রূপগঞ্জে চোর ডাকাত যেনো মুর্তীমান আতংক

রূপগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ   নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের চোর-ডাকাতের উৎপাত দিনদিন বেড়েই চলছে। কখনো বাড়ি-ঘরে, আবার কখনো দোকানপাটে চুরি-ডাকাতির ঘটনা যেনো নিত্যনৈম্যতিক ঘটনা। বিশেষ করে চোর ডাকাতের আতংক কাঞ্চন পৌরবাসীকে যেনো হাপিয়ে তুলেছে।
সম্প্রতি ৮-১০টি চুরির ঘটনা ঘটলেও প্রতিকার মিলছেনা। ডাকাতির ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করতে চাইলেও চুরির ঘটনা বলে অভিযোগ নেন থানা পুলিশ। এমন অভিযোগও রয়েছে থানা পুলিশের বিরুদ্ধে।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, গতকাল গভীর রাতে কাঞ্চন পৌরসভার কালাদী এলাকার মোবারক হোসেনের বাড়ির গেইটের তালা কেটে ডাকাত দল বাড়িতে ঢুকেপরে । পরে তার ঘরে ও ভাড়াটিয়াদের ঘরের দরজা বাহিরে থেকে তালাবদ্ধ করে দেয় ডাকাত সদস্যরা। যেখানে তালা দেয়ার ব্যবস্থা নেই সেখানে জিআই তার দিয়ে আটকিয়ে দেয়। পরে বাড়ি সংলগ্ন গাড়ির গ্যারেজের ৩টি তালা কেটে ২টি অটো ও ২ দুইটি মিশুক ডাকাতি করে নিয়ে যায় দুধর্ষ ডাকাত দল। এদিকে গত ২২ জুলাই কাঞ্চন মধ্যবাজারের স্বর্ণব্যবসায়ী তপন সরকারের দোকানের চালা কেটে ভেতরে ডুকে ডাকাত দল। পরে নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার সহ ১৫-২০ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায় ডাকাত সদস্যরা। দোকানে ফেলে যায় ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জামাদি। সাম্প্রতিক সময়ে কালাদী বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন মনির হোসেনের বাড়ির গেইটের তালা ভেঙ্গে রানা ভুইয়া ও সামীনুর ভুইয়া নামের দুই ভাড়াটিয়ার ২টি মোটরসাইকেল চুরি করে নিয়ে যায় এই চক্র। প্রতিটি ঘটনায় আলাদা আলাদা ভাবে অভিযোগ দায়ে করেন ভুক্তভোগীরা। তবে ডাকাতির ঘটনাকে চুরির ঘটনা বলে অভিযোগ নেয় থানা পুলিশ। এমন অভিযোগ ভুক্তভোগীদের। এছাড়া প্রতি ঘটনায় আইনের আশ্রয় চেয়েও ফলাফল পায়নি বলে ভুক্তভোগীদের অভিযোগ। সম্প্রতি ৮-১০টি চুরি-ডাকাতির ঘটনা ঘটলেও প্রতিকার হয়নি। তাই চোর-ডাকাত চক্রের ভয়ে একপ্রকার আতংক নিয়েই বসবাস করছে স্থাণীয় মানুষজন। এসব ঘটনায় আইনের সুদৃষ্টি চেয়েছেন ভুক্তভোগী সহ স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে ভোলাব তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মাহাবুবুর রহমান জানান, এসব ঘটনা উৎঘাটন করে অভিযুক্তেদের আইনের আওতায় আনতে পুলিশ কাজ করছে।