নারায়ণগঞ্জ ১২:২১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি সিদ্ধিরগঞ্জে রাজউকের অভিযানে ক্ষুব্ধ ভবন মালিকরা রেকমত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মজিবুর রহমান সভাপতির দায়িত্ব নিয়েই শিক্ষার মান উন্নয়নের তাগিদ অস্ত্রের লাইসেন্সের আবেদন না করেও অপপ্রচারের শিকার মহিউদ্দিন মোল্লা ! সাংবাদিক শাওনের বাবা ফিরোজ আহমেদ আর নেই রিয়াদে জমকালো আয়োজনে মাই টিভির ১৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন রিয়াদে প্রিমিয়াম ফুটবল লীগের ফাইনাল অনুষ্ঠিত জুন মাসের ১৭ তারিখ কোরবানির ঈদ পালিত হওয়ার সম্ভবনা রিয়াদে নোভ আল আম্মার ইষ্টাবলিস্ট এর আয়োজনে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত রিয়াদে বেগম খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

সিদ্ধিরগঞ্জে মতি বাহিনী বেপরোয়া র‍্যাব অভিযানে ৫ চাঁদাবাজ গ্রেফতার

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:১৫:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ জুন ২০২১
  • ১৭২ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : আসন্ন ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে নাসিকের ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র-২ এবং থানা যুবলীগের আহ্বায়ক মতিউর রহমান মতি বাহিনী।
কাউন্সিলর মতি বাহিনীর অন্যতম সদস্য ও কিশোর গ্যাং গ্রুপের প্রধান পানি আক্তারের ৫ সহযোগী চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১। তবে, ওই সিন্ডিকেটের মূলহোতা আক্তার ওরফে পানি আক্তারকে গ্রেফতার করতে পারেনি র‌্যাব। এ নিয়ে এলাকায় চলছে আলোচনা ও সমালোচনার ঝড়।
মঙ্গলবার (২৯ জুন) সকাল ৯টায় সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী ইপিজেড সড়কের কদমতলী কাঠের পুল এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে নগদ অর্থ উদ্ধার করা হয়।
আটককৃতরা হলো, হৃদয় মিয়া (২৫), মো: বাবুল (৩০), মো: নুর হোসেন (২৩), মো: হাসান (২১) ও মো: রাসেল (৩০)। এ ঘটনায় পলাতক রয়েছে আরো ৭ জন। তারা হলো, আল আমিন (২৫), মহিন (২৪), আরিফুল ইসলাম (২৫), জীবন (২৫), রাফি (২৪), হৃদয় (২৬) ও রবিউল আলম (২৬)।
আটককৃতদের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার বিকেলে র‌্যাব বাদী হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি চাঁদাবাজী মামলা দায়ের করেন। আটককৃত ৫ চাঁদাবাজদেরকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় সোপর্দ করার পর খবর পেয়ে কাউন্সিলর মতির দুই সহযোগী কেরামিন-কাতেমিন বিশেষ তদবিরের জন্য ছুটে আসেন। তবে, থানায় কোন সুবিধা করতে না পেরে দ্রুত সটকে পরেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১১’র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: জসিম উদ্দিন চৌধুরী (পিপিএম)।
তিনি জানান, একটি চাঁদাবাজ সিন্ডিকেট দীর্ঘদিন ধরে আদমজী ইপিজেডে যাতায়াতকারী বিভিন্ন পণ্য পরিবহন আটক করে ব্যবসায়ীদেরকে জিম্মি করে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে চাঁদাবাজী করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় আজ সকালে ২০/২৫ জনের একটি চাঁদাবাজ বাহিনী ইপিজেডের গেটের সামনে অবস্থান নিয়ে চাঁদাবাজী করার সময় র‌্যাবের একটি দল তাদের মধ্য থেকে ৫ জনকে আটক করে এবং অন্য সদস্যরা পালিয়ে যায়।
তিনি আরো জানান, গ্রেফতারকৃত আসামীরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করে যে, তারা স্থানীয় কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির লোক। তারা পরষ্পর যোগসাজশে দীর্ঘদিন আদমজী ইপিজেডের রপ্তানীমূখী পন্য পরিহনে চাঁদাবাজী করে আসছে। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে র‌্যাব বাদী হয়ে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়ের করেছে।
উল্লেখ্য, নাসিকের ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র-২ এবং থানা যুবলীগের আহ্বায়ক মতিউর রহমান মতির শেল্টারে পানি আক্তার দিন দিন বেপরোয়া হয়ে ঊঠেছে। বর্তমানে সে ৬ নম্বর ওয়ার্ডে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। তার ভয়ে সাধারণ মানুষ ভীত-সন্ত্রস্ত। তার নেতৃত্বে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা এলাকায় নানান অপরাধ কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে। আর এই কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা চাঁদাবাজী, মাদক ব্যবসা, জোর পূর্বক জমি দখল সহ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে লিপ্ত রয়েছে। বিগত দিনে এ ওয়ার্ডে পানি আক্তারের নেতৃত্বে হামলার শিকার হয়েছেন অনেকেই। তার বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। এলাকাবাসী ও ব্যবসায়ীরা এই দুধর্ষ সন্ত্রাসীর হাত থেকে রক্ষা পেতে জেলা প্রশাসনের উর্ধ্বতন মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

