নারায়ণগঞ্জ ০১:০৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
সোনারগাঁয়ে টেক্সটাইল মিলে ও মিষ্টি কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ড ফতুল্লায় অপহরনকারী চক্রের নারী সদস্যসহ গ্রেপ্তার ৫, অপহৃত উদ্ধার ১৩৯ জন শহীদদের স্মরণে বক্তাবলী ইউনিয়ন ছাত্রদলের শ্রদ্ধাঞ্জলি আড়াইহাজারে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে মাটি বিক্রি, নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ আড়াইহাজারে পরীক্ষার হল থেকে ছাত্রীকে নিয়ে উধাও ছাত্রলীগ নেতা দুই মাসের মধ্যে হাইড্রোলিক হর্ন বন্ধের সিদ্ধান্ত জাপান, সৌদি আরবের পর এবার গ্যালারি পরিষ্কার করল মরক্কোর দর্শকরা শিমু হত্যায় স্বামীসহ দুই জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন ২৬ শর্তে বিএনপিকে ঢাকায় সমাবেশের অনুমতি সোনারগাঁয়ে মহাসড়ক বর্ধিতকরণকাজে জনদুর্ভোগ চরমে

সিদ্ধিরগঞ্জে শ্রমিক অসন্তোষ কারখানা ভাংচুর

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৫৯:৪৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯
  • ৩৮ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জে বেতন পরিশোধ না করে বিনা নোটিশে শ্রমিক ছাটাই করার প্রতিবাদে রপ্তানিমূখী একটি পোশাক কারখানায় হামলা ভাংচুরর ও চার কর্মকর্তাকে পিটিয়ে আহত করেছে শ্রমিকরা। সোমবার সকাল ১০ টার দিকে সুমিলপাড়া এলাকায় মুনলাক্স কম্পোজিট নীট গার্মেন্টস লিমিটেডে এ ঘটনা ঘটে।
আহতরা হলেন, কারখানার জিএম মনির, পিএম শহিদ, কমপ্লেক্স ম্যানেজার শিহাব উদ্দিন ও কাটারম্যান সেলিম। দুই জনকে নারায়ণগঞ্জ খানপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
অভিযোগ জানা গেছে, বিনা নোটিশে কারখানার অপারেটর আমিনুলকে গত রোববার ছাটাই করে কর্তৃপক্ষ। এর প্রতিবাদে শ্রমিকরা কারখানায় হামলা চালিয়ে অফিস ক, ম্যানেজিং ডিরেক্টরের ক ও কনফারেন্স রুম ভাংচুর করে।
শ্রমিকদের অভিযোগ, কারখানার এইচ আর এডমিন শিহাব উদ্দিন গত রবিবার বহিরাগত লোক এনে অপারেটর আমিনুলকে রাত সাড়ে ৯ টা পর্যন্ত আটক রেখে বিভিন্ন হুমকি দিয়ে ছাটাই করে দেয়। বিষয়টি জানতে পেরে সোমবার সকালে আমিনুলের ছাটাই প্রত্যাহারের জন্য শিহাব উদ্দিনকে অনুরোধ করে অন্যান্য শ্রমিকরা। তখন শিহাব অশ্লীলভাষায় গালাগালি করে। তাছাড়া নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত জিএম হুমায়ূন নারী শ্রমিকদের কূ-প্রস্তাব দেয় বলে অভিযোগ জানায় একাধিক নারী শ্রমিক। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করেন হুমায়ূন।
শ্রমিক আমিনুল জানায়, মালিক পক্ষের কাছে ৩৭ হাজার ৪৮৩ টাকা পাওনা রয়েছে। তার পাওনা পরিশোধ না করে অন্যায় ভাবে ছাটাই করা হয়েছে।
বিনা নোটিশে ছাটাইয়ের অভিযোগ অস্বীকার করে কারখানা মালিক মহিউদ্দিন বিশ্বাস জানায়, শ্রমিকদের ভাংচুরে কারখানার কমপক্ষে ২৫ থেকে ৩০ লাখ টাকার য়তি হয়েছে। চারজন কর্মকর্তাকে মারধর করেছে।
শিল্পপুলিশের সিনিয়র এএসপি আমিরুল জানায়, শ্রমিকদের অভিযোগ তদন্ত করা হবে। অভিযোগের সত্যতা পেলে মালিক পক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে। পাশাপাশি কারখানায় হামলা ভাংচুরের পিছনে কোন অসৎ উদ্দেশ্য রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হবে।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি কামরুল ফারুক জানায়, বিশৃঙ্খলার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেছে। শ্রমিকরা লিখিত অভিযোগ দিলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সোনারগাঁয়ে টেক্সটাইল মিলে ও মিষ্টি কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ড

