নারায়ণগঞ্জ ০১:২৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সিদ্ধিরগঞ্জে আবারো ভূয়া এমবিবিএস ডাক্তার আটক

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:৫১:১১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ অগাস্ট ২০১৯
  • ৩৮ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি :সিদ্ধিরগঞ্জে আবারো এইচ.এস.সি পাস এক ভূয়া এমবিবিএস ডাক্তারকে আটক করেছে র‌্যাব-১১। মঙ্গলবার(২৭ আগস্ট) দুপুর ১ টায় চিটাগাংরোড চাঁন সুপার মার্কেটের তৃতীয় তলায় অনুমোদনহী সি.ডি.কমপ্লেক্স(কুমিল্লা ডায়াগণষ্টিক কমপ্লেক্স) এ অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। এর আগেও কয়েকজন এইচ.এস.সি পাস ভূয়া ডাক্তারকে আটক করে র‌্যাব।

ধৃত ভূয়া ডাক্তারের নাম মো: জহিরুল ইসলাম। তিনি কুমিল্লা জেলার বুড়িচং থানার জগতপুর গ্রামের মো: রফিকুল ইসলামের ছেলে। প্রায় ১ বছর ধরে তিনি এই প্রতিষ্ঠানে বসে নিয়মিত আল্ট্রা¯েœাগ্রাম ও রোগী দেখছেন।

অভিযানের নেতৃত্বদানকারী র‌্যাবের উপ-পরিচালক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব জানান, জহিরুল ইসলাম কুমিল্লা জেলার ভগবান সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৯০ সালে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এস.এস.সি ও ১৯৯৩ সালে আমির হোসেন জোবেদা কলেজ থেকে এইচ.এসসি পাস করেন। পরে ভারতের একটি ডক্টরেট সোসাইটি থেকে ইন্টারনেটের মাধ্যমে ৩ বছরের কোর্স করে নিজেকে ডাক্তার পরিচয় দিয়ে চিকিৎসা সেবা শুরু করেন। যান বেআইনী। তাছাড়া তিনি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। তাই তাকে আটক করা হয়েছে। প্রতিষ্টান মালিক প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হলে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে সিলগালা করে দেয়া হবে। ধৃত ভূয়া ডাক্তারের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন প্রক্রিয়াধিন বলে তিনি জানান।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সিদ্ধিরগঞ্জে আবারো ভূয়া এমবিবিএস ডাক্তার আটক

আপডেট সময় : ০৯:৫১:১১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ অগাস্ট ২০১৯

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি :সিদ্ধিরগঞ্জে আবারো এইচ.এস.সি পাস এক ভূয়া এমবিবিএস ডাক্তারকে আটক করেছে র‌্যাব-১১। মঙ্গলবার(২৭ আগস্ট) দুপুর ১ টায় চিটাগাংরোড চাঁন সুপার মার্কেটের তৃতীয় তলায় অনুমোদনহী সি.ডি.কমপ্লেক্স(কুমিল্লা ডায়াগণষ্টিক কমপ্লেক্স) এ অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। এর আগেও কয়েকজন এইচ.এস.সি পাস ভূয়া ডাক্তারকে আটক করে র‌্যাব।

ধৃত ভূয়া ডাক্তারের নাম মো: জহিরুল ইসলাম। তিনি কুমিল্লা জেলার বুড়িচং থানার জগতপুর গ্রামের মো: রফিকুল ইসলামের ছেলে। প্রায় ১ বছর ধরে তিনি এই প্রতিষ্ঠানে বসে নিয়মিত আল্ট্রা¯েœাগ্রাম ও রোগী দেখছেন।

অভিযানের নেতৃত্বদানকারী র‌্যাবের উপ-পরিচালক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব জানান, জহিরুল ইসলাম কুমিল্লা জেলার ভগবান সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৯০ সালে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এস.এস.সি ও ১৯৯৩ সালে আমির হোসেন জোবেদা কলেজ থেকে এইচ.এসসি পাস করেন। পরে ভারতের একটি ডক্টরেট সোসাইটি থেকে ইন্টারনেটের মাধ্যমে ৩ বছরের কোর্স করে নিজেকে ডাক্তার পরিচয় দিয়ে চিকিৎসা সেবা শুরু করেন। যান বেআইনী। তাছাড়া তিনি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। তাই তাকে আটক করা হয়েছে। প্রতিষ্টান মালিক প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হলে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে সিলগালা করে দেয়া হবে। ধৃত ভূয়া ডাক্তারের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন প্রক্রিয়াধিন বলে তিনি জানান।