নারায়ণগঞ্জে মসজিদে কমিটি নিয়ে রক্ষক্ষয়ী সংঘর্ষর আশংকা

শহর প্রতিনিধি :নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) এর পাইকপাড়া বড় মসজিদে কমিটি এবং হিসাব নিয়ে দুপক্ষের মাঝে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। তবে যে কোন সময় উভয় পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হতে পারে এমন আশংকা এলাকাবাসীর।

শুক্রবার জুম্মার নামাজ শেষে মসজিদের ভেতরে পুরান এবং নতুন কমিটি ও হিসাব নিকাশে নিয়ে বাক বিতন্ডায় জড়িয়ে পরে। এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। পরে পুলিশ গিয়ে মুসুল্লিদের বাসায় পাঠিয়ে দেয়।

জানা গেছে, উক্ত মসজিদে দীর্ঘ দিন ধরে কমিটিতে নূর মোহাম্মদ দায়ীত্ব পালন করে আসছে। তবে এবার গম জসিমের ভাই এবং মিঠু নামের একজন নির্মান কমিটির নামে উচ্ছিক্ষল পরিবেশ সৃষ্টি করছে এমন অভিযোগ মুসুল্লিদের।

একই সাথে মসজিদটি মালিকানা জমিতে এমন অভিযোগও রয়েছে। মোল্লা বাড়ির ওয়ারিশ দাবীও করছেন অনেকে। এ নিয়ে নাসিক ১৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কার্যালয় অভিযোগ দেয় মোল্লারা। এর পেক্ষিতে কাউন্সিলর বাবু উভয় পক্ষতে নোটিশ করেন। এরপর মসজিদ কমিটি এটা নিয়ে কোন রকম মাথা ঘামাননি।

এ বিষয়ে স্থানীয় বলছেন আমরা নিরীহ মানুষ। মসজিদে আসি নামাজ পড়তে। কিন্তু দুই পক্ষের নোংরামির কারনে নামাজটাও ঠিকমত পড়তে পারছি না। এর সঠিক বিচার চাই।

এ বিষয়ে নাসিক ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সির আব্দুল করিম বাবু বলেন, হট্রগোলের খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এবং পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। তবে মসজিদে কোন রকম গন্ডগোল কাম্য নয়। আমি মাননয়ী এমপি সেলিম ওসমান এবং জেলা প্রশাসকের সহযোগীতা পেলে এটার সমাধান করতে পারব।

মসজিদের জমি মালকানা নিয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, উভয় পক্ষ নিয়ে বসা হয়েছিল। কাগজপত্র স্পষ্ট নয়। তবে মসজিদ কমিটি পরে এ বিষয়টি আবারো বসার কথা ছিল। কিন্তু তারা কিছুই জানায়নি।