গুণী জনদের পদচারণায়  উদযাপিত  দৈনিক আজকের নীর বাংলা পত্রিকা’র ১৫ তম  বর্ষপূর্তি

সিদ্ধিরগঞ্জে মতি বাহিনী বেপরোয়া র‍্যাব অভিযানে ৫ চাঁদাবাজ গ্রেফতার

আপডেট সময় : ০৩:১৫:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ জুন ২০২১

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : আসন্ন ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে নাসিকের ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র-২ এবং থানা যুবলীগের আহ্বায়ক মতিউর রহমান মতি বাহিনী।
কাউন্সিলর মতি বাহিনীর অন্যতম সদস্য ও কিশোর গ্যাং গ্রুপের প্রধান পানি আক্তারের ৫ সহযোগী চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১। তবে, ওই সিন্ডিকেটের মূলহোতা আক্তার ওরফে পানি আক্তারকে গ্রেফতার করতে পারেনি র‌্যাব। এ নিয়ে এলাকায় চলছে আলোচনা ও সমালোচনার ঝড়।
মঙ্গলবার (২৯ জুন) সকাল ৯টায় সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী ইপিজেড সড়কের কদমতলী কাঠের পুল এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে নগদ অর্থ উদ্ধার করা হয়।
আটককৃতরা হলো, হৃদয় মিয়া (২৫), মো: বাবুল (৩০), মো: নুর হোসেন (২৩), মো: হাসান (২১) ও মো: রাসেল (৩০)। এ ঘটনায় পলাতক রয়েছে আরো ৭ জন। তারা হলো, আল আমিন (২৫), মহিন (২৪), আরিফুল ইসলাম (২৫), জীবন (২৫), রাফি (২৪), হৃদয় (২৬) ও রবিউল আলম (২৬)।
আটককৃতদের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার বিকেলে র‌্যাব বাদী হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি চাঁদাবাজী মামলা দায়ের করেন। আটককৃত ৫ চাঁদাবাজদেরকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় সোপর্দ করার পর খবর পেয়ে কাউন্সিলর মতির দুই সহযোগী কেরামিন-কাতেমিন বিশেষ তদবিরের জন্য ছুটে আসেন। তবে, থানায় কোন সুবিধা করতে না পেরে দ্রুত সটকে পরেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১১’র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: জসিম উদ্দিন চৌধুরী (পিপিএম)।
তিনি জানান, একটি চাঁদাবাজ সিন্ডিকেট দীর্ঘদিন ধরে আদমজী ইপিজেডে যাতায়াতকারী বিভিন্ন পণ্য পরিবহন আটক করে ব্যবসায়ীদেরকে জিম্মি করে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে চাঁদাবাজী করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় আজ সকালে ২০/২৫ জনের একটি চাঁদাবাজ বাহিনী ইপিজেডের গেটের সামনে অবস্থান নিয়ে চাঁদাবাজী করার সময় র‌্যাবের একটি দল তাদের মধ্য থেকে ৫ জনকে আটক করে এবং অন্য সদস্যরা পালিয়ে যায়।
তিনি আরো জানান, গ্রেফতারকৃত আসামীরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করে যে, তারা স্থানীয় কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির লোক। তারা পরষ্পর যোগসাজশে দীর্ঘদিন আদমজী ইপিজেডের রপ্তানীমূখী পন্য পরিহনে চাঁদাবাজী করে আসছে। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে র‌্যাব বাদী হয়ে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়ের করেছে।
উল্লেখ্য, নাসিকের ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র-২ এবং থানা যুবলীগের আহ্বায়ক মতিউর রহমান মতির শেল্টারে পানি আক্তার দিন দিন বেপরোয়া হয়ে ঊঠেছে। বর্তমানে সে ৬ নম্বর ওয়ার্ডে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। তার ভয়ে সাধারণ মানুষ ভীত-সন্ত্রস্ত। তার নেতৃত্বে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা এলাকায় নানান অপরাধ কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে। আর এই কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা চাঁদাবাজী, মাদক ব্যবসা, জোর পূর্বক জমি দখল সহ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে লিপ্ত রয়েছে। বিগত দিনে এ ওয়ার্ডে পানি আক্তারের নেতৃত্বে হামলার শিকার হয়েছেন অনেকেই। তার বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। এলাকাবাসী ও ব্যবসায়ীরা এই দুধর্ষ সন্ত্রাসীর হাত থেকে রক্ষা পেতে জেলা প্রশাসনের উর্ধ্বতন মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।