নারায়ণগঞ্জ ১১:১১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নারায়ণগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ’র মাঠ রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৪১:০১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ জুন ২০২১
  • ২৯ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক :

সিদ্ধিরগঞ্জে অবস্থিত নারায়ণগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ (ভোকেশনাল) এর মাঠ রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে ওই স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীর, অভিভাবক ও স্থানীয় এলাকাবাসী।

বৃহস্পতিবার (৩ জুন) সকাল সাড়ে ১০টায় পাঠানটুলী এলাকায় টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজের সামনে এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, পড়ালেখা যেমন মানুষের জ্ঞান আহরণের ভান্ডার ঠিক তেমনি মানব শরীরকে সুস্থ রাখতে খেলা ধূলার একান্ত প্রয়োজন, যা আমরা সবাই মনে করি বা একবাক্যে শিকার করে থাকি। চারদিকে নাগরিক বসতি ও অপরিকল্পিত শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠার কারনে আজ আমাদের উন্মুক্ত খেলার মাঠের সংকট।

অপরদিকে স্কুল, কলেজসহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যে সকল খেলার মাঠ রয়েছে তাও উন্নয়নের ও বাণিজ্যিক চিন্তা নিয়ে মাঠ দখল করার মহা উৎসবে মেতে উঠেছে আমাদের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

এ ছাড়া অতন্ত্য দুঃখের বিষয় যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে খেলার মাঠ রয়েছে, সে প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের কালো আদেশে খেলার মাঠ সকলের জন্য উন্মুক্ত নয় বলে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়েছে।

মাঠ গুলো উন্মুক্ত না থাকার কারনে আজ কোমলমতি শিশুরা খেলাধুলার প্রতি উৎসাহ হারিয়ে ফেলে রুগ্ন শারীরিক গঠন নিয়ে বেড়ে উঠছে, যা আমাদের কাম্য নয়। আমরা চাই আমাদের সন্তানেরা পড়া লেখার পাশাপাশি খেলাধুলা করে সুস্থ দেহের অধিকারী হবে।

আমাদের সন্তান সহ প্রায় ১২০০ শিক্ষার্থী এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত রয়েছেন। এ সকল কোমলমতি শিক্ষার্থী এ মাঠে খেলাধুলা করে থাকে। করোনা পূর্বকালীন যখন মাঠটি উন্মুক্ত ছিলো তখন এ মাঠে প্রাথমিক পর্যায়ে ফুটবল-ক্রিকেট খেলা শুরু করলেও অনেকেই জাতীয় পর্যায়ের খেলোয়ার হয়ে আমাদের নারায়ণগঞ্জ এর গর্ব দেশসহ বিশ্বে ছড়িয়ে দিয়েছেন।

অথচ আজ আমাদের সমাজের সন্তানরা এ মাঠ ব্যবহার থেকে বঞ্চিত হওয়ার পথে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষ প্রবেশ গেট তালাবন্ধ করে রাখায়। আর শিক্ষার্থীরা এতদিন যে খেলার সুযোগ পেতো সেটাও আজ মাঠ কেটে নতুন ভবন নির্মাণ করার কারনে বন্ধের পথে। এই স্কুলে অনেক পরিত্যক্ত জমি রয়েছে যেখানে ভবন নির্মাণ করা সম্ভব।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

নারায়ণগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ’র মাঠ রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ

আপডেট সময় : ০২:৪১:০১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ জুন ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক :

সিদ্ধিরগঞ্জে অবস্থিত নারায়ণগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ (ভোকেশনাল) এর মাঠ রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে ওই স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীর, অভিভাবক ও স্থানীয় এলাকাবাসী।

বৃহস্পতিবার (৩ জুন) সকাল সাড়ে ১০টায় পাঠানটুলী এলাকায় টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজের সামনে এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, পড়ালেখা যেমন মানুষের জ্ঞান আহরণের ভান্ডার ঠিক তেমনি মানব শরীরকে সুস্থ রাখতে খেলা ধূলার একান্ত প্রয়োজন, যা আমরা সবাই মনে করি বা একবাক্যে শিকার করে থাকি। চারদিকে নাগরিক বসতি ও অপরিকল্পিত শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠার কারনে আজ আমাদের উন্মুক্ত খেলার মাঠের সংকট।

অপরদিকে স্কুল, কলেজসহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যে সকল খেলার মাঠ রয়েছে তাও উন্নয়নের ও বাণিজ্যিক চিন্তা নিয়ে মাঠ দখল করার মহা উৎসবে মেতে উঠেছে আমাদের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

এ ছাড়া অতন্ত্য দুঃখের বিষয় যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে খেলার মাঠ রয়েছে, সে প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের কালো আদেশে খেলার মাঠ সকলের জন্য উন্মুক্ত নয় বলে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়েছে।

মাঠ গুলো উন্মুক্ত না থাকার কারনে আজ কোমলমতি শিশুরা খেলাধুলার প্রতি উৎসাহ হারিয়ে ফেলে রুগ্ন শারীরিক গঠন নিয়ে বেড়ে উঠছে, যা আমাদের কাম্য নয়। আমরা চাই আমাদের সন্তানেরা পড়া লেখার পাশাপাশি খেলাধুলা করে সুস্থ দেহের অধিকারী হবে।

আমাদের সন্তান সহ প্রায় ১২০০ শিক্ষার্থী এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত রয়েছেন। এ সকল কোমলমতি শিক্ষার্থী এ মাঠে খেলাধুলা করে থাকে। করোনা পূর্বকালীন যখন মাঠটি উন্মুক্ত ছিলো তখন এ মাঠে প্রাথমিক পর্যায়ে ফুটবল-ক্রিকেট খেলা শুরু করলেও অনেকেই জাতীয় পর্যায়ের খেলোয়ার হয়ে আমাদের নারায়ণগঞ্জ এর গর্ব দেশসহ বিশ্বে ছড়িয়ে দিয়েছেন।

অথচ আজ আমাদের সমাজের সন্তানরা এ মাঠ ব্যবহার থেকে বঞ্চিত হওয়ার পথে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষ প্রবেশ গেট তালাবন্ধ করে রাখায়। আর শিক্ষার্থীরা এতদিন যে খেলার সুযোগ পেতো সেটাও আজ মাঠ কেটে নতুন ভবন নির্মাণ করার কারনে বন্ধের পথে। এই স্কুলে অনেক পরিত্যক্ত জমি রয়েছে যেখানে ভবন নির্মাণ করা সম্ভব।