঁদছে। আমরা জানিনা আমাদের ভাইয়ের কি হয়েছে। প্রশাসনের কাছে বিনীত ভাবে অনুরোধ করছি যেন তাঁরা আমার ভাইয়ের সন্ধানের জন্য সর্বাত্মক সহযোগিতা করছে। আমাদের পরিবারের সবার চোখ দিয়ে শুধু অশ্রæ ঝরছে।
এ ব্যাপারে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (অপারেশন্স) মো: রুবেল হাওলাদার জানায়, এমন একটি অভিযোগ আমরা পেয়ে তদন্ত শুরু করেছি। বিভিন্ন তথ্য অনুসন্ধান করে আগাচ্ছি। তবে ঐ পরিবারের লোকজনকে আমরা পাচ্ছি না। তারা আমাদের সাথে যোগাযোগ করে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করলে আমাদের কাজ করতে সুবিধা হবে। আমরা নিখোঁজের সন্ধানে কাজ করছি।