নারায়ণগঞ্জ ১১:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত জুন মাসের ১৭ তারিখ কোরবানির ঈদ পালিত হওয়ার সম্ভবনা রিয়াদে নোভ আল আম্মার ইষ্টাবলিস্ট এর আয়োজনে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা !

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সানারপাড় এলাকার বাসিন্দা শ্রমিকলীগ নেতা মহিউদ্দিন আহমেদ মোল্লা পিস্তুলের লাইসেন্স পেতে আবেদনই করেননি। অথচ তার ছবি দিয়ে ‘পিস্তলের লাইসেন্সের জন্য আবেদন নাশকতার মামলার আসামির’ শিরোনামে একটি জাতীয় দৈনিকের অনলাইন ও ‘অস্ত্রের লাইসেন্স চান নাশকতার মামলার আসামি’ শিরোনামে নারায়ণগঞ্জের একটি অনলাইন পোর্টালে বুধবার(১ মে) সংবাদ প্রকাশ হয়েছে। সংবাদটিকে ডাহা মিথ্যা অখ্যায়িত করে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন মহিউদ্দিন মোল্লা।
জানা গেছে, পহেলা মে জাতীয় দৈনিক কালের কন্ঠ পত্রিকার অনলাইনে ‘পিস্তলের লাইসেন্সের জন্য আবেদন নাশকতার মামলার আসামির’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়। সংবাদে উল্লেখ করা হয়, সিদ্ধিরগঞ্জে নাশকতার মামলার আসামি ৩নং ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন মোল্লা। তিনি একটি পিস্তলের লাইসেন্সের জন্য জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আবেদন করেছেন। গত মাসে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আবেদনটি করলে সেটি তদন্তের জন্য সম্প্রতি জেলা পুলিশ সুপারের বিশেষ শাখায় পাঠানো হয়।
পুলিশ সুপারের কার্যালয় থেকে সেটি তদন্তের জন্য থানা পুলিশের কাছে পাঠালে গত সপ্তাহে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ অস্ত্রের লাইসেন্স দেওয়ার বিষয়টি তদন্ত শেষে প্রতিবেদন দাখিল করেন। সংবাদে মহিউদ্দিন মোল্লাকে বিএনপির আন্দোলন সংগ্রামের অর্থের জোগান দাতা হিসেবে উপস্থাপন করা হয়। নাশকতা, সরকারী কাজে বাধা ও পুলিশের উপর হামলার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় রয়েছে দুটি মামলা। তিনি দুটি মামলার এজহারভূক্ত আসামি। মহিউদ্দিন মোল্লার অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদনের খবরে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।
সংবাদে কোন আওয়ামীলীগ নেতা কিংবা মহিউদ্দিন মোল্লার বক্তব্য উল্লেখ করা হয়নি।
জেলা পুলিশ সাপারের বক্তব্য প্রকাশ করা হলেও প্রকৃত পক্ষে আবেদনকারী প্রকাশিত সংবাদের মহিউদ্দিন মোল্লা কিনা তা স্পস্ট নয়। একই সংবাদ ‘অস্ত্রের লাইসেন্স চান নাশকতার মামলার আসামি’ শিরোনামে প্রকাশ করা হয় নারায়ণগঞ্জ টাইমস নামক অনলাইন পোর্টালে।
প্রকাশিত সংবাদে নিজের ছবি ও নাম দেখে বিস্ময় প্রকাশ করে মহিউদ্দিন মোল্লা বলেন, আমি পিস্তলের লাইসেন্স পেতে কোন আবেদনই করেনি। অথচ কালের কন্ঠ এর মত জাতীয় দৈনিকের অনলাইনে এমন মিথ্যা সংবাদ কি করে প্রকাশ করা হলো তা আমার বোধগম্ব নয়। তার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক মামলা রয়েছে বিষয়টি সঠিক হলেও বিএনপির অন্দোলন সংগ্রামের অর্থের জোগান দাতা কথাটি মিথ্যা। তিনি প্রায় ১ যুগ আগে বিএনপি করতেন। নাসিক ৩ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন তা ঠিক। তবে গত ২০১৬ সালে তিনি নিজ বাড়িতে সাংবাদিক সম্মেলন করে বিএনপি ছেড়ে দেন। যা বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়। পরে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধ শেক মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রান্নিত হয়ে শ্রমিকলীগে যোগ দিয়ে নারায়ণগঞ্জ মহানগর শ্রমিকলীগের যুগ্নসাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। যদিও পরে ওই কমিটি বিলুপ্ত করা হয়েছে। তবে মহিউদ্দিন মোল্লা আওয়ামী লীগের রাজনীতি অব্যাহত রেখে বিভিন্ন দলীয় কর্মসূচি পাল করে যাচ্ছেন নিয়মিত। গত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে বিএনপি জামায়াতের নাশকতামূলক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে সানারপার ও আশপাশ এলাকায় প্রতিদিন কঠোর ভূমিক পালন করেন তিনি। ফলে তার বিরুদ্ধে একটি মহল ষড়যন্তে লিপ্ত রয়েছে বলে দাবি করেন মহিউদ্দিন মোল্লা।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

নারায়ণগঞ্জে ৩টি উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন যারা

অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা !

