নারায়ণগঞ্জ ১০:০২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
অস্ত্র মামলায় মিশনপাড়ার নাজমুলকে ১০ বছরের কারাদণ্ড বন্দরে এক রোহিঙ্গা যুবককে ৪হাজার ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে জামানত ১ লাখ টাকা ফতুল্লার ক্লু-লেস হত্যার রহস্য উদঘাটনসহ প্রধান আসামিকে গ্রেফতার র‌্যাব-১১ বানিজ্য মেলায় দর্শনার্থীদের সেবা দিতে ডিকেএমসি হাসপাতালের অধ্যাপক ডাক্তার এম এ কাশেম কাঁচপুর হাইওয়ে থানা পুলিশের উদ্যোগে সেবা সপ্তাহ পালন শিমরাইলে অলিতে-গলিতে মাদক, নেই প্রশাসনের নজরদারী সিদ্ধিরগঞ্জে ভাসুরের বটির কুপে কব্জি হারালেন সাবিনা, গ্রেফতার-২ সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ এর  শিক্ষার্থীদের নবীন বরন অনুষ্টান রূপগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতার উপর হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন বিক্ষোভ

শিমরাইল মোড়ে পুলিশের উচ্ছেদ মেরামতে চাঁদাবাজরা

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:১৫:২৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০২১
  • ৯৮ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড়ে উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে নারায়ণগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগ এবং থানা পুলিশ। বুল্ডেজার দিয়ে লন্ডবন্ড করে দিয়েছেন মহাসড়কের দুই পাশে অবৈধভাবে গড়ে উঠা ৩ শতাধিক ফুটপাত দোকান। সোমবার ( ২৭ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টাকা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত চলে অভিযান। তবে অভিযান শেষে বিকেলে মেরামত করে আবার দোকান পাট বসানোর প্রস্তুতি নিতে দেখা গেছে।

অভিযানের নেতৃত্বে থাকা সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত সাইফুল ইসলাম বলেন, সরকারি জায়গা দখল করে একটি চাঁদাবাজ চক্র অবৈধভাবে দোকানপাট গড়ে তুলে। এতে জনচলাচলের চরম বিঘœ ঘটে। জনস্বার্থে ওসি মশিউর রহমান স্যারের নির্দেশে এউচ্ছেদ অভিযান চালানো হচ্ছে।

ফুটপাত ব্যবসায়ীরা জানায়, রিপন ও জামাল প্রতি দোকানদার থেকে ৫ হাজার টাকা করে চাঁদা নিয়ে ফুটপাত বসায়। উচ্ছেদ ঠেকাতে প্রতি দোকান থেকে দৈনিক ২০০ টাকা করে চাঁদা নিত তারা।
জানা গেছে, শিমরাইল মোড় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দক্ষিণ পাশে আড়াইশতাধিক ফুটপাত দোকান রয়েছে। দৈনিক ২০০ টাকা করে অর্ধলক্ষাধিক টাকা চাঁদা আদায় করতেন রিপন ও জামাল। পুলিশ দোকানপাট উচ্ছেদ করলেও চাঁদাবাজ রিপন ও জামাল থাকে ধরা ছোঁয়ার বাইরে। ফলে আর উচ্ছেদ হবে না এমন আশ্বাস দিয়ে দোকান পাট বসিয়ে চাঁদাবাজি শুরু করে। গত তিন বছর ধরে চাঁদাবাজি করছে রিপন। সোমবার উচ্ছেদের পর দোকানদারগণ রিপনের কাছে গেলে আর উচ্ছেদ হবেনা ওসি মশিউর রহমানকে ম্যানেজ করার কথা হচ্ছে বলে দোকানপাট বসানোর নির্দেশ দেয়। রিপনের আশ্বাস পেয়ে বিকেল থেকেই লন্ডবন্ড জায়গা মেরামত করে দোকান বসার প্রস্তুতি নেয় ব্যবসায়ীরা।
এবিষয়ে জানতে রিপনের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও সম্ভব হয়নি। তার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

অস্ত্র মামলায় মিশনপাড়ার নাজমুলকে ১০ বছরের কারাদণ্ড

শিমরাইল মোড়ে পুলিশের উচ্ছেদ মেরামতে চাঁদাবাজরা

আপডেট সময় : ১১:১৫:২৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০২১

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড়ে উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে নারায়ণগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগ এবং থানা পুলিশ। বুল্ডেজার দিয়ে লন্ডবন্ড করে দিয়েছেন মহাসড়কের দুই পাশে অবৈধভাবে গড়ে উঠা ৩ শতাধিক ফুটপাত দোকান। সোমবার ( ২৭ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টাকা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত চলে অভিযান। তবে অভিযান শেষে বিকেলে মেরামত করে আবার দোকান পাট বসানোর প্রস্তুতি নিতে দেখা গেছে।

অভিযানের নেতৃত্বে থাকা সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত সাইফুল ইসলাম বলেন, সরকারি জায়গা দখল করে একটি চাঁদাবাজ চক্র অবৈধভাবে দোকানপাট গড়ে তুলে। এতে জনচলাচলের চরম বিঘœ ঘটে। জনস্বার্থে ওসি মশিউর রহমান স্যারের নির্দেশে এউচ্ছেদ অভিযান চালানো হচ্ছে।

ফুটপাত ব্যবসায়ীরা জানায়, রিপন ও জামাল প্রতি দোকানদার থেকে ৫ হাজার টাকা করে চাঁদা নিয়ে ফুটপাত বসায়। উচ্ছেদ ঠেকাতে প্রতি দোকান থেকে দৈনিক ২০০ টাকা করে চাঁদা নিত তারা।
জানা গেছে, শিমরাইল মোড় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দক্ষিণ পাশে আড়াইশতাধিক ফুটপাত দোকান রয়েছে। দৈনিক ২০০ টাকা করে অর্ধলক্ষাধিক টাকা চাঁদা আদায় করতেন রিপন ও জামাল। পুলিশ দোকানপাট উচ্ছেদ করলেও চাঁদাবাজ রিপন ও জামাল থাকে ধরা ছোঁয়ার বাইরে। ফলে আর উচ্ছেদ হবে না এমন আশ্বাস দিয়ে দোকান পাট বসিয়ে চাঁদাবাজি শুরু করে। গত তিন বছর ধরে চাঁদাবাজি করছে রিপন। সোমবার উচ্ছেদের পর দোকানদারগণ রিপনের কাছে গেলে আর উচ্ছেদ হবেনা ওসি মশিউর রহমানকে ম্যানেজ করার কথা হচ্ছে বলে দোকানপাট বসানোর নির্দেশ দেয়। রিপনের আশ্বাস পেয়ে বিকেল থেকেই লন্ডবন্ড জায়গা মেরামত করে দোকান বসার প্রস্তুতি নেয় ব্যবসায়ীরা।
এবিষয়ে জানতে রিপনের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও সম্ভব হয়নি। তার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।