রূপগঞ্জে বিআরটিসি বাস সার্ভিস বন্ধ,চালুর দাবিতে যাত্রীদের মানববন্ধন

রূপগঞ্জ প্রতিনিধি : বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন (বিআরটিসি) বাসের গাজীপুর ডিপোর ম্যানেজার (অপারেশন) জিয়াউর রহমানকে দাবিকৃত ঘুষের টাকা না দেওয়ায় সকাল থেকে  নারায়ণগপঞ্জের  রূপগঞ্জে ভুলতা- গাউছিয়া – কুড়িল বিশ্বরোড সড়কের  বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পরে বাস চলাচলের  দাবিতে ২ এপ্রিল শুক্রবার যাত্রী, ছাত্রছাত্রী, এলাকাবাসী ও ইজারাদারের লোকজন  ভুলতা গাউসিয়া এলাকায় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করে। সেই সাথে দুর্ণীতিবাজ ডিপো ম্যানেজারের অপসারণ দাবি করেন বিক্ষোভকারীরা।

গাউছিয়া টু কুড়িল বিশ্বরোড পর্যন্ত চলাচলরত বিআরটিসি ননএসি (আর্টিকুলার) বাস সার্ভিসের ইজারাদার হারুন মিয়া অভিযোগ করে জানান,  ২০২০ সালের ২৪ আগস্ট থেকে গাউছিয়া টু কুড়িল বিশ্বরোড পর্যন্ত চলাচলরত বিআরটিসি ননএসি (আর্টিকুলার) বাস সার্ভিসের দায়িত্ব পান। দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই সরকারী রাজস্ব নিয়মিত পরিশোধ করে সুনামের সঙ্গে বাস সার্ভিস পরিচালনা করে আসছেন। গাজীপুর বিআরটিসি বাস ডিপোর ম্যানেজার (অপারেশন) জিয়াউর রহমান প্রতিদিন ১০ হাজারা টাকা করে ঘুষ দাবি করে আসছেন ইজারাদার হারুন মিয়ার কাছে। ইতি মধ্যে চাপের মুখে ইজারাদাররা ৫ হাজার টাকা করে দিয়েছেনও। আর দশ হাজার টাকা করে ঘুষের টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় বেশ কয়েক দিন ধরেই জিয়াউর রহমান গাউছিয়া টু কুড়িল বিশ্বরোড পর্যন্ত চলাচলরত বিআরটিসি ননএসি (আর্টিকুলার) বাস সার্ভিস বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দিয়ে আসছে।  এ ব্যপারে  ইজারাদার বাদী হয়ে ওই ম্যানেজারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। ম্যানেজার জিয়াউর রহমানের নির্দেশে গতকাল শুক্রবার (২ এপ্রিল) ভোর থেকেই বাস সার্ভিস বন্ধ করে দেয়া হয়। এতে এ সড়কে চলাচলরত শত শত যাত্রীসাধারন ভোগান্তিতে পড়ে যায়। পরে বাস সার্ভিস চালুর দাবিতে যাত্রীসাধারন ও ইজারাদারের লোকজন মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসুচী পালন করেন। সেই সাথে দুর্ণীতিবাজ ডিপো ম্যানেজারের অপসারণ দাবি করেন বিক্ষুব্ধ যাত্রীসাধারন।

যাত্রীদের অভিযোগ রাজধানী ঢাকায় প্রবেশের সহজ পথ হিসেবে গাউছিয়া টু কুড়িল বিশ্বরোড সড়কটি ব্যবহার করে থাকেন যাত্রীসাধারন। আর এ সড়কে একমাত্র বিআরটিসি ননএসি (আর্টিকুলার) বাস সার্ভিস চালু থাকায় যাত্রীরা অতি সহজে গন্তব্যস্থানে পৌছুতে পারে। এখন বিআরটিসি বাস সার্ভিস বন্ধ থাকার কারনে তারা সময় মতো গন্তব্যস্থানে পৌছুতে পারেনি। ভোগান্তির শিকার হয়েছেন যাত্রীরা।