সিদ্ধিরগঞ্জে শ্রমিক অসন্তোষ কারখানা ভাংচুর

আপডেট সময় : ১১:৫৯:৪৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জে বেতন পরিশোধ না করে বিনা নোটিশে শ্রমিক ছাটাই করার প্রতিবাদে রপ্তানিমূখী একটি পোশাক কারখানায় হামলা ভাংচুরর ও চার কর্মকর্তাকে পিটিয়ে আহত করেছে শ্রমিকরা। সোমবার সকাল ১০ টার দিকে সুমিলপাড়া এলাকায় মুনলাক্স কম্পোজিট নীট গার্মেন্টস লিমিটেডে এ ঘটনা ঘটে।
আহতরা হলেন, কারখানার জিএম মনির, পিএম শহিদ, কমপ্লেক্স ম্যানেজার শিহাব উদ্দিন ও কাটারম্যান সেলিম। দুই জনকে নারায়ণগঞ্জ খানপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
অভিযোগ জানা গেছে, বিনা নোটিশে কারখানার অপারেটর আমিনুলকে গত রোববার ছাটাই করে কর্তৃপক্ষ। এর প্রতিবাদে শ্রমিকরা কারখানায় হামলা চালিয়ে অফিস ক, ম্যানেজিং ডিরেক্টরের ক ও কনফারেন্স রুম ভাংচুর করে।
শ্রমিকদের অভিযোগ, কারখানার এইচ আর এডমিন শিহাব উদ্দিন গত রবিবার বহিরাগত লোক এনে অপারেটর আমিনুলকে রাত সাড়ে ৯ টা পর্যন্ত আটক রেখে বিভিন্ন হুমকি দিয়ে ছাটাই করে দেয়। বিষয়টি জানতে পেরে সোমবার সকালে আমিনুলের ছাটাই প্রত্যাহারের জন্য শিহাব উদ্দিনকে অনুরোধ করে অন্যান্য শ্রমিকরা। তখন শিহাব অশ্লীলভাষায় গালাগালি করে। তাছাড়া নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত জিএম হুমায়ূন নারী শ্রমিকদের কূ-প্রস্তাব দেয় বলে অভিযোগ জানায় একাধিক নারী শ্রমিক। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করেন হুমায়ূন।
শ্রমিক আমিনুল জানায়, মালিক পক্ষের কাছে ৩৭ হাজার ৪৮৩ টাকা পাওনা রয়েছে। তার পাওনা পরিশোধ না করে অন্যায় ভাবে ছাটাই করা হয়েছে।
বিনা নোটিশে ছাটাইয়ের অভিযোগ অস্বীকার করে কারখানা মালিক মহিউদ্দিন বিশ্বাস জানায়, শ্রমিকদের ভাংচুরে কারখানার কমপক্ষে ২৫ থেকে ৩০ লাখ টাকার য়তি হয়েছে। চারজন কর্মকর্তাকে মারধর করেছে।
শিল্পপুলিশের সিনিয়র এএসপি আমিরুল জানায়, শ্রমিকদের অভিযোগ তদন্ত করা হবে। অভিযোগের সত্যতা পেলে মালিক পক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে। পাশাপাশি কারখানায় হামলা ভাংচুরের পিছনে কোন অসৎ উদ্দেশ্য রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হবে।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি কামরুল ফারুক জানায়, বিশৃঙ্খলার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেছে। শ্রমিকরা লিখিত অভিযোগ দিলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।