নারায়ণগঞ্জ ০৬:১৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
অপরাধি যেই হোক ছাড় পাবেনা : ওসি গোলাম মোস্তফা মাইক্রোসফট ইনোভেটিভ এডুকেটর এক্সপার্ট বাংলাদেশ কমিউনিটি মিটআপ ২০২৩ অনুষ্ঠিত আদমজী ইপিজেডকে অশান্ত করছে জনপ্রতিনিধিরা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে মহিলা লীগ নেত্রীর শুভেচ্ছা বিনিময় না’গঞ্জ কারাগারে হাজতীর মৃত্যু ফতুল্লায় চোরাইকৃত ট্যাংকলড়ী উদ্ধার আড়াইহাজারের মিথিলা টেক্সটাইল ঘুরে গেলেন ৮ দেশের রাষ্ট্রদূতসহ ১৮ দেশের প্রতিনিধি সিদ্ধিরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের কর্মকর্তাদের সাথে কাউন্সিলর ইকবাল হোসেনের মতবিনিময় ফতুল্লা ব্লাড ডোনার্সের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ শিক্ষা সিলেবাস বাতিলের দাবিতে খেলাফত মজলিসের বিক্ষোভ মিছিল

আড়াইহাজারে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে মাটি বিক্রি, নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজাওে একাধিক স্থানে ফসলি জমির মাটি বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় গ্রামবাসী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। গত ১৭ নভেম্বর অভিযোগটি দিলেও মঙ্গলবার পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার গোপালদী পৌরসভার লক্ষিবরদী নয়াপাড়া গ্রামের অধিকাংশ ফসলি জমি ড্রেজারের কবলে পরে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। ড্রেজার দিয়ে মাটি কাটার ফলে বিশাল গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। অপরিকল্পিতভাবে ড্রেজার দিয়ে মাটি খনন করার কারনে চারপাশের মাটি দেবে ভেঙ্গে পড়ছে। মাটি পরিবহনের জন্য মাইলের পর মাইল পাইপ সংযোগ দিয়ে চলছে পুকুর কিংবা অন্য ফসলি জমি ভরাটের কাজ।

অবৈধ ড্রেজিংয়ের কারণে ৫০/৬০ ফুট গভীর থেকে মাটি ও বালি উত্তেলনের কারণে আশ-পাশের তিন ফসলের জমিগুলো ডোবায় পরিণত হচ্ছে। তাছাড়া দুই সেচ পাম্পে প্রায় ২/৩ বিঘা জমিতে ইরি ধান চাষ হতো কিন্তু বর্তমানে তা আর সম্ভব হয় নয়।

অভিযোগ রয়েছে, স্থানীয় প্রভাবশালী ড্রেজার দিয়ে ফসলী জমি থেকে মাটি কেটে অন্যত্র বিক্রি করে দিচ্ছে। গ্রামের নিরিহ মানুষ কয়েক দফায় বাঁধা দেওয়ার পরও তারা নিয়মিত ভাবে বালু উত্তোলন করে যাচ্ছে এবং পাশের জমির লোকেদের নানারকম হুমকি প্রদর্শন করছে।

গ্রামবাসী জানান, এমন ভাবে চলতে থাকলে এলাকার নির্মানাধীন ঘরবাড়ি ও বিলীন হবার পথে। তাই কর্তৃপর্ক্ষের কাছে জোর দাবি এই গ্রামের কৃষকদের ড্রেজার সরিয়ে তাদের ফসলি জমিতে ফসল চাষের সুযোগ করে দেওয়া।

আড়াইহাজার উপজেলা নির্বাহী অফিসার রফিকুল ইসলাম বলেন, নিজের কিংবা পরের জমির মাটি বিক্রি করার কোন নিয়ম নেই। অভিযোগ পেয়েছি। আমরা ব্যবস্থা নিব।

ট্যাগস :

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

অপরাধি যেই হোক ছাড় পাবেনা : ওসি গোলাম মোস্তফা

আড়াইহাজারে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে মাটি বিক্রি, নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ

আপডেট সময় : ০২:২৬:৫৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজাওে একাধিক স্থানে ফসলি জমির মাটি বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় গ্রামবাসী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। গত ১৭ নভেম্বর অভিযোগটি দিলেও মঙ্গলবার পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার গোপালদী পৌরসভার লক্ষিবরদী নয়াপাড়া গ্রামের অধিকাংশ ফসলি জমি ড্রেজারের কবলে পরে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। ড্রেজার দিয়ে মাটি কাটার ফলে বিশাল গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। অপরিকল্পিতভাবে ড্রেজার দিয়ে মাটি খনন করার কারনে চারপাশের মাটি দেবে ভেঙ্গে পড়ছে। মাটি পরিবহনের জন্য মাইলের পর মাইল পাইপ সংযোগ দিয়ে চলছে পুকুর কিংবা অন্য ফসলি জমি ভরাটের কাজ।

অবৈধ ড্রেজিংয়ের কারণে ৫০/৬০ ফুট গভীর থেকে মাটি ও বালি উত্তেলনের কারণে আশ-পাশের তিন ফসলের জমিগুলো ডোবায় পরিণত হচ্ছে। তাছাড়া দুই সেচ পাম্পে প্রায় ২/৩ বিঘা জমিতে ইরি ধান চাষ হতো কিন্তু বর্তমানে তা আর সম্ভব হয় নয়।

অভিযোগ রয়েছে, স্থানীয় প্রভাবশালী ড্রেজার দিয়ে ফসলী জমি থেকে মাটি কেটে অন্যত্র বিক্রি করে দিচ্ছে। গ্রামের নিরিহ মানুষ কয়েক দফায় বাঁধা দেওয়ার পরও তারা নিয়মিত ভাবে বালু উত্তোলন করে যাচ্ছে এবং পাশের জমির লোকেদের নানারকম হুমকি প্রদর্শন করছে।

গ্রামবাসী জানান, এমন ভাবে চলতে থাকলে এলাকার নির্মানাধীন ঘরবাড়ি ও বিলীন হবার পথে। তাই কর্তৃপর্ক্ষের কাছে জোর দাবি এই গ্রামের কৃষকদের ড্রেজার সরিয়ে তাদের ফসলি জমিতে ফসল চাষের সুযোগ করে দেওয়া।

আড়াইহাজার উপজেলা নির্বাহী অফিসার রফিকুল ইসলাম বলেন, নিজের কিংবা পরের জমির মাটি বিক্রি করার কোন নিয়ম নেই। অভিযোগ পেয়েছি। আমরা ব্যবস্থা নিব।