নারায়ণগঞ্জ ০৭:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
সোনারগাঁওয়ে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত সিদ্ধিরগঞ্জে ৪টি কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হারামের পয়সা ব্যারামে খায় ,আমি হারাম খাই না খেতেও দেই না-সেলিম ওসমান ভূমি সম্পর্কিত সমস্যা থাকলে গণশুনানিতে আসার আহবান- না.গঞ্জে জেলা  প্রশাসক সিদ্ধিরগঞ্জে গ্যাসের দাবিতে ঢাকা-চটগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ সোনারগাঁওয়ে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০২৪ অনুষ্ঠিত র‌্যাব পরিচয়ে ৫২ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেফতার-৪ সিদ্ধিরগঞ্জে কাতার প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি চিকিৎসার নামে কোনো প্রকার হয়রানি মেনে নেওয়া হবে না ঃ স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতীর পোশাক শ্রমিক নিহত

নাসিক ৩ নং ওয়ার্ডবাসীর বিবেক জাগ্রত হলে ঘটবে ভোট বিপ্লব

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:০৭:৫০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২১
  • ২৩৩ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি :নাসিক ৩ নং ওয়ার্ডে ভোট বিপ্লব ঘটাতে রেডিও প্রতীক নিয়ে নির্বাচনি যুদ্ধে নেমেছেন এ আর ফররুখ আহমাদ খসরু। চুরি, ছিনতাই, মাদক, চাঁদাবাজি, কিশোরগ্যাং ও অন্যায় অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী ব্যক্তিত্য বঙ্গবন্ধু ফেলোশিপ প্রাপ্ত মানবাধিক বিষয়ক পিএইচডি গবেষক খসরু জনসেবা ও ৩ নং ওয়ার্ডের রূপ পাল্টানোর প্রত্যাশা নিয়ে নির্বাচনি লড়াই করছেন। ভোটারদের সমর্থন পেলেই শান্তির দোলনায় দোলবার স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে ওয়ার্ডবাসীর। শান্তিপ্রিয় মানুষের বহুদিনের কাঙ্খিত আশা পুরন করার মত যোগ্যতা সম্পুর্ণ প্রার্থী খসরু আশাবাদী সমাজকে সুন্দর ও অপরাধ মুক্ত করতে ভোটারদের বিবেক জাগ্রত হবে।
