নারায়ণগঞ্জ ১০:২৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সিদ্ধিরগঞ্জের ওয়াপদা কলোনীতে সেনা ক্যাম্প সংলগ্ন সরকারি খাল ও সড়ক দখল করে বালু ব্যবসা

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:৩১:৪০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১ অগাস্ট ২০১৮
  • ২৫০ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জের আটি সেনা বাহিনীর ক্যাম্প সংলগ্ন এলাকায় সামনে ওয়াপদা সড়ক ও পিছনে ডিএনডি পানি নিস্কাসন খাল দখল করে চলছে বালু ব্যবসা। সড়কের উপরে গাড়ি দাঁড় করিয়ে বালু উঠা-নামা করায় একটি যানজট ও ধুলা-বালুতে দেখা দিয়েছে চরম জনদুর্ভোগ। বালু ব্যবসার কারণে পানি নিস্কাসন খালের তলদেশ ভরাট হয়ে যাচ্ছে। ওয়াপদা এলাকার মো: হারুন ও দেলোয়ার ওরফে টুন্ডা দেলু অবৈধ ভাবে এই বালু ব্যবসা করছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।
জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ মহানগরের ৪ নং ওয়ার্ড সিদ্ধিরগঞ্জের আটি ওয়াপদা কলোনী ডিএনডি প্রজেক্ট ১৯ ইসিবি ২৪ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন ব্রিগেড আর্মি ক্যাম্প সংলগ্ন এলাকায় অবৈধ ভাবে আস্তর ও ভিটি বালু ব্যবসা চলছে মো: হারুন ও দেলোয়ার। তারা যেখানে বালুর স্তুপ করে রাখছে তা সরকারি জায়গা। বালুর স্তুপের সামনে ওয়াপদা সড়ক আর পিছনে ডিএনডি পাম্প হাউজের পানি নিস্কাসন খাল। এই খাল দিয়েই এিনডি এলাকার পানি শীতলক্ষ্যা নদীতে চলে যায়। এই খাল দিয়ে বালুবাহী ট্রলার আসা যাওয়া ও আনলোড করায় খালের তলদেশ ভরাট হয়ে যাচ্ছে। এতে পানি চলাচল বিঘিœত হচ্ছে। অপর দিকে সামনে রয়েছে ওয়াপদা সড়ক। বালু ব্যবসায়ীরা সড়কও দখল করে নিয়েছে। তাছাড়া সড়কের উপর গাড়ি দাঁড় করিয়ে বালু উঠা নামা করায় ভোর থেকে বেলা ১২ টা পর্যন্ত প্রতিনিয়তই এই সড়কে যানজট লেগে থাকে। সড়কের উপর বালু উঠা নামা করায় জনদুর্ভোগও দেখা দিয়েছে। বাতাসে বালু উড়ে পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। পাশেই রয়েছে ওয়াপদা কলোনী স্কুল। ধুলা বালুতে স্কুল শিক্ষার্থীরা চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। পথচারীরাও পতিত হচ্ছে দুর্ভোগে।
স্থানীয়দের অভিযোগ, এিননডি এলাকায় সেনাবাহী অবৈধ স্থাপনা ও ব্যবসা বাণিজ্য উচ্ছেদ করে জলাবদ্ধতা নিরসন কাজ করছে নিরলস ভাবে। অথচ সেনা বাহিনীর ক্যাম্পের সাথেই ডিএনডি পানি নিস্কাসন খাল ও সড়ক দখল করে নিশ্চিন্তে বালু ব্যবসা করছে হারুন ও টুন্ডা দেলু। যা বাতির নিচে অন্ধকার এর সাথে তুলনা করছে সচেতন মহল। জনস্বার্থে এই অবৈধ বালু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করতে সেনাবাহিনী ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন স্থানীয় সাধারণ জনগণ।
এ বিষয়ে হারুনের সাথে মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি বালু ব্যবসা করার সত্যতা স্বীকার করেন। সড়ক দখল করে কি ভাবে ব্যবসা করেন জানতে চাইলে তিনি বলেন,এমনি আমার ভাবেই করতেছি।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

