নারায়ণগঞ্জ ১২:৫৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিশু ও বিয়ের প্রলোভনে মহিলালীগ নেত্রীকে ধর্ষণ

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:২৫:৩৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৭ অক্টোবর ২০১৯
  • ২২ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি :সিদ্ধিরগঞ্জে যুবমহিলা লীগ নেত্রীসহ পৃথক দুইটি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। মিজমিজি ও জালাকুড়ি এলাকায় ঘটনা দুইটি ঘটে। এ ঘটনায় গত রবিবার রাতে থানায় একটি মামলা ও আরেকটি অভিযোগ করা হয়েছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে যুবমহিলা লীগের এক নেত্রীর সাথে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তুলে মিজমিজি এলাকার সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শরিফুর রহমান পারভেজ। এতে ওই নেত্রী দুই মাসের অন্ত:সত্তা হয়ে পড়ে। বিয়ে করার কথা বললে সে অস্বীকৃতি জানায়। তখন ওই নেত্রী গত রবিবার রাতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। এর পর থানার এসআই কামাল অভিযুক্ত পারভেজকে ধরতে রাতেই তার বাড়িতে অভিযান চালায়। কিন্তু পুলিশ তাকে বাড়িতে পায়নি। নির্ভরযোগ্য একটি সূত্রে জানা গেছে, থানায় অভিযোগ করার খবর পেয়েই পারভেজ আতœগোপন করেছে। সে দেশ ছেড়ে ভারতে পালিয়ে যাবার চেষ্টা করছে বলে সূত্রটির দাবি।
পারভেজ মিজিমিজি আবদুল আলিপুল এলাকার আবদুর রহমানের ছেলে। সে একসময় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ছিল।

অপর দিকে জালকুড়ি এলাকায় সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণ করার অভিযোগে মো: সেলিমকে আসামি করে রবিবার রাতে মামলা করেছে ভিকটিমের মা।
সেলিম জামালপুর জেলার বকশিগঞ্জ থানার মালিরচর গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে। সে জালকুড়ি নাইনতার পাড়া এলাকার ভাড়াটিয়া।
মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, শিশুটির মা বাবা কর্মস্থলে থাকার সুযোগে সেলিম গত ৪ অক্টোবর দুপুরে ওই শিশুকে বাসায় একা পেয়ে ধর্ষণ করে। পরে শিশুর মা বাবা বাড়িতে এসে ঘটনা জানতে পেরে থানায় অভিযোগ করে।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুল হক জানায়, শিশু ধর্ষণ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আর একটি ঘটনায় পারভেজ নামে একজনের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের লিখিত অভিযোগ করেছে ভিকটিম। তদন্ত করে মামলা রুজু করার প্রস্তুতি চলছে। অভিযুক্তদের আটক করার চেষ্টা চলছে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

শিশু ও বিয়ের প্রলোভনে মহিলালীগ নেত্রীকে ধর্ষণ

আপডেট সময় : ১১:২৫:৩৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৭ অক্টোবর ২০১৯

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি :সিদ্ধিরগঞ্জে যুবমহিলা লীগ নেত্রীসহ পৃথক দুইটি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। মিজমিজি ও জালাকুড়ি এলাকায় ঘটনা দুইটি ঘটে। এ ঘটনায় গত রবিবার রাতে থানায় একটি মামলা ও আরেকটি অভিযোগ করা হয়েছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে যুবমহিলা লীগের এক নেত্রীর সাথে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তুলে মিজমিজি এলাকার সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শরিফুর রহমান পারভেজ। এতে ওই নেত্রী দুই মাসের অন্ত:সত্তা হয়ে পড়ে। বিয়ে করার কথা বললে সে অস্বীকৃতি জানায়। তখন ওই নেত্রী গত রবিবার রাতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। এর পর থানার এসআই কামাল অভিযুক্ত পারভেজকে ধরতে রাতেই তার বাড়িতে অভিযান চালায়। কিন্তু পুলিশ তাকে বাড়িতে পায়নি। নির্ভরযোগ্য একটি সূত্রে জানা গেছে, থানায় অভিযোগ করার খবর পেয়েই পারভেজ আতœগোপন করেছে। সে দেশ ছেড়ে ভারতে পালিয়ে যাবার চেষ্টা করছে বলে সূত্রটির দাবি।
পারভেজ মিজিমিজি আবদুল আলিপুল এলাকার আবদুর রহমানের ছেলে। সে একসময় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ছিল।

অপর দিকে জালকুড়ি এলাকায় সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণ করার অভিযোগে মো: সেলিমকে আসামি করে রবিবার রাতে মামলা করেছে ভিকটিমের মা।
সেলিম জামালপুর জেলার বকশিগঞ্জ থানার মালিরচর গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে। সে জালকুড়ি নাইনতার পাড়া এলাকার ভাড়াটিয়া।
মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, শিশুটির মা বাবা কর্মস্থলে থাকার সুযোগে সেলিম গত ৪ অক্টোবর দুপুরে ওই শিশুকে বাসায় একা পেয়ে ধর্ষণ করে। পরে শিশুর মা বাবা বাড়িতে এসে ঘটনা জানতে পেরে থানায় অভিযোগ করে।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুল হক জানায়, শিশু ধর্ষণ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আর একটি ঘটনায় পারভেজ নামে একজনের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের লিখিত অভিযোগ করেছে ভিকটিম। তদন্ত করে মামলা রুজু করার প্রস্তুতি চলছে। অভিযুক্তদের আটক করার চেষ্টা চলছে।