নিমাইকাশারী এলাকার একজন প্রবীণ ব্যক্তি বলেন, এমন কিছু ভুল আছে যা সারা জীবনের কান্নার কারণ হয়। তেমনি নির্বাচনে ভোট দিতে ভুল করলে ৫ বছর ভোগতে হয়। অনেক যুবসমাজ এটা উপলদ্ধি করতে পারেনা। তারা টাকার কাছে বিক্রি হয়ে অযোগ্য লোকদের শক্তি বাড়ায়। কিন্তু একসময় সেই লোক দ্বারাই জীবনে নেমে আসে সীমাহীন দুর্দশা। তাই যুবসমাজের উচিৎ টাকার লোভে পেষিশক্তিশীল কোন প্রার্থীর পক্ষে না যাওয়া। কারণ যুবসমাজের পক্ষেই সম্ভব সমাজকে সুন্দর ও শান্তিময় করা। সেই যুবসমাজই যদি সচেতন না হয়ে, বিবেককে জাগ্রত করতে না পারে, তাহলে সমাজে কখনো শান্তি ফিরে আসবেনা।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, ভূমিদস্যু, মাদক ব্যবসায়ী ও ছিনতাইকারীদের অভরায়ন্য ৩ নং ওয়ার্ড। এমব অপরাধিদের কাছে দীর্ষদিন ধরে জিম্মি হয়ে আছে ওয়ার্ডবাসী। যোগ্য জনপ্রতিনিধি না থাকায় অত্যাচার নির্যাতনের প্রতিকার পাচ্ছেনা সাধারণ মানুষ। নিরবে সহ্য করতে হচ্ছে সব কিছু। তাই শান্তির সুবাতাস পাওয়ার স্বপ্ন দেখছিল ওয়ার্ডবাসী। কিন্তু কে বহাবে সেই বাতাস এমন যোগ্য একজন মানুষ খোঁছিলেন অবহেলিত ও নির্যাতনের শিকার সাধারণ মানুষগুলো। তাদের সেই বহুদিনের কাঙ্খিত স্বপ্ন বাস্তবায়নে ৩ নং ওয়ার্ডে পরিবর্তনের অঙ্গিকার নিয়ে নির্বাচনি যুদ্ধে নেমেছেন ফররুখ আহমাদ খসরু। নির্বাচন করার ঘোষনা দেওয়ার পর থেকেই একটি প্রতিপক্ষমহল খসরুকে হুমকি ধমকি এমনকি তার সমর্থকদের মারধর পর্যন্ত করেছে নির্বাচন না করার জন্য। সকল বাধা পেরিয়ে পেষিশক্তির কাছে মাথা নত না করে ওয়ার্ডবাসীর গায়ে শান্তির সুবাতাস বহাতে সিদ্ধান্ত পাল্টায়নি খসরু।
নির্বাচন বিশ্লেষকদের মতে, খসরু তার সিদ্ধান্তে আটল থেকেছে। এখন ভোটারের সিদ্ধান্তের পালা। খনিকের জন্য সামান্য কিছু অর্থের বিনিময়ে জুলমকারীদের কাছে ভোট বিক্রি করে একটানা ৫ বছর খেসারত দিবেন, নাকি যোগ্যলোককে নির্বাচিত করে সারাবছর শান্তিতে থাকবেন। কারণ টাকা দিয়ে যারা ভোটারকে প্রলুব্ধ করে তারা নির্বাচিত হওয়ার পর তার কয়েকগুণ বেশি টাকা ভোটারের কাছ থেকে কৌশলে আদায় করে নেয়। যদি ওয়ার্ডবাসীর মনে এই শুভবুদ্ধির উদয় হয় আর বিবেককে জাগ্রত করেন, তাহলে খসরুর মত আরো অনেক লোক জনপ্রতি হয়ে সমাজ পরিবর্তনের প্রত্যাশা নিয়ে জনপ্রতিনিধি হতে এগিয়ে আসবে।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

