নারায়ণগঞ্জ ০৪:০৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতীর পোশাক শ্রমিক নিহত সোনারগাঁয়ের ১টি হত্যা মামলার প্রধান আসামিসহ দুজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১ নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত

সিদ্ধিরগঞ্জে ছাত্রী ধর্ষণকারী শিক্ষকের শাস্তির দাবিতে মানব বন্ধন

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:০৯:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ জুন ২০১৯
  • ১০৬ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি কান্দাপাড়া এলাকার অক্সফোর্ড হাই স্কুলের ছাত্রীদের ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত শিক্ষক আশরাফুল ও রফিকুল ইসলামের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং স্কুলটি বন্ধের দাবিতে মানব বন্ধন করেছে ১৪ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। এসময় শিক্ষার্থীদের পাশা পাশি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক দলের নেতাসহ বিভিন্ন পেশার লোকজন মানব বন্ধনে অংশ গ্রহন করেন। রোববার সকাল ১০ টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের, সানারপাড় ও মৌচাক বাসষ্ট্যান্ড এলাকা এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

বক্তারা বলেন, অভিযুক্তদের এমন শাস্তি দিতে হবে, যাতে ভবিষ্যতে আর কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ রকম ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন মিয়া, নাসিক ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইকবাল হোসেন, থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক ভূইয়া রাজু, মিজমিজি পশ্চিম পাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাইদুর রহমান, এন আলম মেরিট কেয়ার স্কুলের প্রধান শিক্ষক নুরুল আলম, আনন্দলোক উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি আব্দুর রহীম মেম্বারসহ প্রমুখ।

মানববন্ধনের খবর পেয়ে ছুটে আসেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক-সার্কেল) মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর শাহীন শাহ পারভেজসহ বিপুল সংখ্যক পুলিশ সদস্য। মানব বন্ধনকারীদের দাবি পুরনের আশ্বাসদেন পুলিশ কর্মকর্তারা।

এসময় স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের এক প্রশ্নের জবাবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী বলেন, ইতোমধ্যে আমরা অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে আটক করেছি। তাদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা হয়েছে। ওই মামলায় দুজনকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। যদি আরো কোন ব্ল্যাকমেইলিংয়ের শীকার শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা তাদের বিরুদ্ধে মামলা করতে চায় পুলিশ মামলা গ্রহন করবে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতীর পোশাক শ্রমিক নিহত

সিদ্ধিরগঞ্জে ছাত্রী ধর্ষণকারী শিক্ষকের শাস্তির দাবিতে মানব বন্ধন

আপডেট সময় : ০২:০৯:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩০ জুন ২০১৯

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি কান্দাপাড়া এলাকার অক্সফোর্ড হাই স্কুলের ছাত্রীদের ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত শিক্ষক আশরাফুল ও রফিকুল ইসলামের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং স্কুলটি বন্ধের দাবিতে মানব বন্ধন করেছে ১৪ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। এসময় শিক্ষার্থীদের পাশা পাশি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক দলের নেতাসহ বিভিন্ন পেশার লোকজন মানব বন্ধনে অংশ গ্রহন করেন। রোববার সকাল ১০ টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের, সানারপাড় ও মৌচাক বাসষ্ট্যান্ড এলাকা এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

বক্তারা বলেন, অভিযুক্তদের এমন শাস্তি দিতে হবে, যাতে ভবিষ্যতে আর কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ রকম ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন মিয়া, নাসিক ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইকবাল হোসেন, থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক ভূইয়া রাজু, মিজমিজি পশ্চিম পাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাইদুর রহমান, এন আলম মেরিট কেয়ার স্কুলের প্রধান শিক্ষক নুরুল আলম, আনন্দলোক উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি আব্দুর রহীম মেম্বারসহ প্রমুখ।

মানববন্ধনের খবর পেয়ে ছুটে আসেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক-সার্কেল) মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর শাহীন শাহ পারভেজসহ বিপুল সংখ্যক পুলিশ সদস্য। মানব বন্ধনকারীদের দাবি পুরনের আশ্বাসদেন পুলিশ কর্মকর্তারা।

এসময় স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের এক প্রশ্নের জবাবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী বলেন, ইতোমধ্যে আমরা অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে আটক করেছি। তাদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা হয়েছে। ওই মামলায় দুজনকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। যদি আরো কোন ব্ল্যাকমেইলিংয়ের শীকার শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা তাদের বিরুদ্ধে মামলা করতে চায় পুলিশ মামলা গ্রহন করবে।