আপডেট সময় : ১০:০১:২৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ মে ২০২৪

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সানারপাড় এলাকার বাসিন্দা শ্রমিকলীগ নেতা মহিউদ্দিন আহমেদ মোল্লা পিস্তুলের লাইসেন্স পেতে আবেদনই করেননি। অথচ তার ছবি দিয়ে ‘পিস্তলের লাইসেন্সের জন্য আবেদন নাশকতার মামলার আসামির’ শিরোনামে একটি জাতীয় দৈনিকের অনলাইন ও ‘অস্ত্রের লাইসেন্স চান নাশকতার মামলার আসামি’ শিরোনামে নারায়ণগঞ্জের একটি অনলাইন পোর্টালে বুধবার(১ মে) সংবাদ প্রকাশ হয়েছে। সংবাদটিকে ডাহা মিথ্যা অখ্যায়িত করে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন মহিউদ্দিন মোল্লা।
জানা গেছে, পহেলা মে জাতীয় দৈনিক কালের কন্ঠ পত্রিকার অনলাইনে ‘পিস্তলের লাইসেন্সের জন্য আবেদন নাশকতার মামলার আসামির’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়। সংবাদে উল্লেখ করা হয়, সিদ্ধিরগঞ্জে নাশকতার মামলার আসামি ৩নং ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন মোল্লা। তিনি একটি পিস্তলের লাইসেন্সের জন্য জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আবেদন করেছেন। গত মাসে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে আবেদনটি করলে সেটি তদন্তের জন্য সম্প্রতি জেলা পুলিশ সুপারের বিশেষ শাখায় পাঠানো হয়।
পুলিশ সুপারের কার্যালয় থেকে সেটি তদন্তের জন্য থানা পুলিশের কাছে পাঠালে গত সপ্তাহে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ অস্ত্রের লাইসেন্স দেওয়ার বিষয়টি তদন্ত শেষে প্রতিবেদন দাখিল করেন। সংবাদে মহিউদ্দিন মোল্লাকে বিএনপির আন্দোলন সংগ্রামের অর্থের জোগান দাতা হিসেবে উপস্থাপন করা হয়। নাশকতা, সরকারী কাজে বাধা ও পুলিশের উপর হামলার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় রয়েছে দুটি মামলা। তিনি দুটি মামলার এজহারভূক্ত আসামি। মহিউদ্দিন মোল্লার অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদনের খবরে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।
সংবাদে কোন আওয়ামীলীগ নেতা কিংবা মহিউদ্দিন মোল্লার বক্তব্য উল্লেখ করা হয়নি।
জেলা পুলিশ সাপারের বক্তব্য প্রকাশ করা হলেও প্রকৃত পক্ষে আবেদনকারী প্রকাশিত সংবাদের মহিউদ্দিন মোল্লা কিনা তা স্পস্ট নয়। একই সংবাদ ‘অস্ত্রের লাইসেন্স চান নাশকতার মামলার আসামি’ শিরোনামে প্রকাশ করা হয় নারায়ণগঞ্জ টাইমস নামক অনলাইন পোর্টালে।
প্রকাশিত সংবাদে নিজের ছবি ও নাম দেখে বিস্ময় প্রকাশ করে মহিউদ্দিন মোল্লা বলেন, আমি পিস্তলের লাইসেন্স পেতে কোন আবেদনই করেনি। অথচ কালের কন্ঠ এর মত জাতীয় দৈনিকের অনলাইনে এমন মিথ্যা সংবাদ কি করে প্রকাশ করা হলো তা আমার বোধগম্ব নয়। তার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক মামলা রয়েছে বিষয়টি সঠিক হলেও বিএনপির অন্দোলন সংগ্রামের অর্থের জোগান দাতা কথাটি মিথ্যা। তিনি প্রায় ১ যুগ আগে বিএনপি করতেন। নাসিক ৩ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন তা ঠিক। তবে গত ২০১৬ সালে তিনি নিজ বাড়িতে সাংবাদিক সম্মেলন করে বিএনপি ছেড়ে দেন। যা বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়। পরে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধ শেক মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রান্নিত হয়ে শ্রমিকলীগে যোগ দিয়ে নারায়ণগঞ্জ মহানগর শ্রমিকলীগের যুগ্নসাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। যদিও পরে ওই কমিটি বিলুপ্ত করা হয়েছে। তবে মহিউদ্দিন মোল্লা আওয়ামী লীগের রাজনীতি অব্যাহত রেখে বিভিন্ন দলীয় কর্মসূচি পাল করে যাচ্ছেন নিয়মিত। গত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে বিএনপি জামায়াতের নাশকতামূলক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে সানারপার ও আশপাশ এলাকায় প্রতিদিন কঠোর ভূমিক পালন করেন তিনি। ফলে তার বিরুদ্ধে একটি মহল ষড়যন্তে লিপ্ত রয়েছে বলে দাবি করেন মহিউদ্দিন মোল্লা।