সোনারগাঁওয়ে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

নাসিক ৩ নং ওয়ার্ডবাসীর বিবেক জাগ্রত হলে ঘটবে ভোট বিপ্লব

আপডেট সময় : ১২:০৭:৫০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২১

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি :নাসিক ৩ নং ওয়ার্ডে ভোট বিপ্লব ঘটাতে রেডিও প্রতীক নিয়ে নির্বাচনি যুদ্ধে নেমেছেন এ আর ফররুখ আহমাদ খসরু। চুরি, ছিনতাই, মাদক, চাঁদাবাজি, কিশোরগ্যাং ও অন্যায় অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী ব্যক্তিত্য বঙ্গবন্ধু ফেলোশিপ প্রাপ্ত মানবাধিক বিষয়ক পিএইচডি গবেষক খসরু জনসেবা ও ৩ নং ওয়ার্ডের রূপ পাল্টানোর প্রত্যাশা নিয়ে নির্বাচনি লড়াই করছেন। ভোটারদের সমর্থন পেলেই শান্তির দোলনায় দোলবার স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে ওয়ার্ডবাসীর। শান্তিপ্রিয় মানুষের বহুদিনের কাঙ্খিত আশা পুরন করার মত যোগ্যতা সম্পুর্ণ প্রার্থী খসরু আশাবাদী সমাজকে সুন্দর ও অপরাধ মুক্ত করতে ভোটারদের বিবেক জাগ্রত হবে।
নিমাইকাশারী এলাকার একজন প্রবীণ ব্যক্তি বলেন, এমন কিছু ভুল আছে যা সারা জীবনের কান্নার কারণ হয়। তেমনি নির্বাচনে ভোট দিতে ভুল করলে ৫ বছর ভোগতে হয়। অনেক যুবসমাজ এটা উপলদ্ধি করতে পারেনা। তারা টাকার কাছে বিক্রি হয়ে অযোগ্য লোকদের শক্তি বাড়ায়। কিন্তু একসময় সেই লোক দ্বারাই জীবনে নেমে আসে সীমাহীন দুর্দশা। তাই যুবসমাজের উচিৎ টাকার লোভে পেষিশক্তিশীল কোন প্রার্থীর পক্ষে না যাওয়া। কারণ যুবসমাজের পক্ষেই সম্ভব সমাজকে সুন্দর ও শান্তিময় করা। সেই যুবসমাজই যদি সচেতন না হয়ে, বিবেককে জাগ্রত করতে না পারে, তাহলে সমাজে কখনো শান্তি ফিরে আসবেনা।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, ভূমিদস্যু, মাদক ব্যবসায়ী ও ছিনতাইকারীদের অভরায়ন্য ৩ নং ওয়ার্ড। এমব অপরাধিদের কাছে দীর্ষদিন ধরে জিম্মি হয়ে আছে ওয়ার্ডবাসী। যোগ্য জনপ্রতিনিধি না থাকায় অত্যাচার নির্যাতনের প্রতিকার পাচ্ছেনা সাধারণ মানুষ। নিরবে সহ্য করতে হচ্ছে সব কিছু। তাই শান্তির সুবাতাস পাওয়ার স্বপ্ন দেখছিল ওয়ার্ডবাসী। কিন্তু কে বহাবে সেই বাতাস এমন যোগ্য একজন মানুষ খোঁছিলেন অবহেলিত ও নির্যাতনের শিকার সাধারণ মানুষগুলো। তাদের সেই বহুদিনের কাঙ্খিত স্বপ্ন বাস্তবায়নে ৩ নং ওয়ার্ডে পরিবর্তনের অঙ্গিকার নিয়ে নির্বাচনি যুদ্ধে নেমেছেন ফররুখ আহমাদ খসরু। নির্বাচন করার ঘোষনা দেওয়ার পর থেকেই একটি প্রতিপক্ষমহল খসরুকে হুমকি ধমকি এমনকি তার সমর্থকদের মারধর পর্যন্ত করেছে নির্বাচন না করার জন্য। সকল বাধা পেরিয়ে পেষিশক্তির কাছে মাথা নত না করে ওয়ার্ডবাসীর গায়ে শান্তির সুবাতাস বহাতে সিদ্ধান্ত পাল্টায়নি খসরু।
নির্বাচন বিশ্লেষকদের মতে, খসরু তার সিদ্ধান্তে আটল থেকেছে। এখন ভোটারের সিদ্ধান্তের পালা। খনিকের জন্য সামান্য কিছু অর্থের বিনিময়ে জুলমকারীদের কাছে ভোট বিক্রি করে একটানা ৫ বছর খেসারত দিবেন, নাকি যোগ্যলোককে নির্বাচিত করে সারাবছর শান্তিতে থাকবেন। কারণ টাকা দিয়ে যারা ভোটারকে প্রলুব্ধ করে তারা নির্বাচিত হওয়ার পর তার কয়েকগুণ বেশি টাকা ভোটারের কাছ থেকে কৌশলে আদায় করে নেয়। যদি ওয়ার্ডবাসীর মনে এই শুভবুদ্ধির উদয় হয় আর বিবেককে জাগ্রত করেন, তাহলে খসরুর মত আরো অনেক লোক জনপ্রতি হয়ে সমাজ পরিবর্তনের প্রত্যাশা নিয়ে জনপ্রতিনিধি হতে এগিয়ে আসবে।