পাসপোর্ট অফিসের সামন থেকে রোহিঙ্গা নারীসহ দুইজন আটক

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি : ফতুলার রঘুনাথপুর নতুন রাস্তা এলাকায় নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সামন থেকে রোহিঙ্গা নারীসহ দুইজনকে আটক করেছে র‌্যাব-১১। মিথ্যা পরিচয়ে বাংলাদেশী পাসপোর্ট তৈরী করার চেষ্টার অভিযোগে তাদের আটক করা হয়েছে বলে বুধবার ( ৩ মার্চ) দুপুরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায় র‌্যাব। তার আগে দুই মার্চ বিকেলে তাদের আটক করা হয়।
আটকরা হলো- বরিশাল জেলার গৌরনদী থানার বাসুদিপাড়া এলাকার মোঃ সুমন (৩২) ও ঢাকার সবুজবাগ এলাকার বাসিন্দা নুর তাজ (১৮)। তাদের কাছ থেকে একটি ভূয়া জাতীয় পরিচয়পত্র, একটি ভূয়া জন্ম নিবন্ধন, একটি পাসপোর্টের আবেদন ফরম ও একটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়।
র‌্যাবের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো; জসিম উদ্দিন চৌধুরী স্বাক্ষরীত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, আটক সুমন ঢাকার মতিঝিল এলাকায় ট্রাভেল এজেন্সীতে চাকুরীর আড়ালে পাসপোর্ট, জন্ম সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরীতে সহায়তা করে রোহিঙ্গা পরিবারের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেয়।
র‌্যাব আরো জানায়, নূর তাজ কক্সবাজারের টেকনাফ (রোহিঙ্গা) ক্যাম্প থেকে এসে তার সহযোগী পাসপোর্টের দালাল মোঃ সুমনের সহায়তায় বিদেশে যাওয়ার জন্য পাসপোর্ট তৈরী করার আবেদন করে। সে টেকনাফে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তার পালিত মা আমেনার কাছে থাকে। কিন্তু নুর তাজের কাছ থেকে জব্দকৃত আলামত পর্যালোচনা করে জানা যায়, তার বাবার নাম সাদিক। যিনি বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস করছেন। নুর তাজ তার মা শারমিন এবং দুই ভাই আনোয়ার হোসেন ও পরেশ সাদিক’দের সাথে ঢাকার মুগদা এলাকায় ৪ বছর ধরে একটি ভাড়া বাসায় থাকে। তার আগে তারা সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ি এলাকায় বসবাস করত। সে রোহিঙ্গা হয়েও বাংলাদেশী নাগরিক হিসেবে পরিচয় দিয়ে তার মায়ের নামে জাতীয় পরিচয়পত্র, তার ভাই আনোয়ার হোসেনের নামে পাসপোর্ট তৈরী করে। নুর তাজ ২০২০ সালে তৈরি করা তার মায়ের জন্ম সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে পাসপোর্ট তৈরী করে আসছিল। এমন গোপন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।