সিদ্ধিরগঞ্জের ওয়াপদা কলোনীতে সেনা ক্যাম্প সংলগ্ন সরকারি খাল ও সড়ক দখল করে বালু ব্যবসা

আপডেট সময় : ০৯:৩১:৪০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১ অগাস্ট ২০১৮

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জের আটি সেনা বাহিনীর ক্যাম্প সংলগ্ন এলাকায় সামনে ওয়াপদা সড়ক ও পিছনে ডিএনডি পানি নিস্কাসন খাল দখল করে চলছে বালু ব্যবসা। সড়কের উপরে গাড়ি দাঁড় করিয়ে বালু উঠা-নামা করায় একটি যানজট ও ধুলা-বালুতে দেখা দিয়েছে চরম জনদুর্ভোগ। বালু ব্যবসার কারণে পানি নিস্কাসন খালের তলদেশ ভরাট হয়ে যাচ্ছে। ওয়াপদা এলাকার মো: হারুন ও দেলোয়ার ওরফে টুন্ডা দেলু অবৈধ ভাবে এই বালু ব্যবসা করছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।
জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ মহানগরের ৪ নং ওয়ার্ড সিদ্ধিরগঞ্জের আটি ওয়াপদা কলোনী ডিএনডি প্রজেক্ট ১৯ ইসিবি ২৪ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন ব্রিগেড আর্মি ক্যাম্প সংলগ্ন এলাকায় অবৈধ ভাবে আস্তর ও ভিটি বালু ব্যবসা চলছে মো: হারুন ও দেলোয়ার। তারা যেখানে বালুর স্তুপ করে রাখছে তা সরকারি জায়গা। বালুর স্তুপের সামনে ওয়াপদা সড়ক আর পিছনে ডিএনডি পাম্প হাউজের পানি নিস্কাসন খাল। এই খাল দিয়েই এিনডি এলাকার পানি শীতলক্ষ্যা নদীতে চলে যায়। এই খাল দিয়ে বালুবাহী ট্রলার আসা যাওয়া ও আনলোড করায় খালের তলদেশ ভরাট হয়ে যাচ্ছে। এতে পানি চলাচল বিঘিœত হচ্ছে। অপর দিকে সামনে রয়েছে ওয়াপদা সড়ক। বালু ব্যবসায়ীরা সড়কও দখল করে নিয়েছে। তাছাড়া সড়কের উপর গাড়ি দাঁড় করিয়ে বালু উঠা নামা করায় ভোর থেকে বেলা ১২ টা পর্যন্ত প্রতিনিয়তই এই সড়কে যানজট লেগে থাকে। সড়কের উপর বালু উঠা নামা করায় জনদুর্ভোগও দেখা দিয়েছে। বাতাসে বালু উড়ে পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। পাশেই রয়েছে ওয়াপদা কলোনী স্কুল। ধুলা বালুতে স্কুল শিক্ষার্থীরা চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। পথচারীরাও পতিত হচ্ছে দুর্ভোগে।
স্থানীয়দের অভিযোগ, এিননডি এলাকায় সেনাবাহী অবৈধ স্থাপনা ও ব্যবসা বাণিজ্য উচ্ছেদ করে জলাবদ্ধতা নিরসন কাজ করছে নিরলস ভাবে। অথচ সেনা বাহিনীর ক্যাম্পের সাথেই ডিএনডি পানি নিস্কাসন খাল ও সড়ক দখল করে নিশ্চিন্তে বালু ব্যবসা করছে হারুন ও টুন্ডা দেলু। যা বাতির নিচে অন্ধকার এর সাথে তুলনা করছে সচেতন মহল। জনস্বার্থে এই অবৈধ বালু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করতে সেনাবাহিনী ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন স্থানীয় সাধারণ জনগণ।
এ বিষয়ে হারুনের সাথে মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি বালু ব্যবসা করার সত্যতা স্বীকার করেন। সড়ক দখল করে কি ভাবে ব্যবসা করেন জানতে চাইলে তিনি বলেন,এমনি আমার ভাবেই